ঢাকা,শুক্রবার, ৭ মে ২০২১

জাইকার সাথে কনফারেন্সে মেয়র আলমগীর চৌধুরী

চকরিয়া পৌরসভায় নতুন ৭ মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়নের প্রস্তাব

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :: বিশ্বব্যাংকের অর্থযোগানদাতা প্রতিষ্ঠান জাইকার প্রতিনিধি দলের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে মতবিনিময় সভা করেছেন চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী। বুধবার ৭ এপ্রিল সকালে চকরিয়া পৌরসভার সম্মেলনকক্ষ থেকে প্রতিনিধি দলের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন তিনি। এসময় মেয়র আলমগীর চৌধুরী চকরিয়া পৌরবাসির সার্বিক অগ্রগতি উন্নয়নে আগামীতে নতুন সাতটি মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়নে প্রস্তাবনা তুলে ধরেন জাইকার কাছে।

মতবিনিময় সভায় চকরিয়া পৌরসভার সচিব মাস-উদ মোর্শেদ, কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম ছাড়াও পৌরসভার বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী বলেন, বুধবার সকালে বিশ^ব্যাংকের অর্থযোগানদাতা প্রতিষ্ঠান জাইকার প্রতিনিধি দলের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে মতবিনিময় সভা করেছি। মতবিনিময় সভায় চকরিয়া পৌরবাসির সার্বিক অগ্রগতি উন্নয়নে আগামীতে নতুন করে সাতটি মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য জাইকার কাছে প্রস্তাবনা তুলে ধরেছি।

তিনি বলেন, মেগাপ্রকল্পের মধ্যে আছে (১) মুক্তিযোদ্ধা সহ সকলের জন্য একটি অত্যাধুনিক লাইব্রেরী নির্মাণ। (২) চকরিয়া পৌরসভার জন্য অত্যাধুনিক একটি শিশু পার্ক নির্মাণ। (৩) ময়লা-অর্বজনা ফেলার জন্য বৈজ্ঞানিক একটি ডাম্পিং স্টেশন নির্মাণ। (৪) চকরিয়া পৌরশহরের চিরিংগা যানজট নিরাশনের জন্য চকরিয়া কলেজ থেকে ফাঁসিয়াখালি পর্যন্ত বাইপাস সড়ক নির্মাণ। (৫) চকরিয়া পৌরসভার কৃষকদের উৎপাদিত ফসল (সবজি তরতজা রাখার জন্য) একটি কল স্টোর (হিমাগার) স্থাপন। (৬) নবজাতক ও প্রসুতি রোগীদের সুচিকিৎসা নিশ্চিতে একটি মা-শিশু জেনারেল হাসপাতাল নির্মাণ। (৭) প্রতিবন্ধী ও পথ শিশুদের জন্য একটি স্কুল নির্মাণের প্রস্তাবনা দিয়েছি।

মেয়র আলমগীর চৌধুরী বলেন, আশাকরি আমাদের এই প্রস্তাবনা গুলো খুব তারাতারি পাশ হয়ে যাবে। প্রস্তাবিত মেগাপ্রকল্প সমুহ বাস্তবায়নের মাধ্যমে আগামীতে চকরিয়া পৌরসভার সকল ওয়ার্ডে কোন রাস্তা অসমাপ্ত থাকবেনা। মেগাউন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে চকরিয়া পৌরসভার সারা বাংলাদেশের মধ্যে একটি ডিজিটাল পৌরসভা হিসাবে গড়ে উঠবে। আমি চকরিয়া পৌরবাসি সকলের দোয়া সহযোগিতা কামনা করছি।

 

পাঠকের মতামত: