ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

পেকুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কে কোন প্রতীক বরাদ্দ পেলেন 

আসন্ন ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপে প্রতীক বরাদ্দের কাজ শেষ হয়েছে। প্রতীক পেয়ে বৃহস্পতিবার (২ মে) দুপুর থেকে প্রচার শুরু করেছেন প্রার্থীরা। এদিন থেকে ১৮ দিন নির্বাচনী প্রচার চালাতে পারবেন প্রার্থীরা।
পেকুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটানিং কর্মকর্তা ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বিভীষণ কান্তি দাশ জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার কক্সবাজার জেলায় দ্বিতীয় ধাপের প্রতীক বরাদ্দ প্রদান করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় পেকুয়া উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন, ভাইস-চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে তিনজনকে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়।
তথ্য নিয় জানা গেছে, চেয়ারম্যান পদে নারী প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের সহধর্মিণী রুমানা আক্তার আনারস, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মটরসাইকেল, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা শাফায়েত আজিজ রাজু ঘোড়া, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য গিয়াস উদ্দিন টেলিফোন ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা আশরাফুল ইসলাম সজিব দোয়াত কলম প্রতীক পেয়েছেন।
ভাইস-চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক টিউবেল, পেকুয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান মাহবু্ল করিম তালা, পেকুয়া উপজেলা আ’লীগের সাবেক নেতা নাসির উদ্দিন বাদশা মাইক, পেকুয়া উপজেলা ছাত্রীগের সাবেক সভাপতি মমতাজুল ইসলাম চশমা প্রতীক পেয়েছেন।
ভাইস-চেয়ারম্যান (মহিলা) পদে বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম মিনু ফুটবল, সাংবাদিক জহিরুল ইসলামের সহধর্মিণী উন্নয়নকর্মী ইয়াসমিন সোলতানা কলসি ও পেকুয়া ঋণদান সমিতির সভাপতি নুরুল আবছারের সহধর্মিণী রাজিয়া সোলতানা প্রজাপতি প্রতীক পেয়েছেন।
এইদিকে প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার মাইকিংযোগে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছে প্রার্থীরা। এছাড়াও পোস্টার ও ব্যানার সংশ্লিষ্ঠ প্রার্থীদের প্রতীক ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।
একমাত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী রুমানা আক্তার বলেন, ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে আমার পরিবার বারবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বর্তমানেও আমার স্বামী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম এর মনোনয়ন যাতে ফেরত না পায় তার ষড়যন্ত্রও অব্যাহত রেখেছেন। ইনশাল্লাহ আমি যেখানেই প্রচারণায় যাচ্ছি জনগণের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। ২১ তারিখ ব্যালেটের মাধ্যমে সেই ষড়যন্ত্রের জবাব দিবে সাধারণ জনগণ ও দলীয় নেতকর্মীরা।

পাঠকের মতামত: