ঢাকা,সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০

চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের প্রস্তুতি সভা: বঙ্গবন্ধুর জীবনী শীর্ষক আলোচনা, মসজিদ-মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনায় পালিত হবে ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালনের উপলক্ষে কক্সবাজার চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ আগষ্ট) সকাল ১০টায় উপজেলা প্রশাসন আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সম্মেলনকক্ষ মোহনা মিলনায়তনে অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া – পেকুয়া ১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ।

অনুষ্ঠিত আলোচনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.হাবিবুর রহমান, উপজেলা হাসপাতালের প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা.মোহাম্মুদুল হক।

সভায় উপস্থিত ছিলেন, মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পশ্চিম বড়ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা, চিরিঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ জসীম উদ্দিন, সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, কাকারা ইউপি চেয়ারম্যান শওকত ওসমান, ডুলাহাজারা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন, বিএমচর ইউপি চেয়ারম্যান এসএম জাহাঙ্গীর আলম, হারবাং ইউপি চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম, চকরিয়া উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশ, কৈয়ারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মক্কী ইকবাল হোসেন, বরইতলী ইউপি চেয়ারম্যান জালাল আহমদ সিকদার, খুটাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো.আবদুর রহমান, লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তাফা কাইছার। এছাড়াও সভায় উপজেলা সম্বয়ক কমিটির সকল সদস্য এবং প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সকলের সম্মতিক্রমে সিদ্বান্ত নেয়া হয়েছে, মহামারি করোনা সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনে সীমিত আকারে কর্মসূচি গ্রহন করবে।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি ও বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, বঙ্গবন্ধুর জীবনী ও কীর্তি শীর্ষক আলোচনাসভা, বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী, এদিন বাদ যোহর বিভিন্ন মসজিদ-মন্দিরে মোনাজাত ও বিশেষ প্রার্থনা এবং যথাযথ মর্যাদায় শোক দিবস পালন করা হবে বলে সভায় জানানো হয়।##

পাঠকের মতামত: