ঢাকা,মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১

পেকুয়ার সাত ইউনিয়নে ৫হাজার পরিবারে ডাব্লিউএফপি’র ত্রাণ বিতরণ

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :: মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় পেকুয়া উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের জীবিকা হারানো ৫ হাজার পরিবারের মাঝে ডাব্লিউএফপির অর্থায়নে এসএআরপিভির উদ্যোগে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে সুন্দরভাবে খাদ্য সহায়তা বিতরণ শুরু করেছে।  আজ বুধবার ১৭ জুন সকাল থেকে প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা এসএআরপিভি’র কর্মীরা সারাদিন উপকারভোগীদের মাঝে এই খাদ্য সহায়তার ত্রাণ বিতরণ করেন। এলাকার জনসাধারণও প্রবল বৃষ্টির মধ্যে বিতরণ কেন্দ্রে গিয়ে তাদের খাদ্য সহায়তা নিয়ে গেছেন। বুধবার শিলখালী, বারবাকিয়া ও টৈটং এ খাদ্য সহায়তা বিতরণের মাধ্যমে পেকুয়ায় এ কার্যক্রম শুরু করা হয়।

এদিন শিলখালীতে খাদ্য সহায়তা প্রদান পরিদর্শনের মাধ্যমে বিতরণ উদ্বোধন করেন পেকুয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মীকি মার্মা। শিলখালীতে বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন শিলখালী ইউপি চেয়ারম্যান নূরুল হোসেন, এসএআরপিভি’র ত্রাণ সমন্বয়ক ইয়াসমিন সুলতানা, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম, শিলখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ওয়াহিদুর রহমান ওয়ারেচী, উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতা কাজীউল ইনসান, খানে আলম, সাধারণ সম্পাদক বেলাল উদ্দিন আহমদ, বশির মালিক, ওয়ার্ড় আওয়ামীলীগের মনির উদ্দিন মনু, ৮নং ওয়ার্ড় আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, শিলখালী ওয়ার্ড় আওয়ামীলীগের কলিমুল্লাহ কালু, বাহাদুল করিম, মাহমুদুল করিম, ফরিদ, নূর আলী, সিরাজুল মোস্তফা, মোহাম্মদ আলী, মহিউদ্দীন, ইউনুচ।

বারবাকিয়া ইউনিয়নে বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ বারেক, বারবাকিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল হোসেন শামা, সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম, ওয়ার্ড় আওয়ামীলীগ নেতা জাফর আলম ও মোজাম্মেল হক। টৈটংয়ে বিতরণের সময় উপস্থিতি ছিলেন টৈটংয়ের প্যানেল চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগেরে সভাপতি সরওয়ার উদ্দিন, জাফর আলম, আবদুল মালেক ও ওসমান প্রমুখ। শিলখালী, বারবাকিয়া ও টৈটংয়ে বিতরণে উপস্থিত ছিলেন এসএআরপিভি’র কর্মকর্তা আকতার কামাল মিরাজ, রুবি, আবদুল মালেক, অনুপ চন্দ্র, রুবি, মোঃ জিয়া, মোঃ রাব্বির হোসেন, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম।

এসএআরপিভি’র আঞ্চলিক পরিচালক কাজী মাকসুদুল আলম মুহিত জানান; এ কর্মসুচীর আওতায় করোনা সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় নিম্ন আয়ের চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার ২২ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। চকরিয়ায় প্রাথমিক পর্যায়ের খাদ্য সহায়তা প্রদান প্রায় শেষ পর্যায়ে। কর্মসূচীর আওতায় এসেছে চকরিয়া উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ১৮ ইউনিয়নের ১৬ হাজার ৫শত পরিবার। পেকুয়া উপজেলা ৭ ইউনিয়নের সাড়ে ৫ হাজার পরিবার। চার মাসে চার কিস্তিতে চকরিয়ার ১৬ হাজার ৫শত পরিবারের প্রতি পরিবার পাবেন ৬০ কেজি ভাল মানের চাল, ৫ কেজি হাই এনার্জি বিস্কুট ও নগদ ৪ হাজার ৫শত করে টাকা। পেকুয়ায় ৫ হাজার ৫শত পরিবারের প্রতি পরিবার পাবেন ৬০ কেজি ভাল মানের চাল ও নগদ ৪ হাজার ৫শত করে টাকা। চকরিয়ায় বিতরণ প্রায় শেষ হওয়ায় বুধবার থেকে পেকুয়া উপজেলার শিলখালী, বারবাকিয়া ও টৈটং ইউনিয়নে বিতরণের মাধ্যমে এ কার্যক্রমটি শুরু হল। পেকুয়ায়ও চকরিয়ার মতো প্রতিদিন ৩টি ইউনিয়নে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে। পেকুয়ায় ডাব্লিউএফপি’র পুষ্টি কার্যক্রমে আগে থেকে হাই এনার্জি বিস্কুট দেওয়া হচ্ছে। তাই এবারের খাদ্য সহায়তা প্রদানের সময় এই বিস্কুট দেওয়া হচ্ছেনা।

পাঠকের মতামত: