Home » কক্সবাজার » চকরিয়াসহ কক্সবাজারের ৬টি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকসংকট চরমে…

চকরিয়াসহ কক্সবাজারের ৬টি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকসংকট চরমে…

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

ভৌতবিজ্ঞান, সামাজিক বিজ্ঞান ও ইংরেজির কোনো শিক্ষক নেই
৬০০ শিক্ষার্থীর জন্য গণিত শিক্ষক একজন
বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার :: কক্সবাজার জেলা শহরের দুটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়সহ জেলার ছয়টি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকসংকট চরম আকার ধারণ করেছে। একটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৯৭৮ জন শিক্ষার্থীর জন্য রয়েছেন মাত্র চারজন শিক্ষক। বিদ্যালয়টিতে ইংরেজি, গণিত, ভৌতবিজ্ঞান ও সামাজিক বিজ্ঞানের কোনো শিক্ষক নেই। আবার জেলা শহরের একমাত্র সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬০০ শিক্ষার্থীর জন্য রয়েছেন মাত্র একজন গণিতের শিক্ষক।

শিক্ষকসংকটের এ কারণ সম্পর্কে জানা গেছে, ২০১২ সালের পর থেকে উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত রয়েছে। তবে সম্প্রতি বেশ কিছু শিক্ষক নিয়োগের প্রাথমিক প্রক্রিয়া শেষ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জেলার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়গুলোর এমন করুণ অবস্থার বিষয়ে জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে কাজ শুরু করা হয়েছে। এত অল্পসংখ্যক শিক্ষক দিয়ে এত বেশি শিক্ষার্থীর পড়ালেখা নিশ্চিত করা যায় না। অচিরেই শিক্ষকসংকটের বিষয়টি সমাধান করা হবে।’

জেলা শহরের একমাত্র সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের এক হাজার ২০০ শিক্ষার্থীর জন্য শিক্ষক পদ রয়েছে ৫২টি। কিন্তু বর্তমানে আছেন মাত্র ২৪ জন শিক্ষক। এর মধ্যে আগামী জানুয়ারি মাসে দুজন যাবেন বিএড প্রশিক্ষণে। এই বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থীর জন্য গণিতের ছয়জন শিক্ষকের স্থলে রয়েছেন মাত্র তিনজন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রামমোহন সেন জানান, ইংরেজি বিষয়ে আটজন শিক্ষকের স্থলে আছেন মাত্র চারজন। বিদ্যালয়ের সহকারী ও পিয়নের ৯টি পদে রয়েছেন মাত্র দুজন।

কক্সবাজার জেলা শহরের একমাত্র সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিস্থিতি আরো করুণ। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আমার বিদ্যালয়ে এক হাজার ২০০ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৫২ জন শিক্ষক থাকার কথা; কিন্তু আছেন মাত্র ৩০ জন। এই স্বল্পসংখ্যক শিক্ষক দিয়ে সকাল-বিকাল দুই শিফটের শিক্ষা কার্যক্রম চালাতে হিমশিম খাচ্ছি।’

তিনি জানান, বিদ্যালয়টির ৬০০ জন শিক্ষার্থীর জন্য গণিতের শিক্ষক রয়েছেন মাত্র একজন।

চকরিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১১ জন শিক্ষকের স্থলে রয়েছেন মাত্র চারজন। বিদ্যালয়টিতে ইংরেজি, গণিত, ভৌতবিজ্ঞান ও সামাজিক বিজ্ঞান শাখায় কোনো শিক্ষকই নেই।

চকরিয়া সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৫০ জন শিক্ষার্থীর জন্য ১২ জন শিক্ষকের স্থলে রয়েছেন মাত্র ছয়জন। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক গোলাম আহাদ মো. এনামুল হক জানান, এই বিদ্যালয়ে বাংলার কোনো শিক্ষক নেই। গণিত ও ইংরেজি বিষয়ের জন্য রয়েছেন মাত্র একজন করে শিক্ষক।

কুতুবদিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০০ জন শিক্ষার্থীর জন্য শিক্ষক পদ রয়েছে ১২টি। অথচ শিক্ষক আছেন সাতজন। গণিত ও বাংলায় রয়েছেন একজন করে শিক্ষক। বিদ্যালয়টির সহকারী শিক্ষক সজল কান্তি দাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মহেশখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হেলাল উদ্দীন জানান, ৪০০ জন শিক্ষার্থীর জন্য বর্তমানে সাতজন শিক্ষক থাকলেও দুজন আগামী জানুয়ারিতে বিএড প্রশিক্ষণে যাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চট্টগ্রাম ৮ আসনে মোছলেম উদ্দিনের মনোনয়নপত্র জমা

It's only fair to share...000আবুল কালাম, চট্টগ্রাম :: চট্টগ্রাম ৮ আসেনর উপ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ...

error: Content is protected !!