Home » কক্সবাজার » কক্সবাজারে ছাত্রদলের ৩৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পায়রা ঝাঁক যেন নেমেছিল রাজপথে

কক্সবাজারে ছাত্রদলের ৩৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পায়রা ঝাঁক যেন নেমেছিল রাজপথে

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

cox-chatra-dall-pic-1নিজস্ব প্রতিবেদক :::

ঝাঁকে ঝাঁকে পায়রা যেন উড়ছিল সড়কে! এতো পায়রা যেন জড়ো হয়েছে সমুদ্র সৈকতের এই সড়কে! হ্যাঁ, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্রতিষ্টা বার্ষিকীর র‌্যালিতে অংশগ্রহণকারি নেতা-কর্মীদের যেন তা-ই মনে হচ্ছিল। রাজপথ কাঁপিয়ে তারা বজ্রকন্ঠে শ্লোগান তুলেছেন, ‘ছাত্রদল দিচ্ছে ডাক, স্বৈরাচারী সরকার নিপাত যাক’!

প্রতি পদে পদে যেন বাঁধার দেয়াল হয়ে আছে পুলিশ। কিছুতেই তারা বেশিদূর আগাতে দেবে না নানাঘর থেকে আসা এই পায়রাদের। জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে প্রধান সড়ক ঘুরে যখন আবারও একই জায়গায় ফিরে আসছিল তখনও পুলিশী বাঁধা চলছিল। পুলিশের বাঁধা পেরিয়ে আনন্দ উচ্ছ্বাসের সেই আনন্দ মিছিল ঠিকই করে ফেলেছে কক্সবাজার জেলা ছাত্রদল।

রোববার (১ জানুয়ারী) ছিল শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া ছাত্র সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। আনন্দের সেই দিনটি উদযাপনে জেলা ছাত্রদল হাতে নিয়েছিল নানা কর্মসূচি। সেই কর্মসূচিতে ছিল রবিবার ভোর ৭টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বিকালে ছাত্র সমাবেশ ও বর্ণাঢ্য র‌্যালি। শেষে কেক কেটে জন্মক্ষণ উদযাপন। চকরিয়া পৌরসভা ছাত্রদল নেতা কুতুব উদ্দিনের কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে কর্মসুচি শুরু হয়।

এরপর দলের ৩৮ তম ঐতিহ্যবাহী দিনটি উপলক্ষে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে বর্ণাঢ্য র‌্যালীর শুভ উদ্বোধন করেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম আরা স্বপ্না। সাথে ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট আবু ছিদ্দিক ওসমানী আর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি অধ্যাপক আজিজুর রহমান, জেলা মৎস্যজীবী দলের সভাপতি হামিদ উদ্দিন ইউছুন গুন্নু, কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য এম মোকতার আহমদ, জেলা যুবদলের সভাপতি ছৈয়দ আহমদ উজ্জল, সাধারণ সম্পাদক জিসান উদ্দিন, জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মো. রফিক, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-সম্পাদক আবছার কামাল ও শহর শ্রমিকদলের সভাপতি এস্তাক আহমদ।

জাতীয় ও দলীয় পতাকা বহন করে শহীদ জিয়ার সেনারা র‌্যালী নিয়ে শহরে যাত্রা শুরু করে। এ সময় শহর, সদর, সরকারী কলেজ, সিটি কলেজ, আইন কলেজ, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, রামু উপজেলা, মহেশখালী উপজেলা, মহেশখালী পৌরসভা, মহেশখালী কলেজ, চকরিয়া পৌরসভাসহ শহরতলীর বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে শত শত নেতাকর্মী মিছিল সহকারে ছাত্র সমাবেশে যোগ দেয়। এতে দলীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি বিভিন্ন স্কুল কলেজ থেকে সাধারণ ছাত্ররাও স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করে।

জেলা ছাত্রদল সভাপতি রাশেদুল হক রাসেল ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মনির উদ্দিনের নেতৃতে জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে বের করা র‌্যালিতে ছিল প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর ক্যাপ, সামনে পেছনে বাদকের দল। ঢোল, বাদ্য ও বাশরী বাজিয়ে রঙ্গিন করে তোলা সেই র‌্যালি শহর মাতিয়ে তুলে পুনরায় দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গনে মিলিত হয়। সেখানে কেক কাটার মাধ্যমে দলীয় কর্মসুচির ইতি টানা হয়।

র‌্যালিপূর্ব বিশাল ছাত্র সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা ছাত্রদল সভাপতি রাশেদুল হক রাসেল। জেলা সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মনির উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি এডভোকেট শামীম আরা স্বপ্না  বলেন, ‘দেশের সব সুসময় ও দুঃসময়ে ছাত্রদলই নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়েছে। আগামিতেও ছাত্রদলই দেশের সবধরণের সংকট মুহুর্তে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশে এখন যেভাবে দুঃশাসন চলছে, সেই দুঃসময় কাটাতে হলে এই ছাত্রদলকেই সামনের কাতারে নেতৃত্ব দিতে হবে।’

তিনি মনে করেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আর দেশনায়ক তারেক রহমান ডাক দিলেই ছাত্রদল রাজপথে থেকে বিজয় ছিনিয়ে আনবে।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন- জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জাহেদুল ইসলাম রিটন, এস.ডি বাবুুল, রাশেদুল হক রাশেদ, মো. আলী, ফাহিমুর রহমান ফাহিম, হারুনুর রশিদ, শাহীনুল কাদের লিমন, ফারুক আজম, শাহ মোশাররফ হোসেন, রিয়াদ মো. আরফাত হোসেন, ওমর ফারুক দিনার, ছৈয়দ মহসিন মুন্না, জহির আলম, জিল্লুর রহমান, জাহেদুল হক, জহিরুল আলম, যুগ্ম-সম্পাদক সাজ্জাদ হোসন নিশান, জাহেদুল হক, মিজানুল আলম, রাশেদুল করিম রাশেদ, মোজাম্মেল হক, এনামুল হক এনাম, নিয়াজ মোর্শেদ লিটন, কাজী মহিউদ্দিন মো. তারেক, আলমগীর কবির, নেজাম উদ্দিন, ইয়াছিন আরাফাত বিপু, শামসুল আলম, মোশারফ হোসেন বাপ্পা, মো. কাশেম, হারুনর রশিদ, মুজিবুর রহমান রোমান, তারেক হোসেন, আবু মো. ওমর ফারুক ছিদ্দিকী, সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান সিকদার, রাসেল সরওয়ার, কাউছার হোসেন রিপন, এরশাদুল হক রাজু, সাদ্দাম হোসেন, রিয়াজ উদ্দিন, মোস্তফা কামাল সবুজ, মোহাম্মদুল হক রাসেল, সাজিদ আবেদীন, মো. ছালাহ উদ্দিন, আবু ফয়সাল, নুরুদ্দিন মুন্না, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন রাফি, শাহনেওয়াজ রানা, মিজানুর রহমান, মো. আলম, সাইফুল আলম রানা, মহি উদ্দিন, হোসনে মোবারক মিনার, মো. শাহজাহান লুতু, খোরশেদ আলম, হুমায়ুন কবির, ওমর ফারুক, হেলাল উদ্দিন, মো. আবুল কাশেম, এএইচ এম মাসুদ, শঅহ জামাল সিরাজী মাসুম, মাকসুদুল ইসলাম সবুজ, ইশতেহাদুল হক মাসুম, আফছার কামাল সিকদার, ইফতেখারুল আমিন তুষার, প্রচার সম্পাদক আশরাফ ইমরান, দপ্তর সম্পাদক ফয়সল মোশরফ ফয়েজ, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক আক্তার নূর, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক একরামুল হক, ক্রিড়া সম্পাদক ইফতেখার মাহমুদ জুয়েল, স্কুল বিষয়ক সম্পাদক জাফর আলম, অর্থ সম্পাদক আল আমিন, আইন বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল হক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির রিপন, যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক মো. ফায়সাল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো. আবদুল্লাহ খান, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক কাজী মো. শরিফুল ইসলাম নকিব, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক লুৎফুর রহমান খোকা, পরিবেশ ও জলবায়ু বিষয়ক সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন-২, সহ-প্রচার সম্পাদক হাফিজ আল আসাদ, আবদুল্লাহ আল মামুন, সহ-দপ্তর সম্পাদক মো. ফায়েজ, সহ-সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক আসিফুল হাসান সিফাত, সহ-সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল করিম হেমিন, সহ-ক্রিড়া সম্পাদক নূর হোসেন, রিয়াজ উদ্দিন মিশুক, সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মনজুর আলম, সহ-স্কুল বিষয়ক সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম, শাহবাজ হায়দার আকাশ, সহ-পাঠাগার সম্পাদক মো. রুস্তম, সহ-অর্থ সম্পাদক মো. সোহেল, সহ-অর্থ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন-৩, সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন সাঈদী, রাশেদুল হক, সহ-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম মনির, মো. পারভেজ, সহ-যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক ফারুক শরীফ, এনামুল হক জুয়েল, সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আরিফুর রহমান, হাফেজ শাহনেওয়াজ, সহ-আপ্যায়ন সম্পাদক নাসির উদ্দিন পিন্টু, সহ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন সাগর, বেদারুল ইসলাম, সহ-গণসংযোগ বিষয়ক সম্পাদক মিজান উদ্দিন, নুরুল আমিন পুতু, সদস্য আলমগীর হাসান পোলক, মোহাম্মদ হোসেন মাদু, মো. ইউনুছ, সাইমুম রহমান শামীম, রফিকুল ইসলাম, আমির সোহেল, ওসমান সরওয়ার টিপু, নুরুল আবছার, মো. ওসমান গণি, একেএম ছাদেক হাসান, আনোয়ারুল ইসলাম আজাদ আনার, আবু বক্কর ছিদ্দিক, মো. এরশাদ উল্লাহ, আবদুল হামিদ খান, এম. তারেকুল ইসলাম তারেক, মো. সোহেল, একরাম উদ্দিন জুয়েল, মো. কামাল হোসেন, ছৈয়দুল খাইর, মো. রবিউল হোসেন রবি, ফয়সাল রিয়াদ, জিয়াউল হক বাবলু, মো. ফেরদৌস, নঈম উদ্দিন, ইসমাঈল খান, মোয়াজ্জেম হোসেন রাজা, মো. বায়তুল্লাহ, আবদুল করিম রিফাত, ফয়েজ আকবর, মারুফ বিন কবির, জিয়াউদ্দিন বাবলু, আসিফ সোলাইমান, সাইমন কামাল, সাইফুদ্দিন সাইফু, আশিকুর রহমান আশিক, হোসনে মোবারক, এখলাসুর রহমান, আবদুল্লাহ আল মারুফ, শহীদুল ইসলাম রনি, আরফাত হোসেন রনি, ওসমান গণি, মো. ছানাউল্লাহ, শাহাদত হোসেন লোকমান, রাসেল করিম, মো. আরিফ, মো. রাব্বি, ফিরোজ খান, নুরুল আমিন, সোহেল রানা, মো. সোহেল, মো. নুরুল আজাদ, মো. এহছান, রিদুয়ানুল ইসলাম রায়হান, সিরাজ, শাহেদুল ওয়াহিদ, মিনহাজুল ইসলাম, আজিজ, জিসান উদ্দিন, মো. জুনায়েদ, সাজ্জাদ হোসাইন, ফরহাদ, মো. আলিফ, ছৈয়দুল হক, নাজমুল হুদা, মো. মিনার, আরেফিন বাবু, আহসানুল করিম বাবু, হাসানুল করিম রাজিব, মো. পারভেজ, মো. শফি আলম, সাইফুল ইসলাম, মোবাশশের আহমদ, ইয়াছিন আরফাত ইমু, ইরফানুল করিম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

লামায় মোটর সাইকেল লাইনে ব্যাপক চাঁদাবজির অভিযোগ

It's only fair to share...000মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি ::   বান্দরবানের লামায় যাত্রীবাহী মোটর ...