ঢাকা,বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২

বেতুয়া বাজার ব্রিজের সিসি ঢালাই উঠে ক্ষতবিক্ষত, ঝুঁকিতে মানুষ ও যান চলাচলে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া :: চকরিয়ায় সঠিক তদারকির অভাবে যানবাহন চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে চিরিঙ্গা–বেতুয়া বাজার–বাঘগুজারা সড়কের বেতুয়া বাজার এলাকার হযরত আবু বকর সিদ্দীক (রা.) সেতুটি। মাতামুহুরী নদীর ওপর নির্মিত এই সেতুটি নির্মাণের সময় উপরিভাগে বিটুমিন–কংক্রিটের প্রলেপ না দেয়ায় সিসি ঢালাইয়ের উপরিঅংশ উঠে গিয়ে ক্ষতবিক্ষত হয়ে পড়েছে। স্থানীয় এমপি তৎকালীন যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী সালাহউদ্দিন আহমদ কর্তৃক উদ্বোধনের পর ২০০৬ সালে যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয় সেতুটি।

স্থানীয়রা জানান, চলতি বর্ষা মৌসুমে অতিবৃষ্টি এবং ব্যাপক যানবাহন চলাচলের কারণে এই অবস্থার সৃষ্টি হলেও সেতুটির পরিচর্যায় কোনো পদক্ষেপ দেখছেন না। এমনকি সংশ্লিষ্ট দপ্তরের লোকজন এখনো পর্যন্ত সেতুটি একবার পরিদর্শনও করেননি বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। সেতুটির উপকারভোগী বিএমচর ইউনিয়নের বেতুয়া বাজার এলাকার বাসিন্দা প্রবাসী মো. আহসান হাবিব বলেন, চকরিয়া পৌরসভা এবং বিএমচর ইউনিয়নকে সংযুক্তকারী মাতামুহুরী নদীর ওপর নির্মিত এই সেতুটি দিয়ে প্রতিদিন হাজারো যানবাহন চলাচল করে।

এই সেতুটি নির্মিত হওয়ার পর থেকে অবহেলিত জনপদের গ্রামীণ অর্থনীতি থেকে শুরু করে সড়ক যোগাযোগ উন্নত হয়। এই সেতু ব্যবহার করে পেকুয়াসহ সারাদেশের সঙ্গেও যোগাযোগ স্থাপিত হয়েছে। কিন্তু সেতুটির যেন কোনো অভিভাবকই নেই। তাই দিন দিন সেতুটির উপরিঅংশের সিসি ঢালাইয়ের একটি স্তর উঠে যাচ্ছে বৃষ্টি এবং যানবাহন চলাচলের কারণে।

কয়েকজন স্থানীয় ব্যক্তি জানান, সেতুটি স্থাপিত হওয়ার পর থেকে এলাকার আমূল পরিবর্তন হয়েছে। তাই সেতুটির প্রয়োজনীয় তদারকিসহ উপরিঅংশে বিটুমিন–কংক্রিটের প্রলেপ দেওয়া হলে যানবাহন চলাচল নির্বিঘ্ন হবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে সড়ক ও জনপথ বিভাগ চকরিয়ার উপ–বিভাগীয় প্রকৌশলী (এসডিই) মো. সাখাওয়াত হোসেন জানান, জনগুরুত্বপূর্ণ সেতুটির নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়েছিল ২০০৬ সালে। সড়কটি সওজের হলেও মূলত নির্মাণ করেছিল উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তর (এলজিইডি)। তবে এটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পড়েছে সওজের ওপর। তাই সেতুটির উপরিভাগে বিটুমিন–কংক্রিটের আস্তরণ দিয়ে যাবাহন চলাচল নির্বিঘ্ন করার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগ কক্সবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহে আরেফিনের সঙ্গে কথা বলার জন্য মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হয়। তবে ফোন ধরেন অধীনস্থ উপ–বিভাগীয় প্রকৌশলী–১ আজহারুল ইসলাম। তিনি দৈনিক চকরিয়া নিউজকে বলেন, চিরিঙ্গা–বেতুয়াবাজার–বাঘগুজারা সড়কের বেতুয়া বাজার এলাকায় মাতামুহুরী নদীর ওপর নির্মিত সেতুটির উপরিঅংশের সিসি ঢালাই উঠে যাওয়ার বিষয়টি অবগত আছে দপ্তর। ইতোমধ্যে সেতুটি আমি নিজে পরিদর্শন করেছি। অচিরেই সেতুটিকে যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজনীয় কাজ শুরু করা হবে।

পাঠকের মতামত: