ঢাকা,শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২

সেন্টমার্টিনে অবস্থান করছেন এক হাজারের বেশী পর্যটক

কক্সবাজার প্রতিনিধি ::

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ প্রভাবে সমুদ্রবন্দরগুলোকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া বিভাগ। তাই দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ চৌধুরী।

তিনি জানান, আজকে সে সকল জাহাজ সেন্টমার্টিন গিয়েছে তারা পর্যটকদের নিয়ে ফিরে এসেছে। মূলত  আজ রোববার ৫ ডিসেম্বর থেকে আর কোন জাহাজ সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে না। সেটা টেকনাফ বা কক্সবাজার থেকে হোক। আবাহাওয়া পরিস্থিতি যতদিন ভাল হচ্ছে না ততদিন এ নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে। কক্সবাজার শহর এবং টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন্স দ্বীপে ৭টি পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল করে।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রে ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পযন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই মুহূর্তে ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটে সাগর উত্তাল রয়েছে। সমুদ্রবন্দরগুলোকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

এদিকে সেন্টমাটিনে এক হাজারের বেশী পর্যটক অবস্থান করছেন বলে জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ।

পাঠকের মতামত:

 
error: Content is protected !!