ঢাকা,বুধবার, ২৯ মে ২০২৪

রাতের আঁধারে প্রজেক্টে মুখোশধারিদের বিষ প্রয়োগ, মরে ভেসে উঠল ৩০ লাখ টাকার মাছ

মানুষ মানুষের সাথে দুশমনি করে, এটা সবাই জানে। কিন্তু মানুষ কী পানিতে বেঁচে থাকা প্রাণী মাছের সাথে দুশমনি করতে পারে! তেমন দুশমনিই করেছে ছনখোলার একদল মানুষ। দুশমনি করে প্রজেক্টের পানিতে বিষ মিশিয়ে সব মাছকেই মেরে ফেলেছে দুশমনরা।

কক্সবাজার শহরের অনতিদূরে পিএমখালীর ছনখোলা এলাকায় মেরিন সিটি গ্রুপ অব কোম্পানিজের মালিকানাধীন মৎস্য প্রকল্পে এমন ঘটনা ঘটেছে। বিষ প্রয়োগ করে লাখ লাখ টাকার মাছ মেরে ফেলা হয়েছে। রাতের আঁধারে অজ্ঞাত দুস্কৃতিকারিরা এই ঘটনা ঘটায়। এতে অন্তত ৩০ লাখ টাকার বিভিন্ন প্রজাতির মাছ মারা গেছে। ওই সময় মুখোশধারি দুস্কৃতিকারিরা প্রজেক্টের পরিচালক মাহিনকে হত্যার হুমকি দিয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার (০৯ মে) রাতের কোন এক সময়ে দুস্কৃতিকারিরা প্রজেক্টে ডুকে অন্তত ৮টি পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। সকালে প্রজেক্টের কর্মচারীরা দেখতে পান, প্রজেক্টের ৭/৮টি পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে উঠেছে।

প্রজেক্টের এসব পুকুরে তেলাপিয়া, রুই, কাতলা, সিলভার কাফ, বাটা ও চিংড়িসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ রয়েছে।

ছনখোলা মেরিন সিটি প্রজেক্ট নামের ওই প্রকল্পটি দীর্ঘ ১৫ বছর আগে প্রতিষ্ঠা করা হয়। এখানে বর্তমানে মাছ চাষের উপযোগী ২০টি বড় আকারের পুকুর রয়েছে।

মেরিন সিটি গ্রুপ অব কোম্পানিজের চেয়ারম্যান এএমজি ফেরদৌস জানিয়েছেন, মুখোশধারি কয়েকজন দুস্কৃতিকারি রাতের আঁধারে প্রজেক্টে ডুকে বেশ কয়েকটি পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে ৩০ লাখ টাকার মাছ মেরে ফেলেছে। দুস্কৃতিকারিরা প্রজেক্টের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হুমকি ধমকি দেয়। তারা প্রজেক্টের পরিচালক মাহিনকেও হত্যার হুমকি দিয়েছে।

তিনি ধারণা করছেন, ছনখোলার একটি চিহ্নিত দুস্কৃতিকারি চক্র দীর্ঘদিন ঝরে প্রজেক্টের মাছ চুরিসহ নানা ধরনের অপকর্ম করে আসছিল। এটিও সেই চক্রের কাজ হতে পারে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

পাঠকের মতামত: