ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলাকে শান্তির জনপদ হিসেবে গড়ে তুলতে আসুন ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করিঃ সাংসদ ই

স্টাফ রিপোর্টার, চকরিয়া :: চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত মাসিক আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক কমিটির প্রথম সভায় অংশ নিয়েছেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া পেকুয়া) আসনের নবনির্বাচিত সাংসদ মেজর জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটায় চকরিয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন মোহনায় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতে নবনির্বাচিত সাংসদ সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিমকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। পরে সভায় উপস্থিত উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি, আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্যরা নবনির্বাচিত এমপি সৈয়দ ইবরাহিমের সঙ্গে পরিচিত হন।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাসিক আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন এমপি সৈয়দ ইবরাহিম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন আহমদ সিআইপি, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মো. রাহাত উজ জামান, চকরিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্ট, নারী ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, সুরাজপুর-মানিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক, দৈনিক চকোরীর সম্পাদক অধ্যক্ষ একেএম গিয়াস উদ্দিন, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক জামাল উদ্দিন জয়নাল, চিরিঙ্গা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশ, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহেদ চৌধুরী, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ইবনে আমিন, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিজবাউল হক, ঢেমুশিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান মঈন উদ্দিন চৌধুরী, বিএমচর ইউপি চেয়ারম্যান এসএস জাহাঙ্গীর আলম, বরইতলী ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ছালেকুজ্জামান, খুটাখালী ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রহমান, ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন, কাকারা ইউপি চেয়ারম্যান মো.শাহাব উদ্দিন, লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মোহাম্মদ বুলেট, পূর্ববড় ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান ফারহানা আফরিন মুন্না।
সভায় প্রধান অতিথি সৈয়দ ইবরাহিম বলেছেন, সবার আগে দরকার এলাকার আইনশৃঙ্খলা সম্মুন্নত রাখা। জনগণের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ও যানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। এই বিষয়টি জনপ্রতিনিধি এবং দায়িত্বশীল নাগরিকদের সার্বিক সহযোগিতায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলাকে শান্তির জনপদ হিসেবে গড়ে তুলতে পারবেন।
তিনি বলেন, আমি কোনদিন খারাপ কাজকে সমর্থন দেব না, খারাপ লোকজনকে আশ্রয় প্রশয় দেব না। কখনো নিরাপরাধ কোন মানুষকে মামলায় আসামি করার জন্য সুপারিশ করা হবে না। তবে ঘটনার প্রেক্ষিতে তদন্ত করে পুলিশ মামলা নেবে। আবার সেই মামলায় কোন অবস্থাতে নিরিহ নিরপরাধ মানুষ আসামি হোক সেটি আমি চাই না।

সৈয়দ ইবরাহিম আরও বলেন, অনেকের মধ্যে নানা বিষয়ে বিভেদ বিভক্তি তৈরি হয়েছে। আমি চাই অতীতের সব জঞ্জাল ধুয়ে মুছে সবাই এককাতারে এসে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলাকে ঢেলে সাজাতে চাই। যাঁরা ইচ্ছে থাকার পরও সভায় উপস্থিত হননি, আপনাদের জন্য সুখবর হচ্ছে, আসুন সবাই মিলেমিশে চকরিয়া উপজেলাকে পরিকল্পিত উন্নয়নে বদলে দিতে কাজ করি। কারণ প্রতিহিংসা ও প্রতিশোধ একজন মানুষের শান্তি ও সমৃৃদ্ধিকে বিপন্ন করে।

পাঠকের মতামত: