ঢাকা,মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

কক্সবাজার জেলায় ১১ হাজার ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা নিয়োগ

# ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে ১২ জন
# সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ৯ জন
# ইলেকটোরাল ইনকোয়ারি ৪ জন

কক্সবাজার প্রতিনিধি ::

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু সুশৃংখল ভাবে গ্রহণের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। কক্সবাজার জেলার চারটি সংসদীয় আসনে নির্বাচনের জন্য ইতিমধ্যে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ শাহীন ইমরান সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন বলে জানিয়েছেন। ইতিমধ্যে ভোট গ্রহণের জন্য ১১ হাজার ৯৭ জন ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছেন। এখন চলছে তাদের প্রশিক্ষণ।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা কার্যালয় সূত্রে জানা যায় জেলায় ৪ সংসদীয় আসনে ১১০৯৭ জন ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। এরমধ্যে প্রিসাইডিং অফিসার ৫৫৬ জন, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ৩৫০৫ জন এবং পুলিং কর্মকর্তা ৭০১০ জন। চারটি সংসদীয় আসনের জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

জেলায় চার আসনে ৫৫৬ টি ভোটকেন্দ্রে বুথের সংখ্যা রয়েছে ৩৫০৫ টি। এছাড়াও রয়েছেন ৯ জন সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা। ভোট কেন্দ্রের সমস্যা সমাধানে চারটি সংসদীয় আসনে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে প্রতি আসনে ১ জন করে ইলেক্টোরাল ইনকোয়ারি কমিটির সদস্য।

তাৎক্ষণিক সমস্যা সমাধানে উক্ত চারজন দ্রুত সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসবে বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক। জেলার ৪ আসনে মোট প্রার্থী রয়েছেন ২৬ জন।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায় ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সুষ্ঠু এবং গ্রহণযোগ্য ভোট উৎসবের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

ইতোমধ্যে তিনটি সংসদীয় আসনের নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে এবং রামু উপজেলার নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কালকের (আজ) মধ্যে সম্পন্ন করা হবে। ইতিপূর্বের বিভিন্ন নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত অভিজ্ঞদের নিয়ে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য নিয়োগ প্রাপ্তদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করা হয়েছে।

আসন ভিত্তিক দায়িত্বপ্রাপ্ত ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা এবং ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ও বুথের সংখ্যা হল:

কক্সবাজার ১ আসন (চকরিয়া পেকুয়ায়) প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা ৭জন। ১৫৮ টি কেন্দ্রে বুথের সংখ্যা ১০৪৩ টি। এই আসনে প্রিসাইডিং অফিসার হলো ১৫৮ জন, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ১০৪১ জন, পুলিং অফিসার এর সংখ্যা ২০৮২ জন। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৮৬,২৫২ জন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন তিনজন। সহকারী রিটার্নিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবেন দুইজন।

কক্সবাজার ২ ( মহেশখালী কুতুবদিয়ায়) প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা রয়েছে ৬ জন। এ আসনে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১১৮টি এবং বুথের সংখ্যা ৭৪০ টি। প্রিসাইডিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১১৮ জন, সহকারি প্রিসাইডিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ৭৪০ জন এবং পুলিং অফিসার রয়েছে ১৪৮০ জন। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৪৮ হাজার ১২৭ জন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দুইজন। সহকারি রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দুইজন।

কক্সবাজার আসন ৩ ( সদর রামু এবং ঈদগাঁও)। এ আসনের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা ৬ জন। ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১৭৬ টি এবং বুথের সংখ্যা ১০৩০ টি। এ আসলে মোট ভোটার রয়েছে ৪ লাখ ৮৯ হাজার ৬১০ জন। প্রিসাইডিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১৭৬ জন, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১০৩০ জন এবং পুলিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ২০৬০ জন। আচরণ বিধিমালা প্রতিপালণে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ৫ জন। এ আসনে সহকারি রিটানিং কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ৩ জন।
কক্সবাজার ৪ (উখিয়া টেকনাফের) মোট প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রয়েছেন সাতজন। এ আসনে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১০৪ টি এবং ভূত রয়েছে ৬৯৪ টি। ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ২৬ হাজার ৯৭১ জন। এ আসনে প্রিসাইডিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১০৪ জন,সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ৬৯৪ জন এবং পুলিং অফিসার রয়েছে ১৩৮৮ জন। এ আসনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবেন দুইজন এবং সহকারি রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দুইজন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান-নির্বাচনে নিয়োজিত দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নিয়ে আমরা প্রশিক্ষণ শুরু করেছি। ইতিমধ্যে চকরিয়া, পেকুয়া, মহেশখালী, কুতুবদিয়া এবং কক্সবাজার সদরে দায়িত্বপ্রাপ্তদের প্রশিক্ষণ সমাপ্ত হয়েছে।

অবশিষ্ট উপজেলায় আগামী ৩ জানুয়ারির মধ্যে নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্তদের প্রশিক্ষণ সমাপ্ত করা হবে। একটি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য আমরা শতভাগ প্রস্তুত রয়েছি। আশা করি ৭ জানুয়ারি একটি উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

পাঠকের মতামত: