ঢাকা,মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

মহেশখালীতে তুচ্ছ ঘটনায় নিহত ১, নগদ টাকাসহ ৩০ লক্ষ টাকার মালামাল লুট

বার্তা পরিবেশক ::  মহেশখালীতে ক্রিকেট খেলা দেখাকে কেন্দ্র করে মোঃ সোহেল নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। পরে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাংবাদিক শফিউল্লাহ শফির বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়ে নগদ টাকা, স্বর্ণলংকারসহ ৩০ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) সকালে এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, গত ১৫ নভেম্বর বুধবার রাতে মহেশখালী উপজেলার বড় মহেশখালীর আমতলী এলাকার মতিউর রহমানের দোকানে স্থানীয় কয়েকজন যুবক ক্রিকেট খেলা দেখতে বসে। এসময় দোকানদার মতিউর রহমানের কাছ থেকে খাওয়ার পানি চায় স্থানীয় মোবারক ও সাংবাদিক শফির ভাই আহসান। এসময় দোকানদার কটু কথা বলে এবং পানির বোতলে থু-থু ছিটিয়ে দেয়। এই নিয়ে তিন জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে যে যার মতো চলে যায়।
একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মোবারক বাজারে যাওয়ার সময় তাকে দোকানদার মতিউর রহমান ও তার আত্মীয় স্বজন ধরে বেধড়ক মারধর করে। পরে এনিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে স্থানীয় ওসমান গনির পুত্র মোঃ সোহেল(২২) নামে এক যুবক গুরুতর আহত হন। পরে তাকে আহত অবস্থায় মহেশখালী উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
পাশাপাশি আহত হয় স্থানীয় মোঃ হোসন, এরশাদ উল্লাহ, মতিউর রহমান, আহসান, সোনা মিয়া, মোবারক হোসনসহ অন্তত ১০ জন। এদিকে এই ঘটনায় দোকানদার মতিউর রহমানের নেতৃত্বে তার ৩০/৩৫ জন লোক সশস্ত্র হামলা চালিয়ে সাংবাদিক শফির বসতবাড়িতে ব্যাপক ভাংচুর, লুটপাট চালায়। পাশাপাশি নগদ টাকা, স্বর্ণলংকারসহ প্রায় ৩০ লক্ষ টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আবদুর রহমান জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটেছে। মুলতঃ ঘটনার ইন্ধনদাতা মতিউর রহমান। সে যদি পানি নিয়ে এই ঘটনা সৃষ্টি না করতো তাহলে এতো বড় ঘটনা ঘটতো না।
মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুকান্ত চক্রবর্তী জানান, ক্রিকেট খেলা দেখা ও খাওয়ার পানি নিয়ে সৃষ্ট ঘটনায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে সোহেল নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। পরে এই ঘটনায় সাংবাদিক শফির বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনার খবর পাওয়া গেছে। সেখানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

পাঠকের মতামত: