ঢাকা,মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

রামুর খুনিয়াপালংয়ে ২০ দিন ধরে নিখোঁজ মা-মেয়ে

সোয়েব সাঈদ, রামু ::  কক্সবাজারের রামুতে ৮ বছরের কন্যা শিশুসহ এক গৃহবধু ২০ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। গৃহবধূর স্বামীর অভিযোগ এলাকার একটি অপরাধিচক্র তার মেয়ে ও স্ত্রীকে অপহরণ করেছে। ২০ দিন পরও তাদের হদিস না পেয়ে চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন গৃহবধুর স্বামী মো. ইউনুচ।

রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের টেংগাডেপা নামক এলাকার মো. শফির ছেলে গাড়ি চালক মো. ইউনুচ জানান- গত ২৩ অক্টোবর তার মেয়ে আরজিনা আকতার জ্যোতি (৮) ও স্ত্রী তাছলিমা আকতার (২৭) কে একই এলাকার ছলিম উল্লাহর ছেলে মাদক, চোরাচালানসহ বিভিন্ন অপরাধে ডজন মামলার আসামী আবুল হোসেনের নেতৃত্বে একটি অপরাধিচক্র অপহরণ করে নিয়ে যান।

এ ঘটনার পর ২৫ অক্টোবর মো. ইউনুচ রামু থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ২৩ নভেম্বর আবুল হোসেনের প্ররোচনায় তার স্ত্রী তাছলিমা আকতার দেড় ভরি স্বর্ণের অলংকার ও ১ লাখ ২০ হাজার নগদ টাকাসহ পালিয়ে গেছে। তবে অভিযোগকারি মো. ইউনুচের ধারনা- তার স্ত্রী-কন্যাকে কৌশলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণ করেছেন আবুল হোসেন। অভিযুক্ত আবুল হোসেন এলাকার চিহ্নিত মাদক কারবারী। তার বিরুদ্ধে অসংখ্য মামলাও রয়েছে। এমনকি এ ঘটনার পর থেকে আবুল হোসেন ও তার সহযোগিরা এ নিয়ে থানায় মামলা না করার জন্য হুমকী-ধমকি দিয়ে আসছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অভিযুক্ত আবুল হোসেন জানান- তার এমনিতেই ২ জন স্ত্রী রয়েছে। তাই আর কোন বিয়ের প্রশ্নই আসেনা। এমনকি তিনি ইউনুচের স্ত্রী-কন্যাকে অপহরণের বিষয়টিও অস্বীকার করেন।

রামু থানার সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সন্তোষ কান্তি মল্লিক জানান- এ ঘটনায় মো. ইউনুচ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এ নিয়ে তদন্ত চলছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরও সহায়তা চাওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সফর থাকায় কয়েকদিন ব্যস্ত ছিলেন। এখন এ নিয়ে ব্যবস্থা নিতে তিনি আবারও ওই এলাকায় যাবেন।

এটি অপহরণ নাকি পরকীয়া তা নিয়ে পুরো এলাকাবাসীও দ্বিধাদ্বন্ধে রয়েছে। সবার দাবি, এ ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত এবং নিখোঁজ মা-মেয়েকে উদ্ধার করা হোক।

পাঠকের মতামত: