ঢাকা,শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪

 কুতুবদিয়া তেলিয়াকাটা সড়ক-ব্রীজের বেহাল দশা

বৃষ্টি নামলেই কুতুবদিয়ায় হাজারো মানুষের ভোগান্তি

কুতুবদিয়া প্রতিনিধি ::  কুতুবদিয়া উত্তর ধুরুং তেলিয়াকাটা সড়কটি বেহাল দশায় পড়ে আছে দীর্ঘদিন ধরে। সংস্কারের অভাবে সেখানের ব্রীজটিও এখন নাজুক। ধ্বসে পড়তে পারে যেকোন সময়।

বর্ষা মওসুমে সামান্য বৃষ্টি হলেই চলাচল বন্ধ হয়ে যায় অন্তত ৫ গ্রামের ৫ হাজার মানুষের। বিদ্যালয়ে যেতে পারেনা কোমলমতি শিশুরা। নানা ভোগান্তি নিয়ে বিদ্যালয়ে গেলেও বিকালে ফেরে তারা কাদামাটির পোশাকে।

সড়কটি ইউনিয়নের দক্ষিণ জোনে (৯ নং ওয়ার্ড) হওয়ায় বিগত সময় কিংবা বর্তমানের চেয়ারম্যানদের গরজ নেই সংস্কারে। এমন অভিযোগ করেন এলাকাবাসি।

তেলিয়াকাটা গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ি মো: ছায়েদ করিম বলেন, তেলিয়াকাটা কাচা সড়কটি ইনসলিন নেই দীর্ঘদিন ধরে। সামান্য বৃষ্টি হলেই সড়কটি কাদায় ভরে যায়। স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ছাড়াও পাশর্^বর্তী ধুরুংবাজারে যাতায়াত করে প্রতিদিন অন্তত ৫ হাজার নারী-পুরুষ ও শিশু।

তিনি আরো বলেন বার বার নির্বাচিত চেয়ারম্যানগনের বিমাতাসুলভ আচরণে সড়কটির সংস্কার হচ্ছেনা।

একই কথা জানান লবন চাষি নুর মোহাম্মদ। তিনি বলেন মাত্র ১৮০০ ফুট সড়কে ইটসলিন দেয়া হলে তারা চলাচল করার সুযোগ পাবেন।

বৃষ্টিতে কাদায় সয়লাব হওয়ায় নিজ উদ্যোগে গ্রামবাসি সড়কে ইট বিছিয়ে ছোট ছোট শিশুদের বিদ্যালয়ের যাতায়াতের সুযোগের চেষ্টা করছেন। সড়কে ব্রিজটিও অত্যন্ত নাজুক হয়ে রয়েছে অন্তত এক দশক যাবত। ভোগান্তি কমাতে সড়কটির দ্রুত সংস্কার চান তিনি।

উত্তর ধুরুং ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম সিকদার বলেন, তেলিয়াকাটা সড়কটি কার্পেটিং এর জন্য প্রস্তাব করা হে য়ছে প্রায় দেড় কোটি টাকার। অজ্ঞাত কারণে সেটি বিলম্ব হচ্ছে। তবে জরুরী সংস্কার করার প্রয়োজন হলে তিনি দেখবেন বলেও জানান।

পাঠকের মতামত: