ঢাকা,সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩

“ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ সরকারকে জনগণ আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না” -কক্সবাজার জামায়াত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :: গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা, জনগণের ন্যায্য অধিকার আদায়, আমিরে জামায়াত ডাক্তার শফিকুর রহমান ও সকল রাজনৈতিক বন্দীর মুক্তি সহ ১০ দফা দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত যুগপৎ আন্দোলন কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী কক্সবাজার জেলার উদ্যোগে ২৪ ডিসেম্বর এক বিশাল গণ মিছিল শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কালুর দোকান স্টেশন চত্বরে সমাবেশে মিলিত হয়।

জেলা সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট ফরিদ উদ্দিন ফারুকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মিছিলোত্তর সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ সরকারকে জনগণ আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না। আওয়ামী লীগের দুর্নীতি, দুঃশাসন, লুটপাট, গণতন্ত্র হরণ ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি কারণে দেশবাসী দিশেহারা হয়ে পড়েছে। আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরাতে দেশবাসীসহ সকল বিরোধী দল আজ ঐক্যবদ্ধ।

দেশবাসী যখন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে শামিল হচ্ছে তখনই সরকার ভীত হয়ে আমিরে জামায়াত ডাক্তার শফিকুর রহমানকে গ্রেফতার করে জঙ্গি সম্পৃক্ততার বায়বীয় অভিযোগ এনে জনগণের দৃষ্টিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমরা স্পষ্ট ভাবে বলতে চায় জামায়াতে ইসলামী এবং তার সকল স্তরের নেতা কর্মী কোন ধরনের চরমপন্থা সাথে সম্পৃক্ত থাকার প্রশ্নই ওঠে না।

স্বাধীনতার পর থেকে জামায়াতে ইসলামী এদেশে গণতান্ত্রিক ও নিয়মতান্ত্রিক পন্থায় রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। জামায়াতের এই সকল কর্মকান্ডে দেশবাসী জামায়াতের প্রতি অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি আস্থাশীল হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকার এটা বুঝতে পেরেই রাজনৈতিক হীন স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য আমিরে জামায়াতের প্রতি ভিত্তিহীন-উদ্দেশ্য প্রণোদিত মিথ্যাচার চালাচ্ছে। ইতিমধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে সরকারের আনীত মিথ্যাচারের কোন প্রমাণ মিলেনি মর্মে তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হয়েছে। আমরা অবিলম্বে আমিরে জামায়াত এবং সকল রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দাবি জানাচ্ছি এবং ১০ দফা দাবি আদায়ে ঐক্যবদ্ধভাবে শান্তিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিক আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য জেলাবাসির প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা জামায়াতের সহকারি সেক্রেটারি জাহিদুল ইসলাম, কক্সবাজার শহর আমির আব্দুল্লাহ আল ফারুক, সেক্রেটারি রিয়াজ মোঃ শাকিল প্রমুখ। এতে উপস্থিত ছিলেন জেলা সাংগঠনিক সেক্রেটারি শামসুল আলম বাহাদুর, জেলা কর্ম পরিষদ সদস্য জাকির হোসাইন, রামু উপজেলা আমির ফজলুল্লাহ মোহাম্মদ হাসান, ঈদগাঁও উপজেলা আমির মাওলানা সলিমুল্লাহ জিহাদী, জেলা শ্রমিক কল্যাণ সেক্রেটারি মোঃ মহসিন, সদর সেক্রেটারি মাওলানা মোস্তাক আহমদ, রামু উপজেলা সেক্রেটারি আনম হারুন ও ছাত্র নেতৃবৃন্দ।

পাঠকের মতামত: