ঢাকা,মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

সাবেক সেনপ্রধান জেনারেল আজিজ ও তার পরিবারকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নতুন নিষেধাজ্ঞা

ইমা এলিস/ বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক: দায়িত্ব পালনকালে দুর্নীতিতে জড়িত থাকার কারণে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাবেক প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও তার পরিবারকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নতুন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তর। স্থানীয় সময় সোমবার (২০ মে) পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার এ সম্পর্কিত একটি বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করেছেন ওয়েবসাইটে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাবেক প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের কর্মকাণ্ড বাংলাদেশের সরকারি প্রতিষ্ঠানে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার প্রতি জনগণের বিশ্বাসকে ক্ষুণ্ন করতে ভূমিকা রেখেছেন। এ খবর জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস।

আজিজ আহমেদ তার ভাইকে বাংলাদেশে অপরাধমূলক কার্যকলাপের জন্য জবাবদিহিতা এড়াতে সাহায্য করার সময় জনসাধারণের প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করে উল্লেখযোগ্য দুর্নীতিতে জড়িত ছিলেন। সামরিক চুক্তির অনুপযুক্ত প্রদান নিশ্চিত করতে আজিজ তার ভাইয়ের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছিলেন এবং তার ব্যক্তিগত সুবিধার জন্য সরকারী নিয়োগের বিনিময়ে ঘুষ গ্রহণ করেছিলেন।

এই পদবী বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান এবং আইনের শাসনকে শক্তিশালী করার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতিকে পুনর্ব্যক্ত করেন।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকারি পরিষেবাগুলিকে আরও স্বচ্ছ এবং সাশ্রয়ী করতে, ব্যবসায়িক ও নিয়ন্ত্রক পরিবেশ উন্নত করতে এবং অর্থ পাচার এবং অন্যান্য আর্থিক অপরাধের তদন্ত ও বিচারে সক্ষমতা তৈরিতে সহায়তার মাধ্যমে বাংলাদেশে দুর্নীতিবিরোধী প্রচেষ্টাকে সমর্থন করে।

এই সর্বজনীন পদবীগুলি বার্ষিক ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট, ফরেন অপারেশনস এবং রিলেটেড প্রোগ্রাম অ্যাপ্রোপ্রিয়েশন অ্যাক্টের ধারা ৭০৩১ (সি) এর অধীনে তৈরি করা হয়েছে। এই পদক্ষেপটি আজিজ এবং তার পরিবারের সদস্যদের সাধারণত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের জন্য অযোগ্য করে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

 

পাঠকের মতামত: