ঢাকা,সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩

চট্রগ্রাম কাজীর দেউড়িতে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ, আটক ২০

নিউজ ডেস্ক ::  চট্টগ্রাম: বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল থেকে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এনিয়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছে দলটির নেতাকর্মীরা।

এসময় কাজীর দেউড়ি এলাকায় ট্রাফিক পুলিশের একটি মোটরসাইকেল আগুন ধরিয়ে দেয় বিএনপির নেতাকর্মীরা। সেইসঙ্গে বেশকয়েকটি দোকানও ভাংচুর করা হয়।

সোমবার (১৬ জানুয়ারি) বিকেলে সাড়ে ৩টার দিকে কাজীর দেউড়ি মোড় থেকে বিএনপির মিছিলটি দলীয় কার্যালয়ে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।

পরবর্তীতে পুলিশ বাড়তি ফোর্স মোতায়েন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।
সংঘর্ষে কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান, টিআই বিপ্লব সরকারসহ একাধিক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ সমাবেশ চলছিল নসিমন ভবন দলীয় কার্যালয়ের সামনে। এ সমাবেশে যোগ দিতে বিএনপির নেতাকর্মীরা একটি মিছিল নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে যাচ্ছিলেন। মিছিলটি কাজীর দেউড়ি মোড়ে আসতেই সেখানে থাকা পুলিশের ওপর হামলা করে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এসময় ফুটপাতে থাকা ট্রাফিক পুলিশের একটি মোটর বাইকে আগুন দেয়।

হঠাৎ পুলিশের ওপর বিএনপি নেতাকর্মীদের হামলায় অন্তত পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। পরবর্তীতে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। আধঘণ্টার জন্য পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। বিকেল চারটার দিকে পুলিশ কাজীর দেউড়ির আশপাশে অভিযান শুরু করে বিএনপির ২০ জন নেতাকর্মীকে আটক করে। এছাড়া জেলা পুলিশের একটি গাড়ি রেডিসন ব্লুর সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় বিএনপির নেতাকর্মীরা হামলা করে। এতে এক পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়। এদিকে, পুলিশ সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে টিআরশেল ও ফাঁকা গুলি ছোড়ে।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) দক্ষিণ বিভাগের উপ পুলিশ কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, হঠাৎ করে বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের ওপর হামলা চালানো হয়। আমাদের অনেক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। ২০ জনের মতো আটক করা হয়েছে। আমাদের অভিযান চলমান রয়েছে ৷ পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

 

পাঠকের মতামত: