ঢাকা,মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০

চকরিয়ায় কিশোরীকে ‘ধর্ষণ’, যুবক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া :: কক্সবাজারের চকরিয়ায় দুই যুবকের বিরুদ্ধে ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরীকে গণধর্ষণে অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত যুবকদ্বয়ের নাম শেফায়েত হোসেন (২২) ও মো. মহিউদ্দিন (২১)। তারা দু’জনেই টমটম চালক। ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষিতা কিশোরীর বাবা বাদি হয়ে আজ বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) চকরিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, গত রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী ভাবীর সাথে তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে যায়। ওইদিন বিকেলে অভিযুক্ত টমটম চালক শেফায়েত তার বন্ধু মহিউদ্দিনসহ কিশোরীকে ফুসলিয়ে কক্সবাজার বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে হোটেলে নিয়ে যায়। পরে সেখানে তিন দিন অবস্থান করে অভিযুক্তরা ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে ওই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে তারা দুইবন্ধু মিলে বুধবার রাত ১০টার দিকে ওই কিশোরীকে তার বাড়িতে পৌঁছে দিতে যায়। বাড়ির কাছাকাছি পৌছার পর রাস্তার পাশে স্থানীয়দের দেখে ওই কিশোরী চিৎকার করে কান্না শুরু করে দেয়। এ সময় অভিযুক্ত দুই যুবক পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা শেফায়েত হোসেনকে ধরলেও মহিউদ্দিন পালিয়ে যায়।

চকরিয়া থানার পুলিশ পরির্দশক (তদন্ত) মিজানুর রহমান চকরিয়া নিউজকে বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদি হয়ে দুইজনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেছেন। একজন আটক রয়েছেন। অপর আসামিকে আটক করতে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে। ভিকটিমকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

 

পাঠকের মতামত: