ঢাকা,রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

চকরিয়ায় তুচ্ছঘটনা জেরে ছুরিকাঘাতে টমটম চালককে হত্যা চেষ্ঠা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া ::  চকরিয়ায় তুচ্ছ ঘটনার জেরে প্রতিপক্ষের লোকজন গ্যারেজে ঢুকে মোহাম্মদ তারেক (২২) নামের এক টমটম চালককে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। সোমবার (১৪সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের বহদ্দার কাটা মাদ্রাসার পূর্বপাশে একটি টমটম গ্যারেজে এ ঘটনা ঘটে। আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহতবস্থায় টমটম চালককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেছে। আহত তারেক বিএমচর ইউনিয়নের উত্তর বহদ্দার কাটা এলাকার বদি আলমের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী লোকজন জানান, উপজেলার বিএমচর ইউনিনের বহদ্দারকাটা মাদ্রাসার পূর্ব পাশে টমটমের গ্যারেজে টমটম চালক মো.তারেক গতকাল সকালে তার টমটম (ইজিবাইক) গাড়িটি গ্যারেজে মেরামত করতে যান। ওইসময় একই এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে জসিম ও জাহেদের সাথে টমটম চালক তারেকের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে তর্কাতর্কিতে ঘটে।

এক পর্যায়ে জসিমের ভগ্নিপতি মোকতার আহমদ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে জসিম তার ভাই জাহেদ ও মনু মিলে অতর্কিত ভাবে টমটম চালক তারেকের ওপর হামলা চালিয়ে বেড়ধক মারধর শুরু করে। ঘটনার সময় হামলাকারীরা শরীরের বিভিন্ন জায়গায় এলোপাতাড়ি চুরিকাঘাত করে তারেককে।

ঘটনা দেখে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে আহত টমটম চালক তারেককে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা নিয়ে ভর্তি করে।

আহত টমটম চালক তারেকে বাবা বদি আলম জানান, তাঁর ছেলে তারেক নিজের টমটম গাড়িটি নিয়ে সকালে গ্যারেজে মেরামত করতে যান। ওই সময় প্রতিবেশি জয়নাল আবেদীনের ছেলে জসিম, জাহেদ ও তাদের ভগ্নিপতি মোকতার আহমদ একটি তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে আমার ছেলে তারেককে ছুরিকাঘাতে প্রাণে হত্যার চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে প্রাণে রক্ষা করেন। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বিএমচর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জিয়াদুল ইসলাম সেলিম। তিনি বলেন, এ ঘটনাটি সম্পূর্ণ অনাকাঙ্ক্ষিত একটি ঘটনা। তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে মূলত এ ঘটনাটি করেছে।#

 

পাঠকের মতামত: