ঢাকা,রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

অভিভাবক-শিক্ষকরা সচেতন ও গতিবিধি মনিটরিং করলে কোন শিক্ষার্থী বিপথগামী হবেনা-এএসপি মতিউল

এম.জাহেদ চৌধুরী, চকরিয়া  ::   চকরিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মতিউল ইসলাম বলেন, অভিভাবকরা সচেতন ও শিক্ষকরা পাঠদানের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের গতিবিধি মনিটরিং করলে কোন শিক্ষার্থী বিপথগামী হবেনা। বিদ্যালয়ে ক্লাস শুরুর আগে অবশ্যই এসেম্বলী করতে হবে। এতে প্রতিটি শিক্ষার্থী দেশ প্রেমে ও শৃংখলিত জীবনযাপনে উদ্বুদ্ধ হবে। অভিভাবক শিক্ষক একাট্টা হলে কোন শিক্ষা প্রতিষ্টান কেন্দ্রীক ইভটিজিং ও বাল্যবিয়ে হবেনা। কারো সন্তান জঙ্গিবাদ ও অপরাপর অপরাধে জড়াবেনা। রবিবার দুপুরে চকরিয়া শাহউমরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজিত সচেতনতা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
শাহউমরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাইফুদ্দিন খালেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে “দেশপ্রেম, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা নিজনিজ ধর্ম বিশ্বাসে অংগ এবং শৃংখলাই জীবন” প্রতিপাদ্যকে নিয়ে গ্যাং কালচার, ছেলেধরা গুজব, মাদক, জঙ্গিবাদ, কিশোর অপরাধ, বাল্যবিয়েসহ নানা অপরাধের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আওয়াজ “আমরাও হবো ফুলের মতো সবার জীবনে সুরভী ছাড়াবো” শীর্ষক সচেতনতা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এম জাহেদ চৌধুরী। অনুষ্টানে আরো বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য ফয়সল চৌধুরী, সাংবাদিক কেএম নাসির উদ্দিন, বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সোয়াইবুল ইসলাম, সিনিয়র শিক্ষক মোহাম্মদ নুরুচ্ছফা, রফিকুল ইসলাম, শওকত ওসমান, সিরাজুল ইসলাম, রতন সুশীল প্রমুখ।

পাঠকের মতামত: