Home » রামু » সরকারের অভূতপূর্ব উন্নয়নের সুফল পাচ্ছে দেশবাসী  -ভারুয়াখালীতে এমপি কমল

সরকারের অভূতপূর্ব উন্নয়নের সুফল পাচ্ছে দেশবাসী  -ভারুয়াখালীতে এমপি কমল

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

সোয়েব সাঈদ, রামু ::    কক্সবাজারের ভারুয়াখালী ও খুরুশকুল ইউনিয়নবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্নের সংযোগ সেতু নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল। ৩৯২ মিটার দীর্ঘ এ সেতুটি নির্মাণে ব্যয় হবে ৩০ কোটি টাকা। এটি হবে জেলার বৃহত্তম সেতু। রবিবার (৪ নভেম্বর) বিকালে এ সেতুর নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং ভারুয়াখালী দারুল উলুম মাদ্রাসার একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত বিশাল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল।

সমাবেশে এমপি কমল বলেছেন, দেশবাসী বর্তমান সরকারের অভূতপূর্ব উন্নয়নের সুফল ভোগ করছে। ব্যাপক উন্নয়নের পাশাপাশি ইসলামী দ্বীনি শিক্ষার প্রসার, ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা, দরিদ্র মানুষের ভাগ্যোন্নয়ন করায় এদেশের সর্বস্তুরের মানুষ আগামী নির্বাচনে আবারো নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোট দিয়ে আওয়ামীলীগকে জয়ী করবে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে বিগত ১০ বছর যে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে তা স্বাধীনতা পরবর্তী সব সরকার মিলেও করতে পারেনি। তাই উন্নয়নের মাধ্যমে দেশকে আরো এগিয়ে নিতে হলে নৌকার বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার মানুষকে লোডশেড়িং এর যন্ত্রনা দেয়নি। উল্টো দেশের আনাচে-কানাচে বিদ্যুৎ লাইন স্থাপন করে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছে। গ্রামের সড়কগুলো এখন পাকা করে সড়কগুলো সৌর বিদ্যুৎ এর আলোয় আলোকিত করা হয়েছে। দরিদ্র মানুষের দূঃখ লাঘবে প্রতিটি এলাকায় সরকারি উদ্যোগে বিক্রি করা হচ্ছে ১০ টাকা দামের চাল। ভিক্ষুক এবং বসতিহারা লোকজনকে দেয়া হচ্ছে আবাসস্থল। দেশের মানুষের প্রতিটি প্রয়োজনে সরকার এভাবে ভুমিকা পালন করে যাচ্ছে। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট চান তিনি।

সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কক্সবাজার এর নির্বাহী প্রকৌশলী মীর্জা মো. ইফতেখাঁর আলী। ভারুয়াখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ- অতিথির বক্তব্য রাখেন, রামু উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রিয়াজ উল আলম, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মুসরাত জাহান মুন্নী, রামু উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন, কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আবু তালেন, সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য মাহমুদুল করিম মাদু, কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য শামসুল আলম চেয়ারম্যান খুনিয়াপালং ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মাবুদ, রশিদনগর ইউপি চেয়ারম্যান এমডি শাহ আলম, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো, কক্সবাজার বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এড. একরামুল হুদা, বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগ কক্সবাজার জেলা সভাপতি তৈয়ব উল্লাহ মাতব্বর, রামু উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নীতিশ বড়–য়া, যুবলীগ নেতা পলক বড়ুয়া আপ্পু, আবছার কামাল সিকদার, ব্যবসায়ি বিকে আজম, নজরুল ইসলাম মেম্বার, আবুল কাশেম মেম্বার, প্রবীন মুরব্বী মাস্টার রমজান আলী, ফরিদুল আলম ও আবদুল হক, রামুর কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন সোহেল সিকদার, সাংসদ কমলের ব্যক্তিগত সহকারি আবু বক্কর ছিদ্দিক, ভারুয়াখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর কাজী বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল আজিম, সদর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ পারভেজ আলম, সদর আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল হুদা মেহেদী, জেলা ছাত্রলীগ নেতা আমানুল ইসলাম, আইন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা ইয়াছির আরাফাত ভুঁইয়া প্রমূখ।

উল্লেখ্য দু’বছর আগে কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল ভারুয়াখালী বাজারের এক জনসভায় উপস্থিত হলে, স্থানীয় জনসাধারণ তাঁর কাছে একটি ব্রীজের দাবী জানান। এমপি কমল বক্তৃতায় ব্রীজ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন। জনসভায় এমপি কমল ঘোষনা দেন, ভারুয়াখালী নদীর উপর ভারুয়াখালী-খুরুশকুল সংযোগ ব্রীজ নির্মাণ করতে না পারলে আর নির্বাচনে দাঁড়াবেন না।

এলাকাবাসী জানিয়েছেন, কক্সবাজার শহরের অতি সন্নিকটের ভারুয়াখালী ইউনিয়নবাসিকে শহরে আসতে হলে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে দুই ঘন্টা সময় অতিবাহিত করে আসতে হয়। তারা স্বপ্ন দেখে ভারুয়াখালী নদীর উপর একটি ব্রীজের। খুরুশকুল হয়ে কম সময়ে কক্সবাজার শহরে যাবে ভারুয়াখালী ইউনিয়নের মানুষ। এ স্বপ্ন বাস্তবায়নে ভারুয়াখালী নদীর উপর একটি সেতু নির্মাণের দাবী জানিয়ে আসছিলেন দীর্ঘদিন ধরে। ধর্ণা দিয়েছেন বিভিন্ন নেতার কাছে। নেতারা পরিদর্শনে গিয়ে কথা দিয়েছিলো ব্রীজ নির্মাণ করা হবে। কিন্তু কেউ কথা রাখেনি। এমপি কমল কথা দিয়ে কথা রেখেছেন।

জানা গেছে, প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে দীর্ঘ ৩৯২ মিটার এ সেতুর নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, কক্সবাজার। আগামী এক মাসের মধ্যে সেতুর কাজ শুরু হবে এবং ১ বছরের মধ্যে নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হবে। কাংখিত সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা এলাকার মানুষ দলমত নির্বিশেষে এমপি কমলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন এবং তাঁর সফলতা কামনা করছেন।

সচেতন জনগনের মতে, ভারুয়াখালী-খুরুশকুল সংযোগ সেতু নির্মাণ হলে ভারুয়াখালীর মানুষ মাত্র ২০ মিনিটে কক্সবাজার শহরে যেমন পৌঁছতে পারবে, তেমনি এলাকার আর্থসামাজিক উন্নয়নে নবদিগন্তের সুচনা হবে। শিক্ষা ব্যবস্থা ও যোগাযোগ ক্ষেত্রে অনেক উন্নয়নের পাশাপাশি দীর্ঘদিনে দুর্ভোগ লাঘব হবে। সে সাথে এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্নের বাস্তবায়ন হবে। এমপি কমলের একান্ত প্রচেষ্টায় কক্সবাজার-রামু উপজেলার পিছিয়ে পড়া মানুষের আরো একটি স্বপ্ন আজ পুরণ হচ্ছে।

সাংসদ কমল বিকালে ভারুয়াখালী-খুরুশকুল সংযোগ সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। পরে তিনি ভারুয়াখালী দারুল উলুম মাদ্রাসার একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন করেন। এছাড়াও তিনি দুপুরে ভারুয়াখালী ইউনিয়নের প্রত্যন্ত জনপদে সর্বস্তুরের মানুষের সাথে কুশল বিনিময় ও গণসংযোগ করেন। বিকালে দলীয় নেতাকর্মী সহ সর্বস্তুরের বিপুল জনতা বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিল সহকার সমাবেশে যোগদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কক্সবাজারে মাদ্রাসা পরিদর্শনকালে আল্লামা শাহ আহমদ শফী: কওমি শিক্ষার গুরুত্ব অনুধাবন করেই সরকার কওমি সনদের স্বীকৃতি দিয়েছে

It's only fair to share...000নীতিশ বড়ুয়া, রামু ::   হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর, আল-হাইয়্যাতুল উলয়া লিল ...