Home » কক্সবাজার » জেলা সদর হাসপাতালে যুক্ত হলো সিসিইউ

জেলা সদর হাসপাতালে যুক্ত হলো সিসিইউ

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

কক্সবাজার প্রতিনিধি ::

অবশেষে জেলার রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা প্রতিষ্ঠান কক্সবাজার সদর হাসপাতালে যুক্ত হয়েছে করোনারী কেয়ার ইউনিট (সিসিইউ)। এটিকে জেলার স্বাস্থ্য সেবা খাতে ‘নতুন দিগন্তের সূচনা’ হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্ঠরা। হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীদের জীবন রক্ষায় তাৎক্ষনিকভাবে এই ইউনিটে নিবিড় পরিচর্যার মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হবে।

জেলা সদর হাসপাতালের বর্তমান মূল ভবনের চার তলায় ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিটের (আইসিইউ) পাশে স্থাপন করা হয়েছে সিসিইউ। ইতোমধ্যে ইউনিটে শয্যাসহ প্রয়োজনীয় সকল চিকিৎসা সামগ্রী এবং যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে। ইউনিটের মূল ফটকে লাগানো হয়েছে সাইনবোর্ড। পুরোপুরি প্রস্তুত হওয়ার পর এই ইউনিটটি চালু করা হয় সোমবার। সিসিইউতে এক কোটি টাকার বেশি যন্ত্রপাতি ও চিকিৎসা সামগ্রী সংযুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল সূত্র।

জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা: শাহীন আব্দুর রহমান বলেন, ‘এই হাসপাতালে হৃদরোগের উন্নত চিকিৎসার জন্য করোনারী কেয়ার ইউনিট চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে পূরণ হয়েছে কক্সবাজারবাসীর দীর্ঘদিনের লালিত একটি স্বপ্ন। প্রাথমিকভাবে চার শয্যা নিয়ে এ ইউনিট চালু করা হলেও পরবর্তীতে শয্যা আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। এখান্যে অত্যাধুনিক মনিটর, শয্যা যুক্ত করা হয়েছে। থাকছে সর্বাধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা। ইকোকার্ডিওগ্রাম এবং অন্যান্য পরীক্ষা থাকছে। তবে ক্যাথল্যাব না থাকায় এনজিওগ্রাম বা অপারেশন আপাতত হবে না। আমরা পর্যায়ক্রমে এ ইউনিটকে আরও সমৃদ্ধ করার জন্য প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবো।’

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা: পুচনু বলেন, ‘সিসিইউতে একজন জ্যেষ্ঠ হৃদরোগ পরামর্শক, একজন সহকারি অধ্যাপক ও একজন কনিষ্ঠ হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দায়িত্ব পালন করবেন। এ ছাড়া সিসিইউ পরিচালনার জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চারজন চিকিৎসা কর্মকর্তা ও চারজন সেবিকা (নার্স) সার্বক্ষনিক পালা করে দায়িত্ব পালন করবেন। প্রাথমিকভাবে এতে চার শয্যা থাকছে। অর্থাৎ একই সাথে চারজন রোগীকে সার্বক্ষনিক চিকিৎসা সেবা দেওয়া যাবে।’

হাসপাতাল সূত্র জানায়, কেউ হৃদরোগে আক্রান্ত হলে একটি তীব্র অবস্থা হয়। ওই অবস্থায় এসব রোগীকে সিসিইউতে রাখা হয়। হৃদরোগীকে পুরোপুরি নিরাময়ের জন্য স্ট্রোক-পরবর্তী পুনর্বাসন জরুরী। সিসিইউতে এই কাজটাই করা হয়।

ডাঃ পুঁচনু বলেন, ‘আমি এই হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়কের দায়িত্ব নেওয়ার পর দেশের প্রথম জেলা হাসপাতাল হিসেবে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে আইসিইউ চালু করা হয়। যা স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন। এবার সিসিইউ যুক্ত হলো। জেলা পর্যায়ের হাসপাতালে সিসিইউ চালুর ঘটনাও দেশে প্রথম। চিকিৎসা সেবা খাতে কক্সবাজারবাসীর জন্য এটি বিশাল প্রাপ্তি বলা যায়।’

সোমবার বিকেলে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল পরিদর্শন করেন কক্সবাজার পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও হাসপাতাল পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি মুজিবুর রহমান। এসময় তিনি সদ্য চালু হওয়া সিসিইউ ঘুরে দেখেন। এসময় তিনি বলেন, ‘২৫০ শয্যার সদর হাসপাতালে আইসিও’র পর এবার সিসিইউ স্থাপন করা হয়েছে শুধুমাত্র কক্সবাজারবাসীর উন্নত চিকিৎসার জন্য। এটি স্থাপনের ফলে শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রামের স্বাস্থ্যসেবা প্রত্যাশীদের এখন আর ঢাকা-চট্টগ্রাম গিয়ে চিকিৎসা নিতে হবেনা। কারন জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন মানুষের দোরগোড়ায় উন্নত চিকিৎসাসেবা পৌঁছে দিয়েছেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু রবিবার

It's only fair to share...32300চকরিয়া নিউজ ডেস্ক ::   প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু ...