Home » কক্সবাজার » চকরিয়া বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে অতিথি পাখির কলকাকলীতে মুগ্ধ দর্শনার্থীরা

চকরিয়া বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে অতিথি পাখির কলকাকলীতে মুগ্ধ দর্শনার্থীরা

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page
নিজস্ব সংবাদদাতা, চকরিয়া ::
অতিথি পাখির কিচিরমিচির কলকাকলীতে মুখর হয়ে উঠেছে কক্সবাজারের চকরিয়াস্থ ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক। শীত বাড়ার সাথে সাথে প্রতিবছরের মতো এবারও অতিথি পাখির আগমন ঘটেছে লেকের পাড়ে। লেকজুড়ে হাজার হাজার লালপদ্মের মাঝে পাখিদের উড়াঊড়ি দেখতে পার্কে ভীড় করছে দর্শীনার্থীরা। আর পাখিদের কিচিরিমিচির ডাকে প্রাণ জুড়িয়ে যাচ্ছে পার্কে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদের।

প্রতিবছর ডিসেম্বর মাসে হিমালয়ের উত্তরে শীত নামতে শুরু করার ফলে উত্তরের শীত প্রধান অঞ্চল সাইবেরিয়া, মঙ্গোলিয়া, চীন, নেপাল, জিনজিয়াং ও ভারত থেকে পাখিরা উষ্ণতার খোঁজে পাড়ি জমায় বিভিন্ন নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলে। এ সময় দক্ষিণ এশিয়ার নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল বাংলাদেশে হাজারো অতিথি পাখির আগমন ঘটে। বাংলাদেশের যেসব এলাকায় অতিথি পাখি আসে তার মধ্যে চকরিয়াস্থ বঙ্গবন্ধ শেখ মুজিব সাফারি পার্ক অন্যতম।
সাফারি পার্ক সূত্রে জানা যায়, যখন অতিরিক্ত শীত পড়া শুরু করে তখন অতিথি পাখির আগমন ঘটে। তারা সাধারণত বিশ্রাম নেয় লেকের পানিতে ভাসতে থাকা পদ্ম ফুলের উপর। এগুলো হাঁস জাতীয় পাখি।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উড়ে আসা অতিথি পাখির মধ্যে সরালি, পচার্ড, ফ্লাইফেচার, গার্গেনি, ছোট জিরিয়া, পান্তামুখী, পাতারি, মুরগ্যাধি, কোম্বডাক, পাতারি হাঁস, জলকুক্কুট, খয়রা ও কামপাখি রয়েছে।
এছাড়া মানিকজোড়, কলাই, ছোট নগ, জলপিপি, নাকতা, খঞ্জনা, চিতাটুপি, বামুনিয়া হাঁস, লাল গুড়গুটি, নর্দানপিনটেল ও কাস্তেচাড়া প্রভৃতি পাখির মাঝেমধ্যে দেখা মিলে এই লেকে। এরা ডানায় ভর করে হাজার হাজার মাইল পথ পাড়ি দিয়ে এ অঞ্চলে আসে।
পার্কে ঘুরতে আসা বেশ কয়েকজন দর্শনার্থী জানান, বন্ধুদের সাথে নিয়ে পার্কে ঘুরতে এসেছি। খুব ভাল লাগছে। বিশেষ করে লেকে অতিথি পাখিদের কিচিরমিচির শব্দটাই বেশি ভাল লাগছে। মনে হচ্ছে কোন বাঁশির সুর শুনছি।
সাফারি পার্কের ফরেস্টার মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, প্রতিবছরই এখানের লেকগুলোতে অতিথি পাখির আগমন ঘটে। বিশেষ করে যখন খুব বেশি শীত পড়ে তখন এই পাখির আগমন ঘটে। এক সময় এখানে বিভিন্ন ধরনের অতিথি পাখির আগমন ঘটত। কিন্তুু এখন আগের মতো তেমন পাখি আসে না। তিনি আরো বলেন, পার্কের লেকে আগমন করা অতিথি পাখিদের যাতে দর্শনার্থীরা বিরক্ত না করে সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

লামায় পাহাড় কাটার দায়ে শ্রমিককে ১ লাখ টাকা জরিমানা

It's only fair to share...000লামা প্রতিনিধি : বান্দরবানের লামা উপজেলায় অবৈধভাবে ইটভাটা স্থাপনের লক্ষে পাহাড় কেটে ...