Home » পেকুয়া » পেকুয়ায় কনের বাড়িতে পুলিশ, ৮ম শ্রেনীর ছাত্রীর বিয়ে পন্ড

পেকুয়ায় কনের বাড়িতে পুলিশ, ৮ম শ্রেনীর ছাত্রীর বিয়ে পন্ড

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

balপেকুয়া প্রতিনিধি ::

পেকুয়ায় অষ্টম শ্রেনীর মাদ্রাসা ছাত্রীর বাল্য বিয়ে পন্ড হয়েছে। কনে অষ্টম শ্রেনীর। বর একই মাদ্রাসার নবম শ্রেনীর ছাত্র। দু’শিক্ষার্থীর বাল্য বিয়ে হচ্ছিল পেকুয়ায়। এ সময় মাদ্রাসার অধ্যক্ষের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়েটি পন্ড হয়ে যায়। পেকুয়া আনোয়ারুল উলুম সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আমিনুর রশিদ ওই বিয়ে বন্ধ করতে পেকুয়ার ইউএনওকে অবগত করেন। এ সময় ইউএনও মাহবুবুল করিম বিয়ে বন্ধ করতে তৎপর হন। ইউএনও’র নির্দেশে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আ.ফ.ম হাসান ও আনোয়ারুল উলুম মাদ্রাসার শিক্ষক রিয়াজ উদ্দিনের নেতৃত্বে পেকুয়া থানা পুলিশ কনের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করেন। তবে প্রশাসানের উপস্থিতি টের পেয়ে বিয়ে বাড়ি থেকে কনের পরিবার পালিয়ে যায়। সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের সুতাবেপারী পাড়া কনের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করেন পুলিশ। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত (সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা) বিয়ের আনুষ্টানিকতা পন্ড হয়ে যায়। স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে পেকুয়া সুতাবেপারী পাড়া এলাকার মাহমদ হোসেনের মেয়ে শারমিন আকতার (১৫) এর সাথে একই ইউনিয়নের আন্নর আলী মাতবর পাড়া এলাকার সৌদি প্রবাসি জয়নাল আবেদীনের ছেলে আব্দুল্লাহ’র বিয়ের দিনক্ষন ছিল ওইদিন। তারা দু’জনই অপ্রাপ্ত বয়স্ক। শারমিন আকতার আনোয়ারুল উলুম মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী। বর আব্দুল্লাহও একই মাদ্রাসার নবম শ্রেনীর ছাত্র। দু’জনের বাল্য বিয়ে সম্পন্ন করতে কনে ও বরের পক্ষের মধ্যে সম্মতি ছিল। বয়স পরিপুর্ন দেখিয়ে উভয় পক্ষ ছেলে ও মেয়ের বয়স জন্ম সনদে বাড়ান। দু’জন যেহেতু শিক্ষার্থী নিকাহ রেজিষ্টার কাবিন সম্পাদনে প্রথমে বিভ্রত হন। পরে মোটা অংকে ম্যানেজ হয়ে দু’শিক্ষার্থীর কাবিন সম্পাদন করেন। গত রবিবার বর ও কনের বাড়িতে মেহেদী অনুষ্টান হয়েছে। আলোক সজ্জা ও বিয়ের যাবতীয় আনুষ্টানিকতা চলছিল উভয় পরিবারে। খবর পেয়ে পেকুয়ার কয়েকজন সংবাদকর্মী বিয়ের বিষয়টি মাদ্রাসা অধ্যক্ষসহ প্রশাসনিক পর্যায়ে অবহিত করেন। তাদের তৎপরতায় এ বিয়েটি পন্ড হয়েছে। আনোয়ারুল উলুম সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আমিনুর রশিদ সত্যতা স্বীকার করে জানায় বিষয়টি খুবই দুঃখ জনক। সাংবাদিক ভাইরা আমাকে বলার পর আমি ইউএনও স্যারকে অবহিত করি। প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানায় তারা ছুটে গিয়ে বিয়েটি বন্ধ করেছেন। ইউএনও মাহবুবুল করিম জানায় খবর পেয়ে বিয়েটি বন্ধ করা হয়েছে। কোন অবস্থায় বাল্য বিয়ে হতে দেয়া যাবেনা।

##############

পেকুয়ায় মামলা প্রত্যাহার দাবীতে শিক্ষক সমিতির প্রতিবাদ সভা

পেকুয়া প্রতিনিধি:

পেকুয়ায় মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের সহ-সম্পাদক ও ফৈজুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার দাবীতে প্রতিবাদ সভা করেছে শিক্ষক সমিতি। সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেল মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষক-কর্মচারী কল্যান পরিষদ পেকুয়া উপজেলা শাখা এ প্রতিবাদ সভা আহবান করে। এ সময় বক্তারা বলেছেন, শিক্ষকরা দেশ ও জাতি গঠনে মুখ্য সঞ্চালনক হিসেবে কাজ করে থাকে। অথচ এমন একজন শিক্ষককে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। মহান এ পেশাকে সমুন্নত রেখে আমরা ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য কাজ করে চলছি। জায়গা সংক্রান্ত বিরোধ হয়েছে। পৈত্রিক সম্পত্তির হিস্যা নিয়ে ওই শিক্ষকের সাথে এক পক্ষের মতদ্বন্দ দেখা দেয়। কিন্তু এ ঘটনাকে পুঁজি করে একটি মামলাবাজ চক্র আমাদের শিক্ষক সমিতির এক জৈষ্ট্য কর্মকর্তাকে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। যা অসৎ উদ্দেশ্য ও হয়রানিমুলক। আমরা আহবান করছি অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহার করার জন্য। এ ভাবে মানহানিকর মামলা ও হয়রানি বন্ধ না হলে আমরা ঐক্যবদ্ধ থেকে এর কঠোর জবাব দিতে বাধ্য থাকিব। পেকুয়া চৌমুহনীস্থ সংগঠনের কার্যালয়ে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্টিত হয়। মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ পরিষদ পেকুয়ার সভাপতি ও শিলখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক জাহেদ উল্লাহ’র সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী পেকুয়া জিএমসি’র সিনিয়র শিক্ষক নুর মুহাম্মদের সঞ্চালনায় এ সময় বক্তব্য দেন সংগঠনের উপদেষ্টা ও পেকুয়া জিএমসি’র প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিন, সহ-সভাপতি ও মগনামা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবদু সাত্তার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা ও মগনামা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবু বক্কর, শিলখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্দুল বারেক, এয়ার আলী খান উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ফরিদুল মোস্তফা, ফৈজুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহাব উদ্দিন, পেকুয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আজিজুর রহমান, স্বাস্থ্য ও ক্রীড়া সম্পাদক জিএমসি’র শিক্ষক মো: জাহাঙ্গীর আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক বারবাকিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো: জিয়াবুল করিম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হোসনে আরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক নাজেম উদ্দিন, সহ-সম্পাদক ফৈজুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক জসিম উদ্দিন প্রমুখ। সভায় টইটং উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক জাকের আহমদের রোগ মুক্তি কামনায় মহান আল্লাহ’র দরবারে দোয়া প্রার্থনা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

x

Check Also

151009ershad_5

সুচির বক্তব্য অগ্রহণযোগ্য -উখিয়ার বালুখালীতে ত্রাণ বিতরণে-এরশাদ

It's only fair to share...000ফারুক আহমদ, উখিয়া ॥ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রেসিডেন্ট হুসাইন ...