Home » কক্সবাজার » রামুর আকাশে আজ উড়বে ফানুস, কাল বাকঁখালী নদীতে ভাসবে কল্প জাহাজ

রামুর আকাশে আজ উড়বে ফানুস, কাল বাকঁখালী নদীতে ভাসবে কল্প জাহাজ

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

fanusনীতিশ বড়ুয়া, রামু ::::

বৌদ্ধদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে কক্সবাজারের রামুর আকাশে উড়বে রঙ্গিন ফানুস। বাঁকখালী নদীর দু’পাড়ে বসবে হাজার হাজার নর-নারীর সম্মিলন। এ উপলক্ষে আজ রবিবার ১৬ অক্টোবর ও কাল সোমবার ১৭ অক্টোবর দুইদিন ব্যাপি অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেছে রামু কেন্দ্রীয় প্রবারণা পূর্ণিমা ও জাহাজ ভাসা উৎসব উদযাপন পরিষদ।

রামু কেন্দ্রীয় প্রবারণা পূর্ণিমা ও জাহাজ ভাসা উৎসব উদযাপন পরিষদের সভাপতি পলক বড়–য়া আপ্পু জানান, রবিবার ১৬ অক্টোবর উপজেলার সকল বৌদ্ধ বিহারে ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রবারণা পূর্ণিমার শুভ সুচনা হবে। ওই দিন বৌদ্ধ উপাসক-উপাসিকারা অষ্টশীল পালন করবেন। সন্ধ্যায় আকাশে উড়াবে রঙ্গিন ফানুস। ১৭ অক্টোবর সোমবার বাকঁখালী নদীতে ভাসাবে কল্প-জাহাজ। ইতোমধ্যে রামু উপজেলার ছয়টি বৌদ্ধ পল্লীতে পুরোদমে চলছে কল্প জাহাজ নির্মাণ কাজ। বাঁশ, বেত, কাঠ, রঙ্গিন কাগজ দিয়ে অপূর্ব কারুকাজে তৈরী জাহাজে ঈগল, ময়ূর, ঘোড়া, চূড়াসহ বিভিন্ন প্রাণীর প্রতিকৃতি ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে এসব জাহাজে। ছয়-সাতটি নৌকাকে এক করে সেই নৌকার ভেলায় বসানো হবে এক একটি জাহাজ। সেই জাহাজেই চলবে শিশু-কিশোর ও যুবকদের বাঁধভাঙা আনন্দ। তাঁরা নানা বাদ্য বাজিয়ে সেখানে নাচবে, গাইবে ও মেতে ওঠেবে অন্যরকম উচ্ছ্বাসে।

রামু কেন্দ্রীয় প্রবারণা পূর্ণিমাও জাহাজ ভাসা উৎসব উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক স্বপন বড়–য়া জানান, বৌদ্ধ ভিক্ষুদের সুত্র পাঠ শেষে দুপুর দুইটার দিকে জাহাজ ভাসানো উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নদীতে চলবে আনন্দায়োজন। প্রবারণা পূর্ণিমা ও জাহাজ ভাসানো উৎসবকে কেন্দ্র করে দীর্ঘ তিনমাস ব্যাপী রামুর বৌদ্ধ পল্লীতে আনন্দায়োজনের পর মহাউৎসাহ উদ্দীপনার মাঝে এ উৎসব সম্পন্ন করা হবে।

রামু কেন্দ্রীয় প্রবারণা পূর্ণিমাও জাহাজ ভাসা উৎসব উদযাপন পরিষদের সমন্বয়কারি অর্পণ বড়–য়া জানান, এবছর রামু উপজেলার মধ্যম মেরংলোয়া, পূর্ব রাজারকুল, হাজারীকুল, হাইটুপী রাখাইন পাড়া, হাইটুপী বড়–য়া পাড়া ও হাজারীকুল গ্রাম থেকে মোট ছয়টি কল্পজাহাজ নদীতে ভাসানো হবে। উৎসবকে ঘিরে অনুষ্ঠিত আনন্দ আয়োজনের শুভ উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার উপ-সংঘরাজ, একুশে পদকপ্রাপ্ত পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের। আশীর্বাদক থাকবেন বাংলাদেশ বুদ্ধিষ্ট ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক, ঢাকা আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারের উপাধ্যক্ষ ও সৌগত সম্পাদক ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয় থের। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল। কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন, পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথ, রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা(ভারপ্রাপ্ত) মোঃ নিকারুজ্জামান, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাষ্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভুষন বড়–য়া, কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডা. পুচনু, রামু থানার অফিসার ইনচার্জ প্রভাষ চন্দ্র ধর, কক্সবাজার জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাবুল শর্মা, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফরিদুল আলম, রামু কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ ঐক্য ও কল্যান পরিষদের সভাপতি প্রবীর বড়–য়া, সাধারণ সম্পাদক তরুন বড়–য়া ও রামু উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়–য়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছেন।

এদিকে প্রবারণা পূর্নিমার উৎসবকে শান্তিপূর্ন ভাবে সম্পন্ন করতে উপজেলা ও থানা প্রশাসন পৃথক পৃথক ভাবে বৌদ্ধ নেতৃবৃন্দের সাথে প্রস্তুতি সভার আয়োজন করেছে। শান্তি শৃংখলার মধ্যদিয়ে প্রবারণার আনন্দ জাতি, ধর্ম নির্বিশেষে সকলে মাঝে ছড়িয়ে পড়–ক এমন প্রত্যাশা করেছে রামু উপজেলার বৌদ্ধ নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জামায়াতকে নির্বাচনের বাইরে রাখার আইন নেই: ইসি

It's only fair to share...27400ডেস্ক নিউজ ::   নির্বাচন কমিশনজামায়াত, হেফাজতসহ কোনও যুদ্ধাপরাধীর পরিবারের কেউ স্বতন্ত্রভাবেও ...