Home » কক্সবাজার » কক্সবাজারের খুরুশকুলে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় সংখ্যালঘুদের উপরে হামলা,মন্দির ভাংচুর ॥ প্রতিবাদ সভা

কক্সবাজারের খুরুশকুলে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় সংখ্যালঘুদের উপরে হামলা,মন্দির ভাংচুর ॥ প্রতিবাদ সভা

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

hamla__1এম.শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার, ২৯ মে ॥
কক্সবাজার সদরের খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরবর্তী সময়ে নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী আবুল হোসেন এর নেতৃত্বে শনিবার রাতে ৫০/৬০ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা খুরুশকুলের দক্ষিণ হিন্দু পাড়ায় শতাধিক ঘর-বাড়ী ও দোকানপাট ভাংচুর এবং একাধিক মন্দিরে তান্ডবতা চালিয়েছে। এসময় অন্তত ৩০ জন সংখ্যালঘু সম্প্রদানের পুরুষ ও নারী আহত হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে খুরুশকুল সহ পুরো জেলা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মাঝে ভয়-ভীতি ও আতংক বিরাজ করছে।
এঘটনার প্রতিবাদে ২৯ মে সকাল ১০টায় প্রায় ১০ হাজারের অধিক হিন্দু সম্প্রদায়ের নারী পুরুষ খুকুশকুল থেকে মিছিল সহকারে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন কার্যালয় ঘেরাও করেন। সেখানে এক প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন, পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথ, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট রনজিত দাশ, সাধারণ সম্পাদক বাবুল শর্মা, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ সভানেত্রী কানিজ ফাতেমা মোস্তাক, খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদের নব নির্বাচিত আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী জসিম উদ্দিন প্রমুখ।
উক্ত প্রতিবাদ সভায় জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার উপস্থিত বিক্ষুব্দ হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনকে সন্ত্রাসীদের ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেন এবং তাৎক্ষনিভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের জন্য খুরুশকুলে ছুটে যান এবং ক্ষতিগ্রস্থ ঘর-বাড়ী, দোকান পাট, মন্দির পরিদর্শন সহ আহত লোকজনদের সাথে কথা বলেন।
ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ২৯ মে বিকাল ৫ টায় কক্সবাজার জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের কার্যালয়ে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট রনজিত দাশের সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় ৩০ মে এর মধ্যে মূল আসামী আবুল হোসেন কে গ্রেফতার করা না হলে, ৩১ মে সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানব বন্ধনের কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়।
এতে বক্তব্য রাখেন, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা দুলাল কান্তি চক্রবর্তী, এডভোকেট মৃনাল চক্রবর্তী, জেলা পূজা উদযাপন পরিষেদের সাধারণ সম্পাদক বাবুল শর্মা, সহ-সভাপতি রাজ বিহারী দাশ, সহ-সভাপতি উদয় শংকর পাল মিঠু, সহ-সভাপতি অধ্যাপক প্রিয়তোষ শর্মা চন্দন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বপন পাল নাজির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক দীপক শর্মা দিপু, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের কর্মকর্তা বিশ্বজিত পাল বিশু ও বিপুল সেন, সদর উপজেলা পূজা কমিটির সভাপতি দীপক দাশ, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট বাপ্পী শর্মা, কক্সবাজার পৌর পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক স্বপন গুহ, সহ-সভাপতি জনি ধর ও শাওন চক্রবর্তী, খুরুশকুল ইউনিয়ন পূজা কমিটির সভাপতি অমল কান্তি দে, সাধারণ সম্পাদক পলাশ আচার্য্য এবং খুরুশকুলের নব নির্বাচিত ইউপি সদস্য জয়ধন মেম্বার।
এঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন, বাংলাদেশ মঙ্গল পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান আধ্যাত্বিক নেতা কবি জগদিশ বড়–য়া পার্থ ।
এক বিবৃতিতে বলেন, নির্বাচনে যার ভোট সে যাকে ইচ্ছা তাকে প্রদান করবে। এটা বাংলাদেশ সংবিধান প্রদত্ত অধিকার। কিন্ত নির্বাচন পরবর্তীতে কেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর বার বার আঘাত করা হবে। তাই অবিলম্বে দুস্কৃতিকারীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান।
———————–

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চট্টগ্রামের বিএনপি কার্যালয় পুলিশের কড়া পাহাড়া

It's only fair to share...32100আবুল কালাম, চট্টগ্রাম ::   পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নেতা-কর্মীদের সাথে  পুলিশের ...