ঢাকা,মঙ্গলবার, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

কালারমারছরার জাবের চেয়ারম্যানের জানাজায় শোকার্ত মানুষের ঢল

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :: মহেশখালীর কালারমার ছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী প্রকাশ জাবের চেয়ারম্যান এর নামাজে জানাজা সোমবার ৩১ অক্টোবর কালারমারছরা ঝাপুয়া মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজায় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে। জানাজার পূর্বেই মাদ্রাসার মাঠ কানাই কানাই পূর্ণ হয়ে মাঠের আশে পাশে মুসল্লীরা জানাজার নামাজ পড়তে অবস্থান নেন। জানাজায় অংশ নেওয়া মুসল্লীদের আবেগ দেখে মনে হয়েছে, তাদের প্রাণের মানুষ আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরীকে যেন তাঁরা চিরবিদায় দিতে কোনভাবেই প্রস্তুত নয়।

বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন, মরহুমের চাচাতো ভাই মাওলানা ছানা উল্লাহ’র ইমামতিতে অনুষ্ঠিত জানাজার পূর্বে মরহুম আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরীর বর্নাঢ্য জীবনের স্মৃতিচারণ করে কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আলমগীর মোহাম্মদ মাহফুজ উল্লাহ ফরিদ, জামায়াতে ইসলামীর চট্টগ্রাম মহানগর আমীর মুহাম্মদ শাহজাহান, মহেশখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরীফ বাদশা, জামায়াতে ইসলামীর কক্সবাজার জেলা সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট ফরিদ উদ্দিন ফারুকী, নায়েবে আমীর মুফতি মাওলানা হাবিব উল্লাহ, সাবেক জেলা আমীর মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান, কালারমার ছরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান, জমজম হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম কবির, পরিবারের পক্ষে মরহুমের ভায়রাভাই অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ শাহজাহান, মরহুমের চাচাতো ভাই অ্যাডভোকেট শাহাবুদ্দীন, মরহুমের একমাত্র পুত্র রুতাবুল ইসলাম রাফসান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বিশাল নামাজে জানাজা শেষে কালারমার ছরার পশ্চিম ঝাপুয়া পারিবারিক কবরস্থানে মাতা-পিতার কবরের পাশে কালারমার ছরার আমজনতার প্রিয় মুখ আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী’কে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

প্রসঙ্গত, মহেশখালীর কালারমার ছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী (৬০) রোববার ৩০ অক্টোবর রাত ৯ টা ৪০ মিনিটের দিকে চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি–রাজেউন)।

আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী হৃদরোগ, ডায়াবেটিস সহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ২৬ অক্টোবর থেকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানে আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী’র শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে গত রোববার ৩০ অক্টোবর কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম শহরের মেট্রোপলিটন হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে ভর্তি করানোর পর চিকিৎসকদের সকল প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে রাত ৯ টা ৪০ মিনিটের দিকে অমায়িক, স্বজ্জন, পরোপকারী, মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন মানুষ জাবের আহমদ চৌধুরী না ফেরার দেশে চলে যান।

আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরীর আদি নিবাস মহেশখালী উপজেলার ঝাপুয়া গ্রামে। তিনি মরহুম কবির আহমদ চৌধুরী ও মরহুমা ছেনুআরা বেগমের জ্যেষ্ঠ পুত্র। বর্তমানে তিনি কক্সবাজার শহরের টেকপাড়া জামে মসজিদের সামনে নিজ বাসভবনে বসবাস করতেন।

আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী মৃত্যুকালে স্ত্রী, ১ পুত্র, ১ কন্যা সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে যান।

বিশিষ্ট সমাজকর্মী আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী জীবদ্দশায় জামায়াত ইসলামী মহেশখালী উপজেলা শাখার আমির সহ দলটির বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী একজন সফল চেয়ারম্যান ও সমাজকর্মী হিসাবে এলাকায় খ্যাতি ও সুনাম রয়েছে।

পাঠকের মতামত: