ঢাকা,মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১

চকরিয়ার বরইতলীতে ২ ডাকাত গ্রেফতার

মো. সা্ইফুল ইসলাম খোকন, চকরিয়া :
কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের পহরচাঁদা কুতুব বাজারস্থ ইয়াকুব স্টোর নামীয় মুদির দোকান হতে গত ২৮ মে রাতে চুরি করে সময় নগদ চার লক্ষ চল্লিশ হাজার টাকাসহ দোকানের বিভিন্ন জিনিসপত্র যার আনুমানিক মূল্য ছয় লক্ষ একান্ন হাজার টাকার মালামাল চুরিসহ লোপাট করা হয়।
লোপাটের পর দোকানের টাকা ও মালামাল পাশ^বর্তী ধান ক্ষেতে লুকিয়ে রাখে ডাকাত দল। গতকাল ২৯ মে রাতে ওই টাকা ও মালামাল গুলো আনতে গেলে স্থানীয় লোকজনের হাতে ধরা পড়ে ২ ডাকাত। আটকৃত ২ ডাকাত পহরচাঁদা কুতুব বাজারস্থ ইয়াকুব স্টোরে চুরি করার অভিযোগ স্বীকার করে।

আটককৃত আসামীরা হলেন- চকরিয়া পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের আইযুব খানের পুত্র মোঃ সাবের মিয়া (২৪),
পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড ঘনশ্যাম বাজারস্থ আনোয়ারের পুত্র আবদুল্লাহ আল মামুন।
আজ ৩০ মে ইয়াকুব স্টোরের সত্ত্বাধিকারী বরইতলীর পহরচাঁদা কুতুব বাজারের মরহুম ইয়াকুব সওদাগর পুত্র আমীর হোসেন (৪২), বাদী হয়ে উক্ত আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে চকরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ৪৬/২২২, তাং- ৩০/০৫/২০২১ইং।
বর্তমানে চকরিয়ায় উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে হত্যা, চুরি, ডাকাতি বৃদ্ধি পেয়েছে। স্থানীয় এক প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির চাপে পুলিশ এলাকার সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে না পারার কারণে উপজেলার আইন শৃংখলা বৃদ্ধি পেয়েছে।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, গত ২৮ মে রাতে উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের পহরচাঁদা কুতুব বাজারস্থ ইয়াকুব স্টোর নামীয় মুদির দোকান চুরি হয়। পুলিশ ওই আসামীদের গ্রেফতারে মাঠে নামে। ভাগ্যক্রমে ২৯ মে রাতে স্থানীয়দের হাতে ২ ডাকাত গ্রেফতার করে স্থানীয় হারবাং পুলিশ ফাঁড়িতে সোর্পদ্দ করে।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানায় একটি মামলা রজু করা হযেছে।

পাঠকের মতামত: