ঢাকা,শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪

শহীদ দৌলত খাঁনের ৩৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

এ.জে.নেজামউদ্দিন, কোনাখালী থেকে :: 

শতশত নেতাকর্মী মিছিল সহকারে চকরিয়া উপজেলা পরিষদের দিকে এগিয়ে যায়। ঔই সময় উপজেলা পরিষদ চত্বরে শান্তিপূর্ন সমাবেশ চলাকালে পুলিশের এলোপাতাড়ি গুলিতে প্রাণ হারান জাতীয় ছাত্রলীগ নেতা দৌলত খাঁন।

১৯৮৭ সালের এইদিনে তৎকালীন স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী গণতান্ত্রিক আন্দোলনে চকরিয়া উপজেলা জাতীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি দৌলত খাঁন পুলিশের গুলিতে শহীদ হয়েছিলেন। ওইদিন সারাদেশে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ উপজেলা পরিষদ ঘেরাও কর্মসূচী ঘোষণা করে।

ঐ কর্মসূচী পালন করতে গিয়ে চকরিয়া উপজেলা ও কলেজ ছাত্রলীগের নেতৃত্বে কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রলীগ নেতা দৌলত খাঁনসহ ছাত্র সংগ্রাম।
এইদিন থেকে শহীদ দৌলত দিবস পালন করে আসছে। আজ ৫ ডিসেম্বর তার ৩৬ তম মৃত্যু বার্ষিকীতে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, ছাত্র সংগঠন ও দৌলত খান স্মৃতি সংসদ কর্তৃক ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ দিবস উপলক্ষে দৌলত স্মৃতি সংসদ ও বিভিন্ন সংগঠন দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচী হাতে নিয়েছে।

সকাল ৮টায় কোরআনখানী দোয়া মাহফিল, সকাল ৯টায় পুষ্প্যমাল্য অর্পণ করেন কোনাখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন ছাত্রলীগের (সাবেক- সভাপতি) এরশাদ হোছাইন এবং ছাত্রলীগ নেতা ও দৌলত খাঁনের আপন ভাইপো শাহিনুর রহমান (শাহিন), শহিদুল ইসলাম, রাসেদুল ইসলাম, মোশাররফ হোসেন, সরওয়ার হোছাইন, শাহেদ হোছাইন, শফিকুল ইসলাম মনির, তানজিবসহ অসংখ্য ছাত্রলীগ নেতাকর্মী।

শাহিনুর রহমান (শাহিন) বলেন, আমার চাচা দৌলত খাঁন আজ থেকে ৩৬ বছর আগে অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে জীবনকে উৎসর্গ করেন। বর্তমান বিএনপি, জামায়াত শিবিরের অত্যাচারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে যদি আমার প্রাণ ত্যাগ করতে হয় এতে আমার আপত্তি নেই।

পাঠকের মতামত: