ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

আজ আওয়ামী লীগের চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ

কক্সবাজারের চারটি আসনে কারা হচ্ছেন ‘সৌভাগ্যের বরপুত্র’

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার::  দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজারের চারটি আসনে কারা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন তা নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে কৌতূহলের শেষ নেই। সম্প্রতি মহেশখালীর মাতার বাড়ির জনসভায় কক্সবাজার-২ (মহেশখালী কুতুবদিয়া) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বর্তমান সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিককে জনতার হাতে তুলে দেওয়ায় অন্য তিনটি আসন নিয়ে মূলত চলছে আলোচনা। আজ রবিবার (২৬ নভেম্বর) নিষ্পত্তি হবে সব জল্পনা কল্পনার।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজারের চারটি সংসদীয় আসনের মধ্যে চারটিতে আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী জয়লাভ করে। বেসরকারিভাবে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা হলেন কক্সবাজার-১ আসনে আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার-২ আসনে জাফর আলম, কক্সবাজার-৩ আসনে সাইমুম সরওয়ার কমল ও কক্সবাজার-৪ আসনে শাহীন আক্তার।
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে প্রায় অর্ধশতাধিক নেতা দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও মূলত আলোচনা চলছে ১৪-১৫ জন প্রত্যাশী নিয়ে।

কক্সবাজার-১ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে দলকে বিভাজন সহ অসংখ্য অভিযোগ থাকায় অন্যান্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মনোনয়ন পেতে মরিয়া হয়ে তৎপরতা চালাচ্ছেন। বর্তমান সংসদ সদস্য জাফর আলম ছাড়াও মনোনয়নের জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে লবিং করেছেন সালাউদ্দিন আহমদ সিআইপি, জজ আমিনুল হক, ডক্টর আশরাফুল ইসলাম সজীব, রেজাউল করিম, ফজলুল করিম সাঈদী ও রাশেদুল ইসলাম প্রমুখ ব্যক্তিরা।

কক্সবাজার ২ (মহেশখালী- কুতুবদিয়া) আসনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী বর্তমান সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক এর মনোনয়ন অনেকটা নিশ্চিত হলেও মনোনয়নের জন্য বিভিন্নভাবে লবিং করছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, প্রফেসর ডঃ আনসারুল করিম ও মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারেক বিন ওসমান শরীফ।

কক্সবাজার- ৩ (সদর) আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য সাইমুম সরোয়ার কমল ছাড়াও মনোনয়নের জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে শক্ত অবস্থান আছেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি করোনা কালীন সময়ে সাধারণ মানুষকে অন্যতম সহযোগিতাকারী মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম ও কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান।

কক্সবাজার -৪ উখিয়া-টেকনাফ) আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য শাহীন আহমেদ ছাড়াও কেন্দ্রীয়ভাবে শক্ত অবস্থান আছেন জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদি। মনোনয়ন এর জন্য লবিং করে যাচ্ছেন সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব শফিউল আলম, টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল বশর, সাধারণ সম্পাদক মোর্শেদ ও উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী।

প্রাপ্ত তথ্য মতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাফর আলম। তিনি ২ লাখ ৭৩ হাজার ৮৫৬ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন।
তার নিকটতম প্রতিন্দ্বন্দ্বী বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী সালাহ উদ্দিন আহমেদে স্ত্রী সাবেক সংসদ সদস্য হাসিনা আহমেদ পেয়েছিলেন ৫৬ হাজার ৬০১ ভোট।

কক্সবাজার-২ (মহেশখালী- কুতুবদিয়া) আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আশেক উল্লাহ রফিক।

তিনি ২ লাখ ৩০ হাজার ৯১ পেয়ে নির্বাচিত হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জামায়াত নেতা হামিদুর রহমান আযাদ পান ১৮ হাজার ৫২৫ ভোট। বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের আলমগীর মোহাম্মদ মাহফুজ উল্লাহ ফরিদ পান ১১ হাজার ৭৮৯ ভোট।

কক্সবাজার-৩ (রামু-কক্সবাজার সদর) আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সাইমুম সরওয়ার কমল। তিনি ২ লাখ ৫৩ হাজার ৮২৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তাঁর নিকটতম বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের লুৎফর রহমান কাজল পান ৮৬ হাজার ৭১৮ ভোট।

কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন আব্দুর রহমান বদির স্ত্রী শাহীন আকতার। তিনি ১ লাখ ৯৬ হাজার ৯৭৪ পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের শাহাজাহান চৌধুরী পান ৩৭ হাজার ১৮ ভোট।

পাঠকের মতামত: