ঢাকা,মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

বৃদ্ধ পিতা-মাতাসহ আহত ৩

সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে সাবেক চেয়ারম্যান মহসিন বাবুলের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর 

স্টাফ রিপোর্টার, চকরিয়া :: কক্সবাজারের চকরিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে সাবেক চেয়ারম্যানের বসতঘরে হামলা ও লুটপাট চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা।

এসময় হামলায় সাবেক চেয়ারম্যান মহসিন বাবুলের বৃদ্ধ পিতা-মাতা সহ তিনজন মারাত্মক আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। গত ১৯ নভেম্বর রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

মাতামুহুরী থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল জানান, সাহারবিল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মকলেছুর রহমান পাড়ায় গত ১৫ বছর ধরে ৩৫ কড়া জমি ক্রয় করে বসবাস করে আসছেন তার ছোট বোনের মেয়ে কহিনুর আক্তার। ওই বসতঘরের চারপাশে পাকা বাউন্ডারিসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছপালাও রয়েছে। সম্প্রতি তার ভাগ্নি কহিনুর আক্তারের বসতভিটা দখল করার জন্য পায়তারা করে আসছে একই এলাকার মৃত আবদুল জলিলের পুত্র দখলবাজ সোহেল। এরইমধ্যে সোহেলের নেতৃত্বে বসতভিটা দখলের জন্য বেশ কয়েকবার অস্ত্রের মহড়াও দিয়েছে।

গত ১৯ নভেম্বর রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে স্থানীয় চেয়ারম্যান নবী হোসাইন ও সোহেলের নেতৃত্বে বসতভিটা দখলের চেষ্টা করা হয়। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়।

মহসিন বাবুল আরও জানান, এসময় ইউপি চেয়ারম্যান নবী হোসাইন ক্ষিপ্ত হয়ে পুণরায় ব্যাপক ভাংচুর চালায় তার বোনের বাড়িতে। পরে তারা জড়ো হয়ে পাশে থাকা আমার বাড়িতেও হামলা ও লুটপাট চালায়।

এসময় হামলায় বাড়িতে থাকা অসুস্থ বৃদ্ধ পিতা আবদুল খালেক (৭৮), মা এনতেরাজ বেগম (৬৮) ও চাচাতো ভাই মহিউদ্দিন (২৯) মারাত্মকভাবে আহত হয়।

পরে স্বজনরা গুরুতর আহত মহিউদ্দিনকে চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেও তাকে মারধর করে নবী হোসাইনের লোকজন ।

এসময় হামলা চালিয়ে বাড়ির আসবাবপত্র ও বিভিন্ন মালামাল ভাংচুর করে বলে জানান তিনি। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান মহসিন বাবুল।

পাঠকের মতামত: