ঢাকা,বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২

রাত পোহালে এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম বদরখালী সমিতির নির্বাচন, সব প্রস্তুতি সম্পন্ন

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া ::
রাত পোহালেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম সমবায় প্রতিষ্ঠান কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির বহুল প্রতিক্ষিত নির্বাচন। নির্বাচনকে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও গ্রহণযোগ্য করতে দায়িত্বরত প্রশাসন ইতিমধ্যে সবধরণের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে বলে সূত্রে জানা গেছে। অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সমিতির ১২ পদের বিপরীতে মোট ৩৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সর্বশেষ সমিতির নির্বাচন অনুষ্টিত হয়েছিল ২০১৯ সালের ২৮ সেপ্টেস্বর। দীর্ঘ তিন বছর পরে বহু প্রত্যাশিত এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
সমিতির মোট ভোটার রয়েছে ১ হাজার ৫শত জন। অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে সভাপতি পদে ৪জন, সহ-সভাপতি-৫ জন, সম্পাদক পদে ৫জন এবং ৯টি ব্লকে পরিচালক (সদস্য) পদে ২৪ জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে রয়েছেন। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর ভোটারেরা আগামীকাল শনিবার সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ভোট প্রয়োগ করবেন প্রচন্দনীয় প্রার্থীদের।
তবে, শুক্রবার রাত ১২ টা পর্যন্ত ছিল নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণার শেষ দিন। শেষ মুহুর্তের প্রচার-প্রচারণায় ভোটার ছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝেও নির্বাচনের আমেজ লক্ষ্য করা গেছে। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনাসহ সবই শেষ হয়েছে গতকাল শুক্রবার। এবার ভোট যুদ্ধের অপেক্ষার পালা।
নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির বহু প্রতিক্ষিত নির্বাচনে এবারে সভাপতি পদে লড়ছেন ৪জন প্রার্থী। তারা হলেন প্রবীণ সমবায়ী সাবেক তিনবারের সম্পাদক দেলোয়ার হোছাইন এমএ (গোলাপ ফুল), সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত আবদুল হান্নানের বড় ছেলে নুরে হাবিব তছলিম (ছাতা), বর্তমান কমিটির সভাপতি নুরুল আলম সিকদারের ছেলে ছরওয়ার আলম সিকদার (চেয়ার) ও মনজুর আলম (ডামি প্রার্থী)। সমিতির সহ-সভাপতি পদে ভোটযুদ্ধে আছেন বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি আলী মোহাম্মদ কাজল (বাই সাইকেল), আনছারুল করিম (মই), কামাল উদ্দীন বাবুল (হাঁস), মাস্টার মকবুল হোছাইন (কলসি), ও আহমদ উল্লাহ(ডামি প্রার্থী)।
সমিতির সবচেয়ে আলোচিত পদ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন পাঁচজন। তাদের মধ্যে ভোটের মাঠে আছেন পরীক্ষিত সমবায়ী নেতা ও সাবেক দুইবারের সম্পাদক মোহাম্মদ আলী চৌধুরী (দেওয়াল ঘড়ি), সাবেক প্রয়াত সম্পাদক ইকবাল বদরীর ভাই এ এম এস্তেফাজুর রহমান (আনারস), নতুন মুখ মইন উদ্দিন (চাকা)। এছাড়া এ পদের অন্য দুইজন নজরুল ইসলাম ও আরিফ জুনায়েত রাসেল রয়েছে (ডামি প্রার্থী) হিসেবে নির্বাচনে রয়েছে। এ ছাড়াও
সমিতির আওতাধীন ৯টি ব্লক থেকে ৯জন পরিচালক (সদস্য) নির্বাচিত করবেন ভোটারেরা। সমিতির ৯টি সদস্য (পরিচালক) পদের বিপরীতে ভোটযুদ্ধে আছেন ২৪ জন প্রার্থী। তারা হলেন বর্তমান কমিটির সদস্য জসিম উদ্দিন টিটু, শাহাব উদ্দিন শাকিল, আব্দুল আজিজ, মোজাহার আহমদ, আবুল হাসনাত মো পারভেজ, নাজেম উদ্দীন, কতুব উদ্দীন মেম্বার, মেম্বার বখতিয়ার উদ্দিন রুবেল, রেজাউল করিম বাদল, নাজিম উদ্দিন, জয়নাল আব্দীন, নুরুল কাদের, মো বেলাল উদ্দীন, জিয়া উদ্দীন, হাজ্বী হামিদ উল্লাহ, মো নাছির উদ্দীন, জাফর আলম, এস এম শওকত ওসমান, সিরাজুল হক, মেজাফ্ফর আহমদ, কুতুব উদ্দীন সোহেল, আব্দুল কাদের মানিক, আহমদ আলী মাজু, মোহাম্মদ নুরুল কাইছার।
এদিকে নির্বাচনের শেষ সময়ে বদরখালীর বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় ও হাট-বাজার-চায়ের দোকানে আড্ডা জমে উঠেছে। চলছে ভোটের হিসেব নিকাশ। ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীদের পক্ষে নানা ধরনের যুক্তিতর্ক তুলে ধরছেন। তবে সব ভোটারদের একটিই কথা এবারের নির্বাচনে সমিতির প্রায় ৬০ হাজার জনগোষ্ঠীর স্বার্থ অক্ষুন্ন রাখবেন সেসব যোগ্য প্রার্থীরা নির্বাচিত হোক এমনটা প্রত্যাশা। অনেক ভোটার প্রতীকের চেয়ে সমিতির দায়িত্ব পালনে যোগ্য ভূমিকা রাখবেন সেই সব প্রার্থীকে বিবেচনায় প্রাধান্য রাখছেন।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি জেপি দেওয়ান বলেন, বহু প্রতিক্ষিত বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির নির্বাচন (কাল) শনিবার অনুষ্ঠিত হবে। অবাধ, সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ভোটের দিন আইন শৃংখলা রক্ষায় সার্বক্ষনিক ভাবে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে।

পাঠকের মতামত: