ঢাকা,রোববার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১

প্রধানমন্ত্রীর কঠিন দিকনির্দেশনায় আমরা জঙ্গি-সন্ত্রাস দমন করেছি -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কক্সবাজার প্রতিনিধি :: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আমরা বিশ্বাস করি টেকসই শান্তির জন্য টেকসই নিরাপত্তা দরকার। আমরা সেই জায়গাটাতে কাজ করছি। আমরা জঙ্গি-সন্ত্রাস দমন করেছি। জঙ্গিদের উত্থানের আগে সন্ত্রাসীদের উত্থান হয়েছিল। সবগুলো আমরা প্রধানমন্ত্রীর কঠিন দিকনির্দেশনায় বন্ধ করতে পেরেছিলাম বলেই আজ পরিবর্তনটা চোখে পড়ছে। দেশ এগিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কক্সবাজার পাবলিক লাইব্রেরীর শহীদ দৌলত ময়দানে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, আমরা ২০৪০ এ উন্নত দেশ হবো। ২০৩০ এ আমরা মধ্যম আয়ের দেশ ক্রস করবো। সেই লক্ষ্যেই আমরা প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনায় একের পর এক মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছি।
তিনি আরও বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবু রহমান বাঙ্গালীকে তাঁর হাজার বছরের ইতিহাসে প্রথম স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র প্রদান করেছেন, তাঁরই কন্যা শেখ হাসিনা কর্তৃক সেই রাষ্ট্র আজ বিশ্ব মানচিত্রে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত। তাঁর দূরদর্শী নেতৃত্বে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।
কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান।
জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এম.এ মনজুরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল করিম, মাহবুবুল হক মুকুল, এডভোকেট রনজিত দাশ, মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, কাজী মোস্তাক আহমদ শামী, এডভোকেট সুলতানুল আলম, এটিএম জিয়া উদ্দিন চৌধুরী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর, জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনসারী, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদা তাহের, যুব মহিলা লীগের সভাপতি আয়েশা সিরাজ, সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা চৌধুরী লুনা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আলম চৌধুরী, সাবেক সাংসদ আবদুর রহমান বদি, আওয়ামী লীগ নেতা খোরশেদ আলম কুতুবী, ইউনুছ বাঙ্গালী, ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম, এড আয়াছুর রহমান, হেলাল উদ্দিন কবির, এড তাপস রক্ষিত, মেয়র মকছুদ মিয়া, মিজানুর রহমান, শাহেনা আকতার পাখি, রেবেকা সুলতানা আইরিনসহ আওয়ামী লীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের শত শত নেতাকর্মী।
আলোচনা সভায় শেষে আতশবাজি প্রদর্শন করা। উড়ানো হয় শত শত বেলুন। এর আগে সকালে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে খতমে কোরআন, দোয়া মাহফিল, মসজিদ, মন্দির ও গীর্জায় বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

পাঠকের মতামত:

 
error: Content is protected !!