ঢাকা,রোববার, ৭ মার্চ ২০২১

পেকুয়া থানার দারোগা নাদিরের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগ!

পেকুয়া প্রতিনিধি :: কক্সবাজার জেলার পেকুয়া থানায় কর্মরত বিতর্কিত উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাদির শাহ’র বিরুদ্ধে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি ও নিরীহ ব্যক্তিকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভূক্তভোগী এ ঘটনায় পেকুয়া থানার ওই বিতর্কিত এস আই নাদিরের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ইতিমধ্যেই পুলিশের আইজিপি, চট্টগ্রামের ডিআইজি ও কক্সবাজার জেলার পুলিশ সুপারের নিকট লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

ভূক্তভোগী নিরীহ ব্যক্তির দায়েরকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে, উপজেলার পেকুয়া সদর ইউনিয়নের ভোলাইয়া ঘোনা গ্রামের মরহুম বদিউল আলমের ছেলে আবদুল্লাহ আল মোবাশে^র মানিক বিগত ১৪/০৯/২০২০ইংরেজী তারিখ কক্সবাজার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ৭৪২/২০ইংরেজী। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পেকুয়া থানা পুলিশকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য প্রেরণ করেন। আর পেকুয়া থানার ওসি সেটি তদন্তের জন্য দায়িত্বভার অর্পণ করেন বহুল বিতর্কিত এসআই নাদির শাহ’র উপর।

এদিকে মামলার তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে প্রতিবেদন পক্ষে দেওয়ার কথা বলে মামলার বাদী মানিককে কয়েক দফায় থানায় ডেকে নিয়ে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন। দাবি কৃত ঘুষের টাকা না দিলে প্রতিবেদন উল্টো দেওয়ার হুমকি দেন এ পুলিশ কর্মকর্তা!

মামলার বাদী আবদুল্লাহ আল মোবাশে^র মানিক অভিযোগ করে এ প্রতিবেদককে বলেন, এস আই নাদির কর্তৃক ৫০ হাজার ঘুষ তিনি দিতে পারবেনা বলে অপারগতা প্রকাশ করেন। তাকে কয়েক দফায় থানায় ডেকে নিয়ে ঘুষ দাবি করা হয়েছে। এরপর এস আই নাদির মামলার প্রতিবেদন তার বিরুদ্ধে প্রেরণসহ তাকে বিভিন্ন মিথ্যা মামলায়ও ফাঁসিয়ে দিবে বলেও হুমকি দেন।

মোবাশে^র মানিক আশংকা করছেন, পেকুয়া থানার এস আই নাদির শাহ’র দাবি পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় তিনি ওই দারোগা কর্তৃক মিথ্যা মামলায় হয়রানীসহ জীবনের নিরাপত্তা নিয়েও চরম হুমকিতে রয়েছেন। তাই তিনি এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানার জন্য যোগাযোগ করা হলে পেকুয়া থানার এস আই নাদির সাংবাদিক পরিচয়ে কোন কথা বলতেই রাজি হননি।

কক্সবাজার পুলিশ সুপার কার্যালয়ের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, পেকুয়া থানার এস আই নাদিরের বিরুদ্ধে রেজি:ডাকযোগে গত মাসের ২০ জানুয়ারী ঘুষ দাবির অভিযোগ করেছেন পেকুয়ার আবদুল্লাহ আল মোবাশে^ও মানিক।

 

পাঠকের মতামত: