ঢাকা,সোমবার, ১ মার্চ ২০২১

তাৎক্ষণিক পেল ২০ বান্ডিল ঢেউটিন

কোনাখালীতে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ১৬ পরিবারের পাশে এমপি জাফর

ছোটন কান্তি নাথ ঃ
কক্সবাজারের চকরিয়ার কোনাখালী ইউনিয়নের মরংঘোনায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে সর্বস্ব হারানো ১৬টি পরিবাররের পাশে দাঁড়িয়েছেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম।
অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে শুক্রবার দিবাগত রাতেই কোনাখালীর মরংঘোনায় ছুটে যান এমপি জাফর আলম। এ সময় তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের নতুন করে পুনর্বাসনসহ সার্বিক সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দেন। প্রাথমিকভাবে এমপি ব্যক্তিগতভাবে ক্ষতিগ্রস্তদের বসতবাড়ি পুননির্মাণের জন্য ২০ বাণ্ডিল ঢেউটিন প্রদান করেন।
এ সময় এমপি জাফর আলম ক্ষতিগ্রস্তদের সার্বিক খোঁজ-খবর নেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডে যেসব পরিবার নিঃস্ব হয়ে গেছে তাদেরকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও যথাযথ সহায়তা দেওয়া হবে। যাতে ক্ষতিগ্রস্তরা নতুন করে মাথা গোঁজার ঠাই হিসেবে বাড়ি তৈরি করতে পারেন।

#########
পেকুয়ায় মসজিদ নির্মাণকাজ উদ্বোধনে এমপি জাফর
বারবাকিয়াতে নির্মিত হবে উপজেলা মডেল মসজিদ
ছোটন কান্তি নাথ ঃ
কক্সবাজারের পেকুয়ার বারকাকিয়া ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব জালিয়াকাটা জামে মসজিদের পুনঃ নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেছেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। এ সময় তিনি ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে মসজিদের উন্নয়নে নগদ ৩ লক্ষ টাকা প্রদান এবং রাস্তার উন্নয়নে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দেন।
এ উপলক্ষে আজ শনিবার বিকেলে মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা মোহাম্মদ হোছাইন বিএ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্রশাসক ও সাবেক এমপি মোস্তাক আহমদ চৌধুরী। উদ্বোধক ছিলেন কক্সবাজার-১ আসনের এমপি আলহাজ জাফর আলম। প্রধান বক্তার বক্তব্য দেন সংরক্ষিত নারী সাংসদ কানিজ ফাতেমা মোস্তাক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এইচএম শওকত।
উদ্বোধকের বক্তব্যে সংসদ সদস্য জাফর আলম বলেন, ‘এই মসজিদের পুনঃ নির্মাণকাজ যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা যায় সেজন্য আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে তিন লক্ষ টাকা প্রদান করা হবে। একইসাথে এলাকার সড়কেরও যাতে দ্রুত উন্নয়ন করা যায়, সেজন্য পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা পরিষদ প্রশাসক মোস্তাক আহমদ ঘোষণা দেন তার পক্ষ থেকে ৩ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে মসজিদের উন্নয়নে।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে সংরক্ষিত আসনের নারী সাংসদ কানিজ ফাতেমা মোস্তাকও ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে নগদ দুই লক্ষ টাকা প্রদানের ঘোষণা দেন।
উদ্বোধকের বক্তব্যে এমপি জাফর আলম উপস্থিত দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বারবাকিয়া ইউনিয়নে দলের পক্ষ থেকে নৌকা প্রতীকে যাকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে, তার পক্ষে একযোগে কাজ করতে হবে। কোনভাবেই দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা সুযোগ আর নেই। যারা এই নির্দেশ অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠিনতর ব্যবস্থা নেওয়া হবে দলের পক্ষ থেকে। অতএব দলের প্রার্থী তথা নৌকা প্রতীককেই জিতিয়ে আনতে হবে।’ ##
#######
পেকুয়ায় ৮০০ নারীর মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এমপি জাফর আলম
ছোটন কান্তি নাথ ঃ
কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের ৮০০ হতদরিদ্র নারীর মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন কক্সবাজার-১ আসনের এমপি এবং চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আজ শনিবার সকালে ইউনিয়নের সোনালী বাজারে শীতবস্ত্র হিসেবে কম্বল বিতরণ করেন তিনি।
এ উপলক্ষে আয়োজিত শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগ উজানটিয়া ইউনিয়নের সভাপতি ফাতেমা বেগম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পেকুয়া উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম মিনু, উজানটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, উজানটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তোফাজ্জল করিম, সাধারণ সম্পাদক শাহ জামাল। উপস্থিত ছিলেন এমপির ব্যক্তিগত সহকারী আমিন চৌধুরী প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি জাফর আলম বলেন, ‘বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। একজন মানুষও যাতে অভুক্ত না থাকেন, সেই ব্যবস্থা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যে কোন দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় প্রত্যেক মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন শেখ হাসিনা। যাদের ঘর নেই তাদেরকে ঘর তৈরি করে দিচ্ছেন। আজ শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী আছেন বলেই এসব কিছু সম্ভব হয়েছে। একইভাবে একজন মানুষও যাতে শীতে কষ্ট না পায় সেজন্য শীতবস্ত্রের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন আমাদের মানবিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ##
#######
বানৌজা শেখ হাসিনা সাবমেরিন ঘাটির জন্যই মগনামাকে বিশ্ব চিনবে অচিরেই

-এমপি জাফর

ছোটন কান্তি নাথ ঃ
কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ বলেছেন, দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সাবমেরিন নৌ-ঘাটি স্থাপন করা হচ্ছে পেকুয়ার মগনামায়। এই সাবমেরিন ঘাটির জন্য বাংলাদেশ বিশ্বের কাছে নতুন করে পরিচিত হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আজ রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্টিত বলেই এটা সম্ভব হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামেই (বানৌজা শেখ হাসিনা) এই সাবমেরিন ঘাটির জন্য মগনামাকেই বিশ্ববাসী চিনতে আর বেশিদিন নেই।
এমপি জাফর আলম আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে একযোগে যে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে তা অন্য কোন সরকার প্রধান পারেননি। জনকল্যাণে একের পর এক মেগাপ্রকল্প হাতে নিয়ে তা বাস্তবায়ন করে বিশ্ববাসীকে দেখিয়ে দিয়েছেন দূরদর্শীতা থাকলেই সবকিছুই সম্ভব এবং তা শেখ হাসিনাই করে দেখিয়েছেন। যার জ্বলন্ত উদাহরণ হচ্ছে নিজেদের টাকায় পদ্মা সেতু নির্মাণ করা।
বিশ্বব্যাংক এক টাকাও না দেওয়ার পরেও দেশের মাটিতে বসে অনেকেই পদ্মা সেতুতে দুর্নীতির গন্ধ খুঁজেছেন। আবার পশ্চিমাদের দালাল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত অনেকেই সেই গন্ধ নাকে নিয়ে গলাবাজি করেছেন পদ্মা সেতুতে দুর্নীতি হয়েছে মর্মে। পশ্চিমাদের দালাল শ্রেণীর কিছু গণমাধ্যমও দুর্নীতি দুর্নীতি বলে পত্রিকার পাতা ভরেছেন। কিন্তু পদ্মা সেতুতে শেষপর্যন্ত বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির কোন প্রমাণ হাজির করতে পারলেন না। শুধুমাত্র বর্তমান সরকারকে বিশ্ববাসীর কাছে হেয় করতেই এই প্রপাগাণ্ডা করা হয়েছে বিএনপি-জামায়াত চক্র এবং তাদের দোসরদের পক্ষ থেকে।
এমপি জাফর আলম আজ শনিবার দুপুরে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন পেকুয়া সদর ইউনিয়নের মেহেরনামা উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নবনির্বাচিত সভাপতি মহিউদ্দিন বাবর মুকুলের অভিষেক অনুষ্ঠানে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার শামসুদ্দোহার সভাপতিত্বে অভিষেক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এস এম গিয়াস উদ্দিন, জিএম আবুল কাশেম, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও পেকুয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা তথা দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম, এমপির ব্যক্তিগত সহকারী আমিন চৌধুরী প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি জাফর আলম আরো বলেন, পেকুয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এমন ব্যক্তিকে প্রার্থী করা হবে, যিনি সুখে-দুঃখে সবসময় মানুষের পাশে থাকেন। রাস্তাঘাট, বেড়িবাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হলে মেরামত করতে যিনি সর্বদা মাঠে থাকেন এবং বন্যা বা প্রাকৃতিক যে কোন দুর্যোগে সবসময় যাকে মানুষ কাছে পায় তাকেই এই ইউনিয়নে প্রার্থী করা হবে। যাতে তার মাধ্যমে ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের সুফল ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়া যায়।

পাঠকের মতামত: