Home » কক্সবাজার » পেকুয়ায় সড়ক কেটে তৈরী হচ্ছে ফসলী জমি, উত্তেজনা (পেকুয়া সংবাদ)

পেকুয়ায় সড়ক কেটে তৈরী হচ্ছে ফসলী জমি, উত্তেজনা (পেকুয়া সংবাদ)

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

নিজস্ব প্রতিবেদক, পেকুয়া:
পেকুয়ায় সড়ক কেটে তৈরী হচ্ছে ফসলি জমি। ভেলুয়ারপাড়া-মিয়াজিরঘোনা সড়কের প্রায় ৩ চেইন কেটে ওই স্থানে তৈরী করা হচ্ছে ফসলী জমি। উপজেলার টইটং ইউনিয়নের পশ্চিম সোনাইছড়ি মিয়াজিরঘোনা গ্রামে সড়ক কর্তনের কাজ চলমান রয়েছে। এ দিকে ৩০ বছর পূর্বে গ্রামীণ ওই সড়কটি সংষ্কার কাজ বাস্তবায়ন করে। মিয়াজিরঘোনা গ্রামের বিপুল জনগোষ্টীর যাতায়াতের প্রধান মাধ্যম হচ্ছে ওই সড়কটি। সেটি কেটে ফেলে সড়ক ও ফসলি জমি একাকার হওয়ায় গ্রামবাসী এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। গ্রামীণ ওই সড়ক রক্ষায় এবার জনগন ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। দীর্ঘদিনের গ্রামীণ ওই সড়কটি দখলমুক্ত রাখতে গ্রামবাসী সোচ্চার হয়েছেন। তারা সড়কটি বিধ্বংসী ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ঐক্যমত পোষন করে। সুত্র জানায়, গত ৩০ বছর আগে টইটং ইউনিয়নের পশ্চিম ও দক্ষিন অংশের জনগোষ্টীর যাতায়াতের জন্য ভেলুয়ারপাড়া-মিয়াজিরঘোনায় একটি সড়ক সংষ্কার কাজ বাস্তবায়ন করে। সে সময় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ এর অর্থায়নে ফসলী জমির উপর দিয়ে এ সড়কটি নির্মাণকাজ বাস্তবায়ন করে। টইটং ইউপির ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য রুস্তম আলী মেম্বার ওই সড়ক সংষ্কার কাজ বাস্তবায়নে প্রকল্প সভাপতি ছিলেন। সে সময় সড়কটিতে মাটি ভরাট কাজ বাস্তবায়ন হয়েছে। টইটং ইউনিয়নের ভেলুয়ারপাড়ার পশ্চিম অংশ থেকে উত্তর দিকে সড়কটি ধাপমান। সেখান থেকে টইটং ইউনিয়নের মিয়াজিরঘোনা নেজাম উদ্দিনের বাড়ি পর্যন্ত যায়। মিয়াজিরঘোনা খালের নিকট সড়কটির পরিসমাপ্তি ঘটে। স্থানীয় সুত্র জানায়, ওই সড়কটি একটি ভূমি দস্যু চক্রের লোলুপ দৃষ্টির মধ্যে পড়ে। মিয়াজিরঘোনা এলাকার মৃত নেজাম উদ্দিনের ছেলে বহু মামলার আসামী আতাউর রহমান ও তার ভাই একাধিক নাশকতা মামলার আসামী জামায়াত-শিবিরের সাবেক দুর্ধর্ষ ক্যাডার হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে মিয়াজিরঘোনা সড়কটি কেটে ফেলার মহোৎসবে মেতেছে। গত ৪/৫ দিন আগে থেকে প্রভাবশালী আতাউর রহমান গং সড়কটি মিশিয়ে ফেলার কাজে ব্যস্ত রয়েছে। তারা বাড়ির পার্শ্বে সড়কটির প্রায় ৩ চেইন কেটে ফেলে। ১০-১২ জন শ্রমিক নিয়োগ দিয়েছে সড়কটি কর্তন করতে। এ দিকে স্থানীয়রা ওই সড়কটি রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। সুত্র জানায়, আতাউর গং এর আগেও একই কায়দায় ব্যস্ত ছিল। সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ বিএর সময়েও ওই পরিবার সড়কটি কর্তনের প্রচেষ্টা চালায়। সে সময় জনগন ধাওয়া দিয়েছিল। মিয়াজিরঘোনা গ্রামের বাসিন্দা আবদুল হাকিম, আবুল কালাম, নুরুল ইসলাম, করম আলী, শাহআলম জানায়, সড়কটি অত্যন্ত উপযোগী। মিয়াজিরঘোনার মানুষ এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে। এ বিলে প্রচুর ফসল ফলায়। ফসল কর্তনের সময় গাড়ি বিলে ডুকে পড়ে। ধান পরিবহন হয় এ সড়ক দিয়ে। একই গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী ছৈয়দুল আলম ও মুমিনুল হক জানায়, তারা সড়কটিকে গ্রাস করার অপকৌশলে ব্যস্ত হয়েছে। আমরা চেয়ারম্যান সাহেবকে বিষয়টি অবহিত করি। সকালে চৌকিদার এসে নিষেধ করে গেছে। কলেজ ছাত্রী জন্নাতুল মাওয়া, আবিদা, রুমি, নুসরাত জাহান সুমি জানায়, এটি আমাদের যাতায়াতের প্রধান মাধ্যম। এর বিনাশ হলে মানুষের দুর্ভোগ চরম আকার ধারন করবে। টইটং ইউপির ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য হেলাল উদ্দিন জানায়, এ পরিবারটি সড়কটি গ্রাস করার চক্রান্তে মেতেছে। চেয়ারম্যান পরিদর্শন করবেন বলে জনগনকে বলেছে। টইটং ইউপির চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী জানায়, আমি বিষয়টি জেনেছি। সড়কটি দেখতে কিছুদুর গিয়েছিলাম। জরুরী কাজ থাকায় সেখানে যাওয়া হয়নি। সরকারী রাস্তা কাটার এ অধিকার কাউকে দেয়া হয়নি। জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অবশ্যই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

পেকুয়ায় পলাতক আসামী গ্রেফতার
নিজস্ব প্রতিবেদক, পেকুয়া:
পেকুয়ায় বেলাল উদ্দিন (৩৫) নামের একজন পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ২৯ জুন (শনিবার) সন্ধ্যার দিকে পেকুয়া থানার এস,আই সুমন সরকারসহ সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স তাকে পেকুয়ার চৌমুহনী থেকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত বেলাল উদ্দিন উপজেলার সদর ইউনিয়নের আন্নরআলী মাতবরপাড়া গ্রামের পেঁচু মিয়ার ছেলে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। পেকুয়া থানার এস,আই আতিকুর রহমান জানায়, গ্রেফতারকৃত বেলাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে পেকুয়া থানায় জিআর ২৬/১৯ মামলা রুজু আছে। ওই মামলায় তিনি পলাতক ছিলেন। ওই কর্মকর্তা জানায়, বেলাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে ওই মামলাটি রুজু করেছেন মরতুজা বেগম নামের এক গৃহবধূ।

##########################

পেকুয়ায় সদর আ’লীগের ৮ নং ওয়ার্ড কমিটি গঠিত  গ্রুপ ছবি আছে
নিজস্ব প্রতিবেদক, পেকুয়া:
পেকুয়ায় সদর ইউনিয়ন আ’লীগের ৮ নং ওয়ার্ড কমিটি গঠিত হয়েছে। সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক এ দুটি পদের জন্য ভোট গ্রহন অনুষ্টিত হয়। ব্যালট প্রয়োগ করে তৃণমুলের নেতা-কর্মীরা ওয়ার্ড কমিটি গঠন করেছে। ২৯ জুন (শনিবার) সকাল ৯ টার দিকে সদর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্টিত হয়। ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি এম আজম খানের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ’লীগ সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) শাহনেওয়াজ চৌধুরী বিটু, সাধারণ সম্পাদক আবুল কাসেম, পেকুয়া উপজেলা পরিষদের (ভারপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম মিনু, সহ সভাপতি সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম, বশির মেস্ত্রী, সাংগঠনিক সম্পাদক ছৈয়দুল হক, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক খলিল মেস্ত্রী, শ্রমিক লীগ সভাপতি নুরুল আবছার, সাধারন সম্পাদক এস,এম শাহাদাত হোছাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির বিএ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি ওসমান গণি, সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, সদর ইউনিয়ন আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হেলাল উদ্দিন বিএ, ১ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, আ’লীগ নেতা জাকারিয়া সাবেক মেম্বার প্রমুখ। এ দিকে ত্রিবার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল অধিবেশনে ভোট গ্রহন হয়েছে। দুটি পদের জন্য ৬ জন প্রার্থী অংশ নেয়। সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে চেয়ার প্রতীক নিয়ে পুন:রায় সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন আ’লীগ নেতা নাছির উদ্দিন প্রকাশ নাছির মাঝি। তার নিকটতম প্রার্থী ছাতা প্রতীকের শওকতকে পরাজিত করেছেন। সাধারন সম্পাদক পদে প্রার্থী ছিলেন ৩ জন। মোহাম্মদ ওসমান গণি (ফুটবল) প্রতীক নিয়ে সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী জয়নাল আবদীন (কলসি) প্রতীককে পরাজিত করে নির্বাচিত হয়েছেন। ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি এম, আজম খান বলেন, নৌকার বিরোধীতাকারীদের চিহ্নিত করতে হবে। তাদেরকে যে কোন কমিটি ও নির্বাচনে বয়কট করা হবে। উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আবুল কাসেম জানায়, গঠনতন্ত্রের নির্দেশনা বাস্তবায়ন কাজ পেকুয়ায় চলমান রয়েছে। স্বচ্ছ কমিটি উপহার দিতে এ গণতান্ত্রিক পদ্ধতিকে অনুসরণ করা হচ্ছে। এখানে নেতৃত্বের জন্য প্রতিযোগিতায় নেতা-কর্মীরা অংশ নিয়েছে। তবে কেউ পরাজিত হননি। যারা ওয়ার্ড কমিটিতে ভোট করে হেরে গেছেন ইউনিয়ন ও উপজেলা কমিটিতে এদেরকে সঠিকভাবে মুল্যায়ন করা হবে।
পেকুয়ায় কিশোর কিশোরীদের নিয়ে কর্মশালা কর্মশালার ছবি
নিজস্ব প্রতিবেদক,পেকুয়া:
পেকুয়ায় কিশোর কিশোরীদের নিয়ে কর্মশালা অনুষ্টিত হয়েছে। লাইফ স্টাইল এবং হেলথ এডুকেশন ও প্রমোশন স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরো, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে কিশোর কিশোরীদের জন্য স্বাস্থ্য বার্তা ও এর করনীয় শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্টিত হয়েছে। ২৯ জুন (শনিবার) দুপুর ১২ টার দিকে পেকুয়া সরকারী মডেল জিএমসি ইনষ্টিটিউশনে এ কর্মশালা অনুষ্টিত হয়। বিদ্যালয়ের প্রচুর শিক্ষার্থী ও কিশোর কিশোরীরা ওই কর্মশালায় অংশ নেয়। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও আয়োজক কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরোর পেকুয়ার কো অর্ডিনেটর গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম হিরুর সঞ্চালনায় কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: মুজিবুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন গণমাধ্যম কর্মী সাংবাদিক রিয়াজ উদ্দিন, সাংবাদিক এফএম সুমন প্রমুখ। এ সময় বিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ কর্মচারী গণ উপস্থিত ছিলেন। সুত্র জানায়, লাইফ স্টাইল এবং হেলথ এডুকেশন ও প্রমোশনের মাধ্যমে কিশোর কিশোরীদের জন্য স্বাস্থ্য বার্তা শীর্ষক কর্মসুচী বাস্তবায়ন কার্যক্রম চালু করে। সারা দেশে এ কর্মসুচী বাস্তবায়ন হচ্ছে। বিভিন্ন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্টান সমুহে এ সচেতনতা মুলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন কাজ চলছে। কিশোর কিশোরীদের সচেতন করতে মুলত এ কর্মসুচী হাতে নেয়। সুত্র জানায়, হাত ধোয়ার জন্য সাবান ব্যবহার করা, হাঁচি ও কাশির সময় চোখ ঢেকে রাখতে হবে। সপ্তাহে একদিন হাত ও পায়ের নখ কাটা ও পরিষ্কার রাখা। স্কুলের শ্রেনীকক্ষে টয়লেট পরিস্কার ও পরিচ্ছন্ন রাখা, ময়লা আবর্জনা যথাস্থানে ফেলা, পুষ্টিকর খাবার খাওয়া, রাস্তার পার্শ্বে খোলা খাবার পরিহার করা, অল্প বয়সে বিয়ে করা থেকে নিজকে বিরত রাখা এবং অন্যদের উদ্বুদ্ধ করা, যৌন নির্যাতনের শিকার হলে অবশ্যই প্রতিকার চাইতে হবে। এ ধরনের নির্দেশিকাসহ করনীয় বিষয় নিয়ে ওই কর্মশালায় ছাত্র-ছাত্রীদেরকে গণ সচেতনতা তৈরীর দিকে দৃস্টিপাত করতে মুলত এ কর্মশালার মুল লক্ষ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রধান শিক্ষক ১১, সহকারী প্রধান ১২, সহকারীদের ১৩ গ্রেড আসছে

It's only fair to share...000নিজস্ব প্রতিবেদক :: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকদের গ্রেড পরিবর্তনের ঘোষণা আসছে। ...

error: Content is protected !!