Home » পার্বত্য জেলা » জামাল না কালাম ? আলীকদম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

জামাল না কালাম ? আলীকদম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

It's only fair to share...Share on Facebook492Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

লামা-আলীকদম প্রতিনিধি ::

আগামী ১৮ মার্চ ২য় দফায় ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ১২৯ টি উপজেলার মধ্যে রয়েছে বান্দরবানের আলীকদমও। এবারে চেয়ারম্যান পদে দ্বিমুখী লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন হেভিওয়েট দুই প্রার্থী জামাল উদ্দিন ও আবুল কালাম। ইতিমধ্যে মাঠ ঘাট চষে বেড়াচ্ছেন এই দুই প্রার্থী ও সমর্থকরা।

নির্বাচনে বিরোধী দল অংশ না নেওয়ায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জামাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটযুদ্ধে অংশ নিচ্ছে দুই বারের নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম।

অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ত্রিমূখি লড়ায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রার্থীরা। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন সাবেক দুইবার নির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিরিনা আক্তার, উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি এনুছা মার্মা ও বিউরি মার্মা। তিন জনের মধ্যে গণসংযোগ, প্রচার প্রচারণা ও জনসমর্থনেয় শিরিনা আক্তার অনেকটা এগিয়ে আছে।

এদিকে জামাল উদ্দিনেরও নের্তৃত্বের ক্যারিয়ার ততটা হালকা নয়। দীর্ঘদিন বান্দরবান ৩০০নং আসনের এমপি, পরবর্তী পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী’র প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সর্বোপরি আলীকদম সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন এই প্রার্থী। অবশেষে প্রায় অর্ধমেয়াদে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে এস্তফা দিয়ে নেমে পড়েছেন উপজেলা পরিষদের সোনার মুকুট জেতার লড়াইয়ে। উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের বিশটি ভোট কেন্দ্রের আলাদা আলাদা কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির মাধ্যমে প্রচারণার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আবুল কালাম বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা হওয়া সত্বেও দল নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় সতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচন পরিচালনা করতে হচ্ছে অনেকটা এক হাতেই। প্রচুর পরিমান সমর্থক থাকা সত্বেও দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে মাঠে নামতে পারছেনা নেতা কর্মীরা। তাহলে কে পরবে সেই সোনার মুকুট? এই প্রশ্নের জবাব মিলবে, শুধু মাত্র সময়ের অপেক্ষায়।

মুঠোফোনে কথা বলেছিলাম সতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম এর সাথে। তিনি বলেন আমি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করি। ভোটারদের প্রতি আমার আস্থা আছে। যার কারণে আলীকদমের জনগন আমাকে দুই বার ইউপি চেয়ারম্যান এবং দুই বার উপজেলা চেয়ারম্যান বানিয়েছে। এবারও যদি নির্বাচন অবাদ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হয় তাহলে আমি অনেক বড় ব্যবধানে নির্বাচিত হব।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকার প্রার্থী জামাল উদ্দিন বলেন, আমি বিশ্বাস করি জনগণ স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে ভোট দিবে। এখন পর্যন্ত আমরা যা সাড়া পেয়েছি, তা যদি শেষে পর্যন্ত ধরে রাখতে পারি তাহলে আমরা বিজয়ী হব ইনশাআল্লাহ। দীর্ঘদিন আলীকদম উপজেলা অভিভাবকশুণ্য ছিল। জনগন এখন বুঝতে শিখেছে। সুতরাং জনগণ সময়মত সঠিক সিদ্ধান্তে নেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চাকসু নির্বাচন নীতিমালা পর্যালোচনায় কমিটি

It's only fair to share...49200চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ::   চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (চাকসু) নির্বাচন ...

error: Content is protected !!