ঢাকা,শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

চট্রগ্রাম রেঞ্জে শ্রেষ্ট সার্কেল অফিসার হলেন চকরিয়ার মতিউল

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :বাংলাদেশ পুলিশ কক্সবাজারের সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয় সার্কেল) কাজী মোহাম্মদ মতিউল ইসলাম চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সার্কেল হিসেবে সম্মাননা পেয়েছেন। তিনি চকরিয়া-পেকুয়ার সার্কেল হিসেবে যোগ দেয়ার পর থেকে চিংড়ী জোনে চিহ্নিত ডাকাত ও সন্ত্রাস দমনের মতো একের পর এক দৃষ্টান্তমূলক কর্মকান্ড এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রেখে পুলিশ প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে যাচ্ছে। তার নেতৃত্বে দুই উপজেলার ২৫টি ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকায় মাদক, অস্ত্র উদ্ধার, ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সক্ষম হয়েছে দুই থানার পুলিশ। এরই প্রেক্ষিতে আগস্ট মাসে চট্রগ্রাম রেঞ্জের আওতাধীন ১৭ জেলার মধ্যে চকরিয়া সার্কেল বিভিন্ন ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকায় রেঞ্জের বেষ্ট সার্কেল অফিসার হিসেবে সম্মাননা দেয়া হয় সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয় সার্কেল) কাজী মোহাম্মদ মতিউল ইসলামকে।

সোমবার (১৭সেপ্টে¤॥^র ) দুপুর সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি অফিস সম্মেলন কক্ষ মিলনায়তনে চট্টগ্রাম রেঞ্জের মাসিক ক্রাইম কনফারেন্স (অপরাধ দমন) পর্যালোচনা সভায় শ্রেষ্ট সাকের্েল হিসেবে তাকে শ্রেষ্ঠত্বের সম্মাননা প্রদান করেন অনুষ্টানের সভাপতি ও চট্রগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক। তিনি আইন-শৃংখলা রক্ষা, অপরাধ দমন, অস্ত্র উদ্ধার, ট্রাফিক ফাইন জরিমানা আদায়সহ ১৩টি ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। চট্টগ্রাম রেঞ্জের মাসিক আইনশৃংখলা পর্যালোচনা বৈঠকেও পুরো চট্টগ্রামে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারে সেরা ওসি হিসেবেও স্বীকৃতি পেয়েছেন কক্সবাজারের টেকনাফ থানার ওসি রনজিত বড়ুয়া।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত ডিআইজি (প্রশাসন ও অর্থ) এস এম রোকনউদ্দিন, অতিরিক্ত ডিআইজি (অপারেশন অ্যান্ড ক্রাইম) মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ, কক্সবাজার জেলার সদ্য বিদায়ী পুলিশ সুপার ড. এ কে এম ইকবাল হোসেন, নবাগত পুলিশ সুপার মাসুদ হোসেনসহ সকল ১৭জেলার পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, রেঞ্জের আওতাধীন সকল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি), বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

চট্রগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ট সার্কেল হিসেবে সম্মাননা দেয়ায় কক্সবাজার সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মোহাম্মদ মতিউল ইসলাম এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ভাল কাজের স্বীকৃতি সব সময় আনন্দের। এ কৃতিত্ব আমার একার নয়। দুই থানার দায়িত্বরত সকল পুলিশ অবদান রয়েছে। এতে জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকসহ সকল স্তরের মানুষের সার্বিক সহযোগীতায় আজকের এ প্রাপ্তি। সামনের পথচলায় শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতি ও সম্মাননা আজীবন আমার কর্মের পাথেয় হয়ে থাকবে। ###

পাঠকের মতামত: