Home » চকরিয়া » টইটংয়ে পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের অভিযোগ

টইটংয়ে পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের অভিযোগ

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া ::

পেকুয়া উপজেলার টইটংয়ে রাতের আঁধারে দুইটি পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের ঘটনা ঘটেছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অজ্ঞাত দুবৃর্ত্তরা খামারীর পুকুরে কীটনাশক প্রয়োগ করেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ক্ষতিগ্রস্থ পুকুর মালিকের পরিবার। একইসাথে পুকুর পাড়ের পেঁপে বাগানেও দুবৃর্ত্তরা লবণ প্রয়োগ করেছে। বুধবার রাতে ইউনিয়নের ভেলুয়ারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী পক্ষের অভিযোগে জানা গেছে, ইউনিয়নেরা ভেলুয়ারপাড়া গ্রামে তোফাইল আহমদ নামের এক যুবক এবছর দুটি পুকুরে বানিজ্যিক ভিত্তিতে মাছের চাষ করেছে। প্রায় চারমাস আগে ৩৬ শতক আয়তনের দুইটি পুকুরে তোফাইল চলতি মৌসুমে তেলাফিয়া মাছের পোনার অবমুক্ত করেন। উচ্চ ফলনশীল জাতের তেলাফিয়া চাষে ওই যুবক পরিচর্যাসহ বিপুল অর্থ ব্যয় করেছে। বর্তমানে পুকুরে মাছ বিক্রি উপযোগী পরিপক্ক হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্থ পুকুর মালিক তোফাইল আহমদ জানান, বুধবার রাতে অজ্ঞাত দুবৃর্ত্তরা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করেছে। একই সময়ে তাঁরা পুকুর পাড়ে সৃজিত পেঁপে বাগানে লবণ প্রয়োগ করে। এতে বিপুল পরিমাণ পেঁপে গাছ লালছে হয়ে বিবর্ণ হয়ে গেছে। তোফাইল জানায়, সকালে পুকুরে বিপুল পরিমাণ মাছ মরে ভেসে উঠছিল। কী কারনে ঘটনা উৎঘাটনকালে নাইট্রো নামক কীটনাশকের একটি বোতল পুকুর পাড়ে পাওয়া গেছে।

তোফাইল আহমদের স্ত্রী পারভীন আক্তার জানায়, শত্রুতা মুলক প্রতিহিংসার জেরে রাতের আধাঁরে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা আমাদের পুকুরে বিষ প্রয়োগ করেছে। আমার স্বামী জায়গা ক্রয় করে পুকুর খনন করছিল। বেকারত্ব দুরীভূত করতে মাছ চাষ ও পুকুর পাড়ে পেঁপে চাষসহ সবজি চাষ করছিলেন।

কিন্তু আমার স্বামীর আর্থিক উন্নতি সহ্য করতে না পেরে রাতের আধাঁরে দুর্বৃত্তরা বিষ প্রয়োগ করে আমাদের সর্বনাশ করেছে। আমার স্বামীর প্রায় দুই লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে।

পারভীন আক্তার অভিযোগ করেছেন জানায়, কিছুদিন ধরে তোফাইলের সঙ্গে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে প্রতিবেশী ইউনুছ, কামাল, আবু জাফর, রুহুল কাদের গংয়ের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে মামলা মোকদ্দমা রয়েছে। আমার সন্দেহ তারাই সেটি করতে পারে।

টইটং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ঘটনাটি শুনে আসলে আমি বিষয়টি গভীরভাবে যাচাই বাছাই করছি। আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে ঘটনাস্থলে যাওয়ার কথা ছিল। তবে ব্যস্ততার কারনে যাওয়া হয়নি।

ক্ষতিগ্রস্থ পুকুর মালিক তোফাইল আহমদ জানান, এ ঘটনায় তিনি আইনের আশ্রয় নিচ্ছেন। এব্যাপারে প্রস্ততি চলছে। #

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

৫৭-র চেয়ে ৩২ বড়ই থাকল, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস

It's only fair to share...23500নিজস্ব প্রতিবেদক ::  সাংবাদিক ও মানবাধিকার সংগঠনসহ বিভিন্ন মহলের আপত্তি থাকলেও ...