Home » কক্সবাজার » পেকুয়ায় দরিদ্রের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ!

পেকুয়ায় দরিদ্রের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ!

It's only fair to share...Share on Facebook410Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া ::

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় দরিদ্রের মাঝে মানণীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার বিতরণের লক্ষ্যে তালিকা তৈরীতে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির আশ্রয় নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। পেকুয়া উপজেলার সাত ইউনিয়নে তালিকা তৈরীতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এ অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন। এদিকে অনিয়মে ও স্বজনপ্রীতিতে ভরপুর তালিকা কক্সবাজার জেলা ত্রাণ অফিস প্রেরণের জন্য তোড়জোড় শুরু করেছে পেকুয়ার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) সৌভ্রাত দাশ।

এ প্রসঙ্গে জানতে ৭ জুন বিকালে পিআইওর সাথে বিকালে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সাত ইউনিয়নের চেয়ারম্যানেরা তালিকা প্রস্তুত করে তার দফতরে জমা দিচ্ছে। জনপ্রতিনিধিরা তালিকা তৈরীতে অনিয়ম করলে তার করার কিছুই নাই। তিনি আরো জানান, মাঠ পর্যায়ে এসব তালিকা যাচাই-বাচাই করার সময় তার নাই।

এদিকে দরিদ্রদের তালিকা তৈরীতে ব্যাপক অনিয়ম, স্বজনপ্রাতির আশ্রয় নিয়েছে তালিকা তৈরীতে জড়িত সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণসহ পুনরায় যাচাই করে তালিকা প্রস্তুত করার জন্য আজ ৭ জুন দুপুরে পেকুয়ার ইউএনওর কাছে মৌখিকভাবে অভিযোগ করেছেন রাজাখালী ইউনিয়ন পরিষদের কয়েকজন ইউপি সদস্য। জানা গেছে, অধিকাংশ ক্ষেত্রে পেকুয়ার সাত ইউনিয়নের তালিকায় দরিদ্রদের অন্তর্ভূক্ত না করে স্বচ্ছল ও চেয়ারম্যান-মেম্বারদের ঘনিষ্টজনদেরকে তালিকায় রাখা হয়েছে। সেই স্বজনপ্রীতির তালিকা আবার পেকুয়ার পিআইও কক্সবাজার জেলা ত্রাণ অফিসে প্রেরণের জন্য তোড়জোড় শুরু করেছে। মানণীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে বিতরণের লক্ষ্যে পেকুয়ায় তালিকা তৈরীতে নজিরবিহীন অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির আশ্রয় নেওয়া হলেও স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখনো কোন ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। এ নিয়ে স্থানীয় এলাকাবাসীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী, পেকুয়া, মগনামা ও শিলখালী ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরা বেশিরভাগ দরিদ্রদের তালিকায় অন্তর্ভূক্ত না করে স্বজল ও জনপ্রতিনিধিদের আত্মীয়-স্বজন ও তাদের ঘনিষ্টদের নাম অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। উজানটিয়া ও টইটং ইউনিয়নেও একই কায়দায় অনিয়মের মাধ্যমে তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

তবে মগনামা ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ ইউপি সদস্য মো: আলমগীর জানিয়েছেন, তার ইউনিয়নের তালিকা তৈরীতে কোন ধরনের অনিয়মের আশ্রয় নেওয়া হয়নি।

এ প্রসঙ্গে কক্সবাজার জেলার ত্রাণ ও পূর্নবাসন কর্মকর্তা মো: রইস উদ্দিন মুকুলের মুঠোফোনে আজ ৭ জুন সন্ধ্যা ৭টা ১৭ মিনিটের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি এ প্রতিবেককে বলেন ‘অধিদপ্তরের ডিজি স্যারের স্পষ্ট নির্দেশ রয়েছে প্রকৃত দরিদ্রদের তালিকায় নাম অন্তর্ভূক্ত করা। পেকুয়ায় তালিকা তৈরীতে অনিয়মের বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি পিআইকে জানাবেন। তালিকা তৈরীতে অনিয়ম হলে অবশ্যই জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীকে অব্যাহতি

It's only fair to share...41000সিএন ডেস্ক :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া চার ...

error: Content is protected !!