Home » কক্সবাজার » লোহাগাড়ায় স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে রাসুল (সাঃ) কে নিয়ে কটুক্তির অভিযোগ

লোহাগাড়ায় স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে রাসুল (সাঃ) কে নিয়ে কটুক্তির অভিযোগ

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

ঘটনা তদন্তে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করেছে ইউএনও

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া ::

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মাষ্টার নোমান শফির বিরুদ্ধে রাসুল (সা:) কে নিয়ে কটুক্তির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ভিক্ষোভ-প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে পড়েছে লোহাগাড়া উপজেলা। রাসুল (সা:) কে নিয়ে কটুক্তিকারী নোমান শফির বাড়ি কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার পেকুয়া সদর ইউনিয়নের চৈরভাঙ্গা গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মাষ্টার মোহাম্মদ শফির পুত্র। মাষ্টার নোমান শফি চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদানের পূর্বে পেকুয়া উপজেলার বারবাকিয়া ফাজিল মাদ্রাসার গণিত বিষয়ের শিক্ষক পদে কর্মরত ছিলেন।

এদিকে ঘটনা তদন্তে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুব আলম ১৫ ফেব্রেুয়ারী তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। কমিটির প্রধান করা হয়েছে লোহাগাড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে। ইউএনও মাহবুব আলম ১৫ ফেব্রেুয়ারী রাতে এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন, গঠিত তদন্ত কমিটি প্রকৃত ঘটনা তদন্ত করে আগামী ৫ দিনের মধ্যে তার কাছে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। তদন্তের মাধ্যমে দোষী সাব্যস্থ প্রমাণিত হলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গত তিন ধরে লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক নোমান শফি কর্তৃক রাসুল (সা:) কে নিয়ে কটুক্তির জের ধরে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা গেছে. গত ১৩ ফেব্রেুয়ারী বিদ্যালয়ের শ্রেণী কার্যক্রম চলাকালে মাষ্টার নোমান শফি হযরাত মুহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন। এরপর ক্ষোভে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পরে খবর পেয়ে লোহাগাড়া থানার পুলিশ বিদ্যালয়ে এসে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাসে পরিস্থিতি শান্ত করেন। ঘটনার পর ১৪ ফেব্রেুয়ারী সকাল ১০টা ৫৯ মিনিটে চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র মো: জাহেদ তার ব্যক্তিগত ফেসবুকে বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্টাটাস লিখে মাষ্টার নোমান শফির ছবিসহ পোস্ট করেন। মুহুর্তের মধ্যেই তার লেখা স্টাটাস ও ছবি ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। লোহাগাড়ার সর্বত্রে প্রতিবাদ শুরু হয়।

চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র জাহেদের ফেসবুক পোস্টটি হুবুহু তুলে ধরা হলো ‘‘চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান সহকারী প্রধান শিক্ষক জনাব নোমান শফি আমাদের রাসুল (সঃ) কে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন আমাদের রাসুল (সঃ) নাকি উলঙ্গ ভাবে চলাফেরা করতেন। তাছাড়া তিনি সকল ছাএ/ছাএীদের সাথে অত্যন্ত খারাপ ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলতেন। আমরা যখন এর প্রতিবাদ করি তখন আমাদের বর্তমান প্রধান শিক্ষক নাজিমুদ্দিন মোহাম্মদ (বাবর) আমাদের বিভিন্ন রকম এর চাপাচাপি ও হুমকি দেন। সুতরাং আমরা তার কঠুর শাস্তি এবং জুতার মালা গলায় দিয়ে চুনতি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে পদ ত্যাগ চাই। আগামীকাল ১৫/০২/২০১৮ ১০ঘটিকার সময় চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ে এর রায় ঘোষণা করা হবে। আমরা আপনাদের সকলের উপস্থিতি কামনা করি।’’

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মাষ্টার নোমান শফির সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে এসব ষড়যন্ত্র। তিনি রাসুলকে নিয়ে কোন ধরনের কটুক্তি করেননি।

লোহাগাড়ার ইউএনও মাহবুব আলম জানান, চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের ঘটনা নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামছে সেনা, সঙ্গে থাকবে ম্যাজিস্ট্রেট

It's only fair to share...41600ডেস্ক নিউজ :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ও পরে সশস্ত্র ...

error: Content is protected !!