ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট ২০২১

ব্রীজ থেকে মাটি সরিয়ে দিয়ে গাড়ী চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে প্রভাবশালীরা

নিউজ ডেস্ক :: ব্যক্তি স্বার্থে ব্রীজ থেকে মাটি সরিয়ে নিয়ে গাড়ী চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে প্রভাবশালী। শহরের খুরুশকুল ব্রীজের পাশ দিয়ে শহরের উত্তর রুমালিয়ারছড়া যাওয়ার রাস্তায় জোনাকী বরফ কলের পাশে থাকা দীর্ঘ দিনের পুরানো ব্রীজের নীচ থেকে মাটি সরিয়ে নিয়ে গাড়ী চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। এতে প্রধান সড়কের উপর চাপ বাড়ছে অন্যদিকে উত্তর রুমালিয়ারছড়া সহ বিভিন্ন এলাকার মানুষজন নানানভাবে চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে। দ্রুত বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মাঝিরঘাট ব্রীজ হয়ে উত্তর রুমালিয়ারছড়া দিয়ে ভোকেশনাল স্কুল এন্ড কলেজের সামনে প্রধান সড়কে আসার রাস্তাটি এক সময় বেশ ব্যস্ত থাকলেও বর্তমানে তা অকেজো হয়ে পড়ে আছে। তার অন্যতম কারণ হচ্ছে এই রাস্তায় পূর্বের জোনাকী বরফ কলের পাশে থাকা ছোট ব্রীজ দিয়ে কোন ৩ বা ৪ চাকার গাড়ী পারাপার হতে পারেনা। স্থানীয়দের দাবী দেলোয়ার নামের এক প্রভাবশালী বেশ কয়েক মাস আগে ব্রীজের নীচ থেকে মাটি কেটে দিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। তাই এই রাস্তা দিয়ে গাড়ী চলাচল করতে পারেনা। আলাপকালে শাহআলম নামের একজন জানান, এই রাস্তাটি তেমন ব্যবহার হয় না। কারণ এখানে আগে রাস্তা ছিল কাদামাটির। বর্তমানে কিছুটা শুকনো আছে তবে ব্রীজের নীচ থেকে মাটি সরিয়ে ফেলায় সিএনজি, টমটম, মিনিট্রাক সহ কোন গাড়ী পার হতে পারেনা। কোনমতে মটর সাইকেল পার হতে পারে।

তিনি জানান, স্থানীয় সবুর সওদাগরের ছেলে দেলোয়ার রাস্তাটি বন্ধ করে দিয়েছে। এখানে তার কথায় সব কিছু চলে। আরো কয়েক জনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এই রাস্তায় গাড়ী চলাচল করলে তাদের অনেক অসুবিধা হবে। কারণ তারা জাল বুনা, বোট তৈরি সহ নানান কর্মকান্ড করে থাকে রাস্তাজুড়ে। আর যে ব্রীজের মাটি তিনি সরিয়েছে তা সম্পূর্ণ অবৈধ কাজ। সরকারি রাস্তা কখনো ব্যক্তি বন্ধ করতে পারেনা।

এদিকে উত্তর রুমালিয়ারছড়ার আবছার, আনিসুল হক সহ অনেকে বলেন, বর্তমানে প্রধান সড়ক সহ বিভিন্ন সড়কের কাজ চলছে, সে কারণে প্রায় সময় রাস্তায় দীর্ঘ যানজট লেগে থাকে। বিশেষ করে তারাবনিয়ারছড়া হয়ে হাশেমিয়া মাদ্রাসা পর্যন্ত নরক যন্ত্রনা। যদি কিছু ছোট গাড়ী যেমন, সিএনজি, মটর সাইকেল, টমটম খুরুশকুল ব্রীজের পাশ হয়ে ভোকেশনাল স্কুলের সামনে রাস্তা বের হতে পারে তাহলে এই নরক যন্ত্রনা থেকে কিছুটা স্বস্থি পাবে মানুষ। সেখানে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে রাখা গুরুতর অপরাধ। এভাবে প্রভাব বিস্তার করে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া খুবই অন্যায়।

এতে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে তাই বিষয়টি দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। এ ব্যাপারে কক্সবাজার পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার শাহাবুদ্দিন সিকদার বলেন, জনগণের সম্পত্তি কোন ব্যক্তি বন্ধ করতে পারেনা। আর রাস্তা বন্ধ করাটা খুবই অন্যায়। আমি কালকে গিয়ে বিষয়টি দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

পাঠকের মতামত: