ঢাকা,মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১

প্রতিনিয়ত হেনস্থার শিকার নারীরা, আতংকে ব্যবসায়ীরা

চকরিয়ায় বিপনি বিতানের অলিগলিতে কিশোর গ্যাং

স্টাফ রিপোর্টার, চকরিয়া ::  কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরশহরের বিভিন্ন শপিংমলে কিশোর গ্যাংয়ের উপদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে। এদের কর্মকান্ডে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে শুরু করে রাত ১০টা পর্যন্ত এদের আনাগোনা সবচেয়ে বেশি থাকে।

চকরিয়া পৌরশহরের আনোয়ার শপিং সেন্টার, সুপার মার্কেট, নিউ মার্কেট, ওয়েস্টার্ণ প্লাজা, রুপজাহান প্লাজাসহ বিভিন্ন মার্কেটের অলিগলিতে দাঁড়িয়ে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা আড্ডা দিতে দেখা যায়।

মার্কেটের একজন দোকানদাররা জানান, সোমবার সকাল ১০টার দিকে তিন স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী মার্কেটে ঢুকে। এদের পেছনে কিশোর গ্যাংয়ের তিন সদস্য পিছু নেয়। স্কুল ছাত্রীরা কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যদের কাছ থেকে বাঁচতে দিকবিদিক ছোটাছুটি করতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা একটি দোকানে বাজার করতে যায়, কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরাও ওই দোকানে ভিড় করে। এতে ওই ছাত্রীরা ভীত হয়ে পড়েন।

এভাবে প্রতিদিন কোননা কোনভাবে স্কুল ছাত্রী ও সাধারণ নারীরা তাদের কাছে হেনস্থার শিকার হয়। ভয়ে তাদের ব্যাপারে কেউ মুখ খুলতে নারাজ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী বলেন, মার্কেটের কোনায় ও অলিগলিতে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দাঁড়িয়ে থাকে প্রায় সময়। কোন স্কুল ছাত্রী ও নারী মার্কেটিং করতে আসলে ওরা তাদের পিছু নেয়। এমনকি অশালিন মন্তব্যও ছুটে ওই নারীদের প্রতি। সুযোগ পেলে তাদের ব্যাগ থেকে মোবাইল ও টাকা ছিনিয়ে নেয় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা।

ওই কিশোর গ্যাংয়ের এলাকাভেদে বড় ভাই রয়েছে। কোন সমস্যা হলে বড় ভাই এসব সমাধান করেন। এমনকি অনেক বড় ভাই ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের নেতা ।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের চকরিয়া নিউজকে বলেন, কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ দিলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। থানায় কোন কিশোর গ্যাংয়ের তালিকা না থাকায় তাদের ধরা যাচ্ছেনা। স্থানীয় লোকজন সহায়তা করলে এদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া সহজ হবে।

পাঠকের মতামত: