ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১

মগনামায় উপকূলের শীর্ষ সন্ত্রাসী বাহিনীর বেপরোয়া গুলি বর্ষণ, দুই ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধ

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া ::  কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নে উপকূলীয় এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী, কয়েক ডজন মামলার আসামী আবু ছৈয়দের নেতৃত্বে তার বাহিনীর বেপরোয়া গুলি বর্ষণে দুই ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধসহ তিনজন আহত হয়েছে। ২ মে (রোববার) রাত সাড়ে ৮টার দিকে পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের ফুলতলা স্টেশনে উক্ত রক্তক্ষয়ী ঘটনা সংগঠিত হয়।

এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহতরা হলেন, উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের আফজলিয়া পাড়া গ্রামের নুরুন নবীর পুত্র ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদীন (৪৫), একই গ্রামের মরহুম রুস্তম আলীর পুত্র ব্যবসায়ী আলী আকবর (৪৩) ও নুর মোহাম্মদের মেয়ে রিফা আকতার (২৬)। আহতদের মধ্যে জয়নাল আবেদীন ও আলী আকবরের অবস্থা আশংকাজনক। এই দুইজনের শরীরের একাধিক স্থানে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর জখম হয়েছে। তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য রাত সাড়ে ৯টার দিকে পেকুয়া সরকারী হাসপাতাল থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেকে) রেফার করা হয়েছে।

এদিকে খবর পেয়ে পেকুয়া থানার ওসি সাইফুল ইসলাম মজুমদারের নেতৃত্বে একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত (রাত ১১টা) দুই ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসী আবু ছৈয়দ ও তার বাহিনীর কোন সন্ত্রাসীকে আটক করতে পারেনি পেকুয়া থান পুলিশ।

স্থানীয় এলাকাবাসী, প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ২মে (রোববার) রাত সাড়ে ৮টার দিকে মগনামা ফুলতলা স্টেশনের একটি দোকানে জয়নাল ও আলী আকবরসহ কয়েকজন বসে নাস্তা করেছিলেন। এসময় অতর্কিতভাবে উপকূলের শীর্ষ সন্ত্রাসী, কয়েক ডজন মামলার আসামী ও মগনামা আফজলিয়া পাড়া গ্রামের আবু ছৈয়দের নেতৃত্বে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী জয়নাল আবেদীন ও আলী আকবরকে লক্ষ্য করে বেপরোয়া গুলি বর্ষণ শুরু করে। গুলি বর্ষণের এক পর্যায়ে জয়নাল ও আলী আকবর গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এসময় মগনামা ফুলতলা স্টেশনের আতংক ছড়িয়ে পড়ে। ফুলতলা স্টেশনের ব্যবসায়ীরা দোকান পাট বন্ধ করে দেয়। পরে খবর পেয়ে মগনামা আফজলিয়া পাড়া গ্রাম থেকে শত শত নারী পুরুষ একজোড় হয়ে ফুলতলা স্টেশনে এসে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় জয়নাল আবেদীন ও আলী আকবরকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে পেকুয়া সরকারী হাসপাতালে নিয়ে আসে।

গুলিবিদ্ধ দুই ব্যবসায়ীর পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে এ প্রতিবেদককে বলেন, সন্ত্রাসী আবু ছৈয়দের নেতৃত্বে হত্যকান্ড সংগঠিত করবার জন্য পরিকল্পিতভাবে এই বেপরোয়া হামলা চালানো হয়েছে।

মগনামা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আবদুর রহিম জানান, সন্ত্রাসী আবু ছৈয়দের অত্যাচার ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপে মগনামার জনগণ অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। আজকের ঘটনাটি খুবই জঘন্য। ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদীন ও আলী আকবরকে হত্যা করার জন্য পরিকল্পিতভাবে আবু ছৈয়দের নেতৃত্বে গুলি বর্ষণ করা হয়েছে। তারা এ ঘটনায় সন্ত্রাসী আবু ছৈয়দসহ হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার দাবি করেন।

মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম বলেন, সন্ত্রাসী আবু ছৈয়দের নেতৃত্বে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের অত্যাচারে স্থানীয়রা দিশেহারা। মগনামায় কোন সন্ত্রাসী ও অস্ত্রধারীকে প্রশ্রয় দেওয়া হবেনা। অনতিবিলম্বে মগনামা ফুলতলা স্টেশনে গুলি বর্ষণ করে দুই ব্যবসায়ীকে হত্যা চেষ্টা করার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

পেকুয়া থানার ওসি সাইফুল ইসলাম মজুমদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পাঠকের মতামত: