ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১

প্লাস্টিকের বস্তায় বিয়ার, ট্রাউজারের পকেটে মিললো ইয়াবা

ইমাম খাইর, কক্সবাজার ::
রামুর চেইন্দা এলাকায় চেকপোস্টে ১৭ ক্যান বিয়ার এবং ২৩০ ইয়াবাসহ ৩ জন মাদক কারবারীকে আটক করেছে র‌্যাব। এ সময় তাদের ব্যবহারের একটি মোটর সাইকেলও জব্দ করা হয়েছে।

আটকরা হলেন- উখিয়া হলদিয়া পালং ২ নং ওয়ার্ডের পাগলিরবিল এলাকার নুরুল আলমের ছেলে সৈয়দুল হক (২৭), মো. হোসেনের ছেলে আহম্মদ কবীর (৩৬) এবং মরিচ্যা এলাকার কাদির হোসেনের ছেলে মোঃ সালাউদ্দিন (২৫)।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তার দেয়া তথ্য মতে, কতিপয় মাদক কারবারী মোটরসাইকেলযোগে মাদকদ্রব্যসহ উখিয়া থেকে কক্সবাজারের দিকে যাচ্ছেÑএমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউপিস্থ চেইন্দা ইন্টারন্যাশনাল এ্যামাউজমেন্ট পার্ক এ্যান্ড রিসোর্টের সামনে টেকনাফ-কক্সবাজার প্রধান সড়কের উপর চেকপোস্ট স্থাপন করে তল্লাশী অভিযান চালায়। তল্লাশীর একপর্যায়ে মোটরসাইকেলটি চেকপোস্টের সামনে পৌঁছলে তিন ব্যক্তিকে থামতে বললে মোটরসাইকেল ফেলে কৌশলে পালিয়ে যেতে চায়। এ সময় তাদের আটক করা হয়।

পালানোর কারন জিজ্ঞাসা করলে তিন ব্যক্তি জানায়, তাদের নিকট মাদকদ্রব্য ইয়াবা ও বিয়ার আছে। পরবর্তীতে তাদের সঙ্গে থাকা প্লাস্টিকের বস্তা তল্লাশী করে ১৭ ক্যান বিয়ার এবং একজনের দেহ তল্লাশী করে ট্রাউজারের পকেট হতে ২৩০টি ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীগণ স্বীকার করে যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য টেকনাফের সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রয় করে আসছে।

পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে আটক তিনজনকে রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান র‌্যাবের সহকারী পরিচালক (মিডিয়া এন্ড অপারেশনস) ও সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী।

পাঠকের মতামত: