ঢাকা,সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩

কক্সবাজারে ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে তর্ক, প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ২

কক্সবাজার প্রতিনিধি :: কক্সবাজার শহরে ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে তর্কের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় দুই যুবক নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১১টায় শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালসংলগ্ন লারপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন লারপাড়া এলাকার নুরুল হুদার ছেলে সাইদুল ইসলাম (৩১) এবং একই এলাকার আব্দুল হামিদের ছেলে কায়সার হামিদ (২৮)। এ ঘটনায় আহত ব্যক্তি হলেন মুফিজ উদ্দিন (২১)। তিনি একই এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে। তাঁকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. নাজমুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহতের স্বজনদের বরাতে তিনি বলেন, ‘প্রতিদিনের মতো রাতে লারপাড়ায় স্থানীয় যুবকেরা ব্যাডমিন্টন খেলছিলেন। খেলার একপর্যায়ে অংশগ্রহণকারী দুজনের মধ্যে তর্ক হয় এবং কিছুক্ষণ পর উভয় পক্ষ খেলার কোর্ট থেকে চলে যায়। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে উভয় পক্ষ সংঘবদ্ধ হয়ে লাঠিসোঁটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়ায়। এতে কয়েকজন আহত হন। আহতদের মধ্যে স্থানীয়রা তিনজনকে উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন।’

নিহত সাইদুল ইসলামের ছোট ভাই মনিরুল ইসলাম জানান, ব্যাডমিন্টন কোর্ট থেকে চলে আসার পর বড় ভাই সাইদুলসহ তাঁরা কয়েকজন একটি দোকানের সামনে কথা বলছিলেন। এ সময় স্থানীয় জয়নাল আবেদীন, তাঁর ভাই আতিক হোসেন ও কামাল হোসেন, মিজানুর রহমানসহ আরও কয়েকজন এসে সাইদুলের সঙ্গে আবারও তর্কে জড়ান।

মনিরুল জানান, তর্কের একপর্যায়ে তাঁরা লাঠিসোঁটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালান। এতে বড় ভাই সাইদুল ইসলামসহ তিনজন গুরুতর আহত হন। তাঁদের মুমূর্ষু অবস্থায় সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়।

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরএমও) আশিকুর রহমান বলেন, ‘হাসপাতালে আনার আগেই অতিরিক্ত রক্তক্ষরণজনিত কারণে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। অপরজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাঁর অবস্থাও আশঙ্কাজনক।’

সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক নাজমুল হক জানান, লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

পাঠকের মতামত: