ঢাকা,সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩

যুবককে খুন করে গরু লুট

রামু (কক্সবাজার) প্রতিনিধি ::
কক্সবাজারের রামুতে মীর কাশেম (৩২) নামে এক যুবককে হত্যা করে ২টি গরু লুট করেছে ডাকাত দল। মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ৩টার দিকে রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের অফিসেরচর চরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মীর কাশেম (৩২) ওই এলাকার মৃত নিয়ামত আলীর ছেলে।

লুট হওয়ার গরুগুলোর মালিক মোহাম্মদ আলী জানান- রাত ৩টার দিকে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল তার গোয়াল ঘরে থাকা ৭টি গরু নিয়ে যায়। তার মেয়ে রাতে দেখতে পান গোয়ালঘর খালি। এ সময় বাড়িতে থাকা জামাতা ফারুকসহ পরিবারের সদস্যরা ছোটাছুটি শুরু করেন। প্রধান সড়কে গিয়ে দেখতে পান ডাকাত দল ৭টি গরু গাড়ি তুলতে শুরু করেছে। পরে তারা লুট করা গরুগুলো ডাকাত দলের কবল থেকে কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা চালান। এ সময় ডাকাত দল ফারুককে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ায় প্রাণে রক্ষা পান ফারুক।

তিনি আরও জানান- নিহত মীর কাশেম তার ভাতিজা। রাতে ঘটনার পর থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। সকালে স্থানীয়রা মীর কাসেমের লাশ পার্শ্ববর্তী সবজি ক্ষেতে দেখতে পান। রাতে ডাকাতির সময় মীর কাশেম দেখে ফেলায় ডাকাতরা তাকে শারীরিক নির্যাতন চালায় এবং হাত-পা-মুখ বেঁধে সেখানে ফেলে যান। গরু লুট করতে আসা ডাকাতরাই মীর কাশেমকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে।

তিনি জানান- মীর কাশেমের মৃতদেহের দুই হাত পেছনে, মুখ, চোখ এবং পা জোড়া বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায়। সকালে রামু থানার ওসি (তদন্ত) অরুপ কুমার চৌধুরী ঘটনাস্থলে যান। পুলিশ মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জাফর আলম জানান, রাতে গরু ডাকাতির সময় মীর কাশেম দেখে ফেলে। মীর কাশেম মানসিক ভারসাম্যহীন। সে অপরিচিত লোকজন দেখলে চিল্লাচিল্লি করে। তাছাড়া গভীর রাতে হওয়ায় সে হয়তো চিৎকার দিতে চেয়েছিল। এজন্য ডাকাতরা তাকে মারধর এবং হাত-পা-মুখ বেঁধে হত্যা করেছে।

মোহাম্মদ আলীর জামাতা ফারুক জানান, গরুগুলো গাড়িতে তোলার সময় দুজন ডাকাত তাকে মারধর শুরু করে এবং তাকেও বেঁধে রাখার চেষ্টা চালায়। এ সময় তিনি একজনকে ধরে রাখলে আরও ৪ জন ডাকাত এসে তাকে মারধর করে এবং একপর্যায়ে তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে তিনি প্রাণে রক্ষা পান। পরে বড় সাইজের দুটি গরু নিয়ে ডাকাত দল গাড়িযোগে সটকে পড়ে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল হোসাইন জানান, মীর কাশেম মানসিক রোগী ছিলেন। গরু ডাকাতি হয়েছে রাতে আর তার মৃতদেহ পাওয়া গেছে সকালে। বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করছে।

পাঠকের মতামত: