ঢাকা,সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩

ঘুষ না দেওয়ায় যুবককে চুরির মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ

পেকুয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি :: কক্সবাজারের পেকুয়ায় ১০ হাজার টাকা ঘুষ না দেওয়ায় ইয়াকুব নবী নামের এক যুবককে চুরির মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে এসআইয়ের বিরুদ্ধে। ইয়াকুব উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারাইয়াকাটা এলাকার ওবায়দুল হাকিমের ছেলে।

এ ঘটনায় রোববার ইয়াকুবের বোন খালেদা বেগম কক্সবাজার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগে খালেদা বেগম বলেন, গত ৫ জানুয়ারি পেকুয়া থানার এসআই অমর চন্দ্র বিশ্বাস বারাইয়াকাটা খালেকের চায়ের দোকান থেকে ইয়াকুবকে তুলে নিয়ে যান। ওইদিন থানায় গিয়ে ইয়াকুবকে ধরে নিয়ে যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে তাকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। কিছুক্ষণ পর এসআই অমর বিশ্বাস থানার ক্যান্টিনের পাশে আমাকে ডেকে নিয়ে এক ঘণ্টার মধ্যে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দিতে বলেন। অন্যথায় আমার ভাইকে চুরির মামলায় ফাঁসিয়ে জেলে পাঠানোর হুমকি দেন।
তিনি আরও উল্লেখ করেন, টাকা দিতে না পারায় পেকুয়া সদর ইউনিয়নের শেখের কিল্লা ঘোনা এলাকার চুরির মামলায় আসামি বানিয়ে ইয়াকুবকে জেলে পাঠানো হয়। অথচ ওই মামলার বাদীও ইয়াকুবের ব্যাপারে কিছুই জানেন না

মামলার বাদী হালিমা বেগম বলেন, গত ৬ ডিসেম্বর তার বাড়িতে চুরি হয়। ১০ ডিসেম্বর পেকুয়া থানায় অভিযোগ দিই। সেখানে নির্দিষ্ট করে কাউকে আসামি করা হয়নি। এখন শুনছি সেই মামলায় বারাইয়াকাটা এলাকার ইয়াকুব নামের এক ছেলেকে জেলে পাঠানো হয়েছে।

অভিযোগ অস্বীকার করে এসআই অমর চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, ইয়াকুব একজন চিহ্নিত চোর। শেখের কিল্লা ঘোনা এলাকায় চুরির ঘটনায় তার সম্পৃক্ততা পেয়েই তাকে আসামি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) রফিকুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাঠকের মতামত: