ঢাকা,রোববার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১

মাঠে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ১ হাজার ২৪৯ প্রার্থী

জেলায় ১৪ চেয়ারম্যানসহ ৭৩ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ::  ভোটের বাজার চরমে। চলছে ভোট টানার নানাকৌশল। এরই মাঝে মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে ৭৩ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এরমধ্যে ১৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ৩ জন সংরক্ষিত আসনের সদস্য প্রার্থী এবং ৫৬ জন সাধারণ সদস্য প্রার্থী। প্রত্যাহার শেষে ২১ ইউনিয়নে প্রার্থীর সংখ্যা ১২৪৯ জন দাঁড়ালো। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এস এম শাহাদাত হোসেন গতকাল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে ৭৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা উপজেলা ভিত্তিক চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ও সংখ্যা হল কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৪ জন, রামু উপজেলায় ৮ জন এবং উখিয়া উপজেলায় ২ জন।
সদরে মনোনয়ন প্রত্যাহার করা চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন পিএমখালীর আব্বাস উদ্দিন, খুরুস্কুলের শহীদুল ইসলাম, চৌফলদন্ডীতে ছৈয়দুল করিম ও বেলাল উদ্দিন।
রামু উপজেলার ৮ জন হলেন ফতেখাঁরকুলে আবুল বশার বাবু, রশিদনগরে সেলিনা আক্তার, ঈদগড়ে ৩ জন – কামাল উদ্দিন, আবদুস সালাম, সুলতান আহমদ, গর্জনিয়ায় ইস্কান্দর মির্জা,খুনিয়াপালং এসএম ফরিদুল আলম, কাউয়ারখোপে লুৎফুন্নাহার। উখিয়ায় ২ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেন জালিয়াপালং এ এসএম ইমরুল শরীফ, পালংখালীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী রবিউল হোসেন।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, জেলার ২১ ইউনিয়নে ১১ নভেম্বর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ২৬ অক্টোবর ২১ ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিনে ১৩২৩ জন প্রার্থীর মধ্যে ১২৪৯ জন প্রার্থী প্রত্যাহার শেষে মাঠে ঠিকে রইলেন। নানা কারন দেখিয়ে ১৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ৭৩ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এরমধ্যে ৫৬ জন সাধারণ সদস্য এবং ৩ জন সংরক্ষিত সদস্য রয়েছে ।
জেলা নির্বাচন অফিসের তথ্যমতে, ৩ উপজেলার ২১ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে ১৪১ জনে প্রত্যাহার করেছেন ১৪ জন, মহিলা সদস্য পদে ২৩৫ জনে প্রত্যাহার করেছেন ৩ জনের এবং সাধারণ সদস্য পদে ৯৪৭ জনের ৫৬ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেন। আজ ২৭ অক্টোবর মাঠে থাকা প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে । জেলায় মোট বৈধ প্রার্থী দাড়ালো ১২৪৯ জন।
জেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ শাহাদাত হোসেন এবং সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মা চকরিয়া নিউজকে জানান, গত ১৭ অক্টোবর ৩ উপজেলার ১৩২৩জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর মধ্যে সদরে ভারুয়াখালীতে ৬ জন চেয়ারম্যান, ১২ জন মহিলা মেম্বার, ৫২ জন সাধারন সদস্য।
চৌফলদন্ডীতে চেয়ারম্যান ৭ জন মহিলা ১৮ জন, পুরুষ ৩৭ জন। ঝিলংজায় চেয়ারম্যান পদে ৬ জন, মহিলা ৭ জন, পুরুষ ৪২ জন। খুরুস্কুলে চেয়ারম্যান ৪ জন, মহিলা ১৫ জন, পুরুষ ৫৩ জন। পিএমখালীতে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, মহিলা ১৪ জন, পুরুষ ৪২ জন।
রামু উপজেলার চাকমারকুলে চেয়ারম্যান ৮ জন, মহিলা ৭, পুরুষ ৩০ জন। ফতেখারকুলে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, মহিলা ৭ জন, পুরুষ ৩৭ জন। র্গজনিয়া চেয়ারম্যান পদে ৮ জন, মহিলা মেম্বার ১২ জন, সাধারণ সদস্য ৪৪ জন। ঈদগড় চেয়ারম্যান ৭ জন, মহিলা ৯ জন, পুরুষ ৩৬ জন। জোয়ারিয়ানালা চেয়ারম্যান ৬ জন, মহিলা ১২ জন, পুরুষ ৪৪জন। কচ্চপিয়া চেয়ারম্যান ৭জন, মহিলা ৮ জন, পুরুষ ৩২ জন। খুনিয়াপালং চেয়ারম্যান পদে ১০ জন, মহিলা ১৩ , পুরুষ ৪৩ জন। কাউয়ারখোপ চেয়ারম্যান প্রার্থী ৮ জন, মহিলা মেম্বার ১১ জন, পুরুষ ৪০ জন। রশিদনগরে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪ জন, মহিলা ১১ জন, পুরুষ ৩৯ জন। রাজারকুলে চেয়ারম্যান প্রার্থী ১০ জন, মহিলা ১৩ জন পুরুষ ৪৩ জন। দক্ষিণ মিঠাছড়িতে চেয়ারম্যান পদে ৯ জন ,মহিলা ৯ জন পুরুষ মেম্বার ৪২ জন।

উখিয়ার হলদিয়াপালং এ চেয়ারম্যান পদে ৯ জন, মহিলা মেম্বার পদে ১৪ জন এবং পুরুষ মেম্বার পদে রেকর্ড ৭১ জন। জালিয়াপালং এ চেয়ারম্যান পদে ১১ জন, মহিলা ১৪ জন, পুরুষ ৫১ জন। রাজাপালং এ চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, মহিলা ৮ জন, পুরুষ মেম্বার ৬২ জন। রতœাপালং এ চেয়ারম্যান পদে ৫জন, মহিলা ৮ জন, পুরুষ মেম্বার পদে ৪৭ জন। পালংখালীতে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, মহিলা সদস্য ১৩ জন এবং পুরুষ সদস্য পদে ৬৮ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। মোট ৩ পদে ১৩২৫ জন প্রার্থীর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১৪১ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ২৩৫ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৯৪৯ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র স্ব স্ব রিটার্নিং অফিসার বরাবরে জমা দেন।
সদরের পিএমখালী, ঝিলংজা এবং ভারুয়াখালী ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার-সদরের নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা জানান, আজ ২৭ অক্টোবর পিএমখালী, ঝিলংজা, খুরুস্কুল ইউনিয়ন পরিষদের প্রার্থীদের প্রতিক বরাদ্দ হবে সদর উপজেলা পরিষদে, ভারুয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের প্রাথীদের প্রতিক বরাদ্দ হবে সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার অফিসে এবং চৌফলদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিক বরাদ্দ হবে সাবমেরিন অফিসের বিপরীতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয়ে। মাঠে থাকা সকল প্রার্থীদের স্ব স্ব রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে প্রতিক বরাদ্দে অংশগ্রহণের আহবান জানিয়েছেন সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মা।

পাঠকের মতামত:

 
error: Content is protected !!