ঢাকা,শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১

চকরিয়ায় জাল দলিলে খতিয়ান সৃজন, প্রতারকচক্রের ৭জনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া ::
চকরিয়ায় জাল দলিল তৈরি করে সেই দলিল ভূমি অফিসে দিয়ে নামজারি খতিয়ান করার পর অন্যজনের ক্রয়কৃত জায়গা বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী জায়গার মালিক সাতজনকে আসামি করে জালিয়াতি ও প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা করেছেন। আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে দ্রুতসময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) নির্দেশ দিয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার পৌরসভার পশ্চিম বাটাখালী গ্রামের মৃত আবদুল মতলবের পুত্র ভুক্তভোগী মোক্তার আহমদ উপজেলা জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলাটি করেন।

আসামিরা হলেন-একই এলাকার আবদুচ ছোবহানের ছেলে কামাল হোসেন ও তার ছেলে নূর মোহাম্মদ, মৃত মৌলভী ইয়াকুবের ছেলে হাবিবুন্নবী, পালাকাটার মৃত ফিরোজ আহমদ মুন্সির ছেলে ফখরুল ইসলাম, সাহারবিলের মাইজঘোনার মৃত আলী আহমদের ছেলে নুরুল আবচার ও জামাল হোসেন, মৃত নূর আহম্মদের ছেলে মনির আহমদ।

আদালতে করা মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, বাটাখালী মৌজার বিএস ৪৮৮ দাগ থেকে ১০ শতাংশ জায়গা মালিক থেকে গত ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর রেজিস্ট্রি কবলামূলে খরিদ করেন। ক্রয়কৃত জায়গায় ভোগ-দখলেও আছেন। কিন্তু আসামিরা দলিল নম্বর ও সরকারি কর্মকর্তার স্বাক্ষর জাল করে একটি ভুয়া দলিল সৃজন করেন। সেই দলিল দিয়ে আসামি কামাল হোসেনের নামে নামজারি খতিয়ান (নম্বর-৫৯২) করা হয়। অথচ যে দলিল দিয়ে নামজারি খতিয়ান করা হয়, সেই দলিলের কোন অস্তিত্ব নেই সরকারি রেকর্ডে। কামাল তার নামে খতিয়ান করার পর সেই জায়গা অন্য তিনজনকে বিক্রি করে দেয়। এরপর তারাও নিজেদের নামে খতিয়ান করে বাদীর জায়গা দখল নিতে গেলে বেরিয়ে আসে আসল কাহিনী।

এ অবস্থায় বাদী উপজেলা সহকারি কমিশনারের (ভূমি) কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। এর প্রেক্ষিতে তহশিলদার তদন্ত করে জালিয়াতি বিষয়টি প্রমাণ হলে গত ১৭ জানুয়ারি খতিয়ানগুলো বাতিল করে পূর্বের খতিয়ানে জায়গা ফেরত দেয়া হয়।

এব্যাপারে বাদীর আইনজীবী মো. নুরুল কাদের বলেন, অন্যের জায়গা জোরপূর্বক দখলে নেয়ার জন্য সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্রের এটি একটি বড় ধরনের জালিয়াতির ঘটনা। তাই আদালত শুনানি শেষে অভিযোগ আমলে নিয়ে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সিআইডিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

চকরিয়া উপজেলা ভুমি অফিসে কর্মরত  একশ্রেণীর অসাধু ব্যক্তিরা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে নিয়োজিত দূর্ণীতিবাজ তহশিলদাররা সিন্ডিকেট করে দীর্ঘদিন ধরে জাল দলিল ও জাল খতিয়ান সৃজন করে অন্যের জমি দখল করে দখলবাজদেরকে একেরপর এক অন্যের জমি দখলে নেয়ার সুযোগ দিয়ে আসছে। এ রকম অনেক ভুক্তভোগী রয়েছে যারা দখলবাজদের ভয়ে মুখ খুলতে পাচ্ছেনা। চকরিয়ার সচেতন মহলের দাবী অতিদ্রুত এসব জাল দলিল ও জাল খতিয়ান সৃজনকারী প্রতারকদের বিচারের আওতায় আনা।

পাঠকের মতামত: